1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘এটা বিরোধী দলকে দমনের নতুন ষড়যন্ত্র’

ক্ষতিপূরণের বিধান রেখে হরতালের সহিংসতা প্রতিরোধে নতুন একটি আইন করতে যাচ্ছে সরকার৷ আর সহিংসতার অভিযোগ প্রমাণ হলে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধনও বাতিল করা হতে পারে৷

তবে মাহবুব উদ্দিন খোকনের মতে, এটা বিরোধী দলকে দমনের নতুন ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই না৷

চট্টগ্রামে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ব্যবসায়ীদের এক সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর বলেন, নতুন এই আইন প্রণয়ন হলে ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠান উভয়ই ক্ষতিপূরণ পাবেন সহিংসতা সৃষ্টিকারীদের কাছ থেকে৷ আর যদি কোনো রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে সহিংসতার প্রমাণ পাওয়া যায়, তাদের নিবন্ধনও বাতিল করা হতে পারে৷ তিনি বলেন, সহিংসতা কখনো রাজনৈতিক অধিকার হতে পারে না৷

তাই হরতালের নামে সহিংসতা সৃষ্টিকারীদের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায়ের বিধান রেখে সহিংসতার বিরুদ্ধে নতুন আইন তৈরির চিন্তা করছে সরকার৷ তিনি অবশ্য এই আইনের বিস্তারিত ব্যাখা দেননি ঐ অনুষ্ঠানে৷

নতুন আইনের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এবং বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, এর জন্য নতুন কোনো আইনের প্রয়োজন নাই৷ প্রচলিত আইনেই কোনো সহিংসতায় ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সম্পদের ক্ষতি হলে ক্ষতিপূরণ আদায়ের বিধান আছে৷ আর শুধু ক্ষতিপূরণই নয়, বিধান আছে শাস্তিরও৷ এর জন্য নতুন আইন প্রণয়নের ভালো কোনো উদ্দেশ্য থাকতে পারে না৷ তাই তাঁর কথায়, ‘‘হরতাল রাজনৈতিক অধিকার৷ এই আইন করে সরকার মূলত কৌশলে হরতাল বন্ধ করতে চায়৷ তারা ইতিমধ্যেই সভা-সমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে৷ এখন হরতালের সহিংসতা প্রতিরোধে নতুন আইনের নামে হরতালও বন্ধ করতে চাইছে৷''

তিনি দাবি করেন, বিরোধী দল হরতালে সহিংসতা করে না৷ সরকারি দলই সহিংসতা করে বিরোধী দলের ওপর চাপায়৷ তাই সরকার যেন তার দলীয় নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়৷

স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী সহিংসতায় জড়িত প্রমাণ পাওয়া গেলে রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন বাতিলের যে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তার জবাবে মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, এটা সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কাজ নয়, নির্বাচন কমিশনের কাজ৷ সে জন্য স্বারাষ্ট্রমন্ত্রীর কথায় প্রমাণ হয় যে, নির্বাচন কমিশন স্বাধীন নয়৷ সরকার নির্বাচন কমিশনকে নিয়ন্ত্রণ করছে৷ একটি রাজনৈতিক দল কিভাবে পরিচালিত হবে, তাদের নিন্ধন থাকবে কিনা – তা নির্বাচন কমিশনেরই দেখা উচিত৷

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, নতুন আইনের মাধ্যমে মূলত সরকার বিরোধী দলকে দমনের আরেকটি হাতিয়ার তৈরি করতে চায়৷ কিন্তু এভাবে দমন করে গণতান্ত্রিক আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না, বলে মনে করেন তিনি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়