1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এনএসএ-র শীর্ষে এবার নতুন মুখ

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল সহ বন্ধু দেশের শীর্ষ নেতাদের উপর নজরদারির জের ধরে বিপুল বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এনএসএ৷ সংস্থার আগামী প্রধানকে হারানো আস্থা ফিরিয়ে আনার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে হবে৷

এডোয়ার্ড স্নোডেন এনএসএ-র কার্যকলাপ সম্পর্কে এমন সব তথ্য ফাঁস করে দিয়েছেন যে, তার ফলে দেশে-বিদেশে বেশ চাপের মুখে পড়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা৷ বিপাকে পড়েছে ওবামা প্রশাসন৷ এবার সংস্থার শীর্ষে রদবদলের পালা৷ মার্কিন সেনেটের অনুমোদন প্রক্রিয়া ঠিকমতো চললে ভাইস অ্যাডমিরাল মাইক রজার্স আগামী মার্চ মাসে এই নতুন চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে চলেছেন৷ বিতর্কে জেরবার বিদায়ী প্রধান কিথ আলেক্সান্ডার একই সময়ে অবসর নিতে চলেছেন৷

নিরাপত্তা, ব্যক্তিগত তথ্য সংরক্ষণ ও ব্যক্তিস্বাধীনতা – এই তিনের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখার ক্ষেত্রে মাইক রজার্স উপযুক্ত ব্যক্তি – এক বিবৃতিতে এমনটাই দাবি করা হয়েছে৷ তিনি বর্তমানে নৌ-বাহিনীর ‘সাইবার কমান্ড' বিভাগের শীর্ষ স্থানে রয়েছেন৷ তিনি একজন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ক্রিপটোলজিস্ট৷ ফলে ইন্টারনেট ও ডিজিটাল তথ্য সম্পর্কে তাঁর ভালোই ধারণা রয়েছে৷ বর্তমান প্রথা অনুযায়ী সেই দায়িত্ব বজায় রেখেই তিনি এনএসএ-র শীর্ষ পদ গ্রহণ করবেন৷ ওবামা প্রশাসন এখনো এই দুই কাজের দায়িত্ব এক ব্যক্তির হাতে রাখতে চায়৷

USA PK Obama zur NSA-Affäre 17.1.2014

প্রেসিডেন্ট ওবামা মিত্র দেশের শীর্ষ নেতাদের উপর গোয়েন্দাগিরি চালানোর কর্মসূচি বন্ধ করার ঘোষণা করেছেন

সম্প্রতি এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট ওবামা মিত্র দেশের শীর্ষ নেতাদের উপর গোয়েন্দাগিরি চালানোর কর্মসূচি বন্ধ করার ঘোষণা করেছেন৷ ঢালাওভাবে মার্কিন নাগরিকদের টেলিফোন সংলাপ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহের কাজও বন্ধ করার ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি৷

নাইন ইলেভেনের পর অ্যামেরিকায় নিরাপত্তার বিষয়টি এত বেশি গুরুত্ব পেয়েছিল, যে নাগরিক অধিকার খর্ব হলেও তা নিয়ে বেশি উচ্চবাচ্য শোনা যায়নি৷ বিদেশের মাটিতে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার কার্যকলাপ সম্পর্কেও বিস্ময়ের কোনো কারণ ছিল না৷ কিন্তু আঙ্গেলা ম্যার্কেল সহ মিত্র দেশগুলির শীর্ষ নেতাদের টেলিফোনে আড়ি পাতার ঘটনার জের ধরে ওবামা প্রশাসন বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে৷ ব্যক্তিগত স্তরে আস্থার এমন অভাব থাকলে যে স্বাভাবিক সম্পর্ক বজায় রাখা কঠিন হবে, মার্কিন নেতৃত্ব তা ক্রমশ বুঝতে পারছেন৷ মাইক রজার্স সেই আস্থা আবার ফিরিয়ে আনতে কতটা অবদান রাখতে পারেন, সে দিকেই সব মহলের নজর থাকবে৷

এসবি/ডিজি (রয়টার্স, ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন