1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এক নতুন বিজয় দিবস

এবারের বিজয় দিবস বাঙালির কাছে নতুন রূপে ধরা দিয়েছে৷ বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির ৩দিন পর এই বিজয় দিবস জাতিকে ভিন্ন মাত্রায় উজ্জীবিত করেছে৷ দিয়েছে নতুন সাহস৷

৪২ বছর ধরে জাতি যা চেয়েছে, তার বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে৷

১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ মধ্যরাতে বাঙালি নিধন শুরু করেছিল পাকিস্তানি সেনাবাহিনী৷ কিন্তু তার জবাব দেয়া হয়েছে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা আর মুক্তি সংগ্রামের মধ্য দিয়ে৷ ৯ মাসে চরম আত্মত্যাগের মাধ্যমে ১৬ই ডিসেম্বর স্বাধীন হয় বাংলাদেশ৷ ৩০ লাখ মানুষ জীবন দিয়েছে স্বাধীনতার জন্য৷ কিন্তু এই স্বাধীনতার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর এ দেশীয় দোসর রাজাকার, আলবদর, আল শামসসহ স্বাধীনতা বিরোধীরা ব্যাপক গণহত্যা চালিয়েছে৷ হত্যা, ধর্ষণ, লুটতরাজের মত মানবতা বিরোধী অপরাধ করেছে৷ আর তাদের বিচারের আওতায় আনতে কয়েক দশক সময় লেগেছে৷ এর মধ্যে তারা রাজনৈতিকভাকেও প্রভাবশালী হয়েছে৷

কিন্তু মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করে রেহাই পাওয়া যায়না৷ তাই ৪২ বছর অপেক্ষা করতে হলেও অন্তত একজন যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসি কার্যকর হয়েছে৷ ফাঁসির দণ্ড নিয়ে কারাগারে আছে শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীরা৷ তাই এবারের বিজয় দিবস নতুন আরেক বিজয় নিয়ে এসেছে বলে ডয়চে ভেলেকে জানালেন বীরাঙ্গনা ফেরদৌসি প্রিয়ভাষিণী৷ তিনি বলেন, এখন থেকে আরেক মুক্তিযুদ্ধ শুরু হল৷ আর তা হল যুদ্ধাপরাধীমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার যুদ্ধ৷ সব যুদ্ধাপরাধীর শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত এই যুদ্ধ থামবেনা৷ আর এই যুদ্ধে নেতৃত্ব দিচ্ছে তরুণ প্রজন্ম৷

তরুণ সাংবাদিক মনজুরুল আলম পান্না বলেন, ‘‘সব যুদ্ধাপরাধীর শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত জাতি কলঙ্ক মুক্ত হবেনা৷ জানি তারা এখন রাজনৈতিক ভাবে শক্তিশালী৷ তাদের পৃষ্ঠপোষকদের শক্তি আরো বেশি৷ তবুও ভয় পেলে চলবেনা৷ ভয়কে জয় করেই এগিয়ে যেতে হবে৷ কারণ যতদিন স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি থাকবে, ততদিন বাংলাদেশের স্বাধীনতা পূর্ণতা পাবেনা৷'' তিনি আরও বলেন, যুদ্ধাপরাধীর বিচার নিয়ে যারাই সংকীর্ণ দলীয় রাজনীতি করবে, শেষ বিচারে তাদের করুণ পরিণতি বরণ করতে হবে৷

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. শান্তনু মজুমদার বলেন, কাদের মোল্লার ফাঁসির পর জামায়াত আবার একাত্তরের ভূমিকায় নেমেছে৷ তারা মানুষ হত্যা করছে৷ করছে সন্ত্রাস৷ তাই তাদের দমনে শুধু সরকার নয়, সামাজিকভাবে এগিয়ে আসতে হবে৷ গড়ে তুলতে হবে প্রতিরোধ৷ একাত্তরে তারা পরাজিত হয়েছে৷ এবার তারা নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে৷

ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির নির্বাহী সভাপতি শাহরিয়ার কবির ডয়চে ভেলেকে বলেন, ৪২ বছর ধরে দেশের মানুষ একটি যুদ্ধাপরাধীমুক্ত বিজয় দিবসের অপেক্ষা করেছে৷ সেই আশা কিছুটা হলেও পূরণ হয়েছে৷ তিনি আশা করেন, এর পরের বিজয় দিবসে সবার না হলেও প্রধান যুদ্ধাপরাধীদের শাস্তি কার্যকর হবে৷ তিনি বলেন, জামায়াত যে একাত্তর সালের অবস্থান থেকে একটুও সরেনি, তার প্রমাণ তাদের এখনকার নির্মম সহিংসতা৷ তারা দেশে গৃহযুদ্ধের হুমকি দিচ্ছে৷ তাই তাদের দমন করতে হবে কঠোর ভাবে৷ তাদের দমনে সামরিক বাহিনী নামাতে হবে৷ তিনি অবিলম্বে যুদ্ধাপরাধীদের সংগঠন জামায়াতকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানান৷

ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসির মামুন ডয়চে ভেলেকে বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের কোনো ভাবেই এই বাংলায় ঠাঁই হবেনা৷ তারা ভেবেছিলেন ভয় দেখিয়ে বিচার বন্ধ করে দেবেন৷ কিন্তু ভয়কে জয় করে অন্তত একজন যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসি কার্যকর হয়েছে বাংলাদেশে৷ বাকিরাও রেহাই পাবেনা৷ তিনি বলেন এই যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষায় কাজ করছে একটি বড় রাজনৈতিক দল৷ তারা এ নিয়ে কুট রাজনীতি করছে৷ কিন্তু সেই রাজনীতি শেষ পর্যন্ত সফল হবেনা বলে মনে করেন মুনতাসির মামুন৷ এ দেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী কোনো শক্তি টিকতে পারবেনা৷ ভোটের রাজনীতির সঙ্গে জামায়াতকে রক্ষার অপকৌশল সফল হবেনা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়