1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

একাকী কারাগারে মানসিক কষ্টে সময় কাটে আসিফের

ব্লগার আসিফ মহীউদ্দিনের জামিন আবেদনের শুনানি হবে সাতাশ জুন৷ তবে কারাগারে আসিফ মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন বলে জানিয়েছে তাঁর পরিবারের সদস্যরা৷ তাঁরা জানান, অসিফের বিরুদ্ধে যে অভিযোগে ‘চার্জশিট’ দেয়া হয়েছে তার কোন ভিত্তি নেই৷

ব্লগার আসিফ মহীউদ্দিনকে হত্যার উদ্দেশ্যে তাঁর ওপর হামলা চালান হয় গত ১৩ই জানুয়ারি৷ সেই হামলার পর আসিফ পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার আগেই তাঁকে গত তেসরা এপ্রিল গ্রেফতার করা হয় পবিত্র ধর্ম ‘ইসলামকে অবমাননার' অভিযোগে৷ কিন্তু তাঁর পরিবারের দাবি, তদন্তকারীরা এখনো আসিফের বিরুদ্ধে ইসলাম অবমাননার কোন প্রমাণ হাজির করতে পারেননি৷ ব্লগে লেখালেখি করে আসিফ ‘ধর্মের অবমাননা' করেছে বলে যে অভিযোগ আনা হয়েছে, আসিফের সে ধরনের লেখালেখিরও কোন প্রামাণ পাওয়া যায়নি বলে ডয়চে ভেলের কাছে দাবি করেন আসিফের বড় বোন ড. জাহিদা মেহেরুন্নেসা৷

তিনি বলেন, ‘‘আসিফকে অযথাই কারাগারে আটক রাখা হয়েছে৷ একই ধরনের অভিযোগে আটক অপর ৩ ব্লগারকে জামিন দেয়া হলেও আসিফকে কেন জামিন দেয়া হচ্ছেনা তা তারা বুঝতে পারছেন না৷''

আসিফের আরেক বোন জুয়েলা জেবুন্নেসা মনি ডয়চে ভেলেকে জানান, শনিবার তাঁরা কারাগারে আসিফের সঙ্গে দেখা করেছেন৷ তাঁকে কারাগারে একটি বদ্ধ প্রকোষ্ঠে একাকি রাখা হয়েছে৷ সেখানে থেকে সে দিন দিন মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে৷ সে নিজেও বুঝতে পারছেনা কি তাঁর অপরাধ৷

তিনি বলেন, ‘‘অসিফকে গ্রেফতার করা হয় অসুস্থ অবস্থায়৷ এখনো তারা শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি৷ কারাগারে রেখে তার সুচিকিত্‍সা সম্ভব নয়৷ তাই তাঁকে অন্তত চিকিত্‍সার জন্যও যেন জামিন দেয়া হয়৷''

জুয়েলা জেবুন্নেসা জানান, এর আগে কারাগারে আসিফ হুমকির মুখে ছিল৷ তাঁর সঙ্গে খারাপ আচরণও করা হয়েছে৷ তবে এখন আর খারাপ আচরণের কথা তাদের জানায়নি আসিফ৷ তারপরও এক ধরনের চাপ অনুভবব করছেন তাঁরা৷ তাদের পরিবারের প্রতি সরাসরি কোন চাপ বা হুমকি না থাকলেও তাদের সামাজিকভাবে বিচ্ছিন্ন করার একটি চেষ্টা চলছে বলে তাদের ধারণা৷

তিনি বলেন, ‘‘আসিফের জন্য প্রথম থেকে যে আইনজীবী নিয়োগ করা হয়েছিল সেই আইনজীবী আলাউদ্দিন মোল্লা আর আসিফের মামলা পরিচালনা করবেন না বলে তাদের জানিয়ে দিয়েছেন৷''

আলাউদ্দিন মোল্লা কোন কারণ না জানালেও শনিবার তাঁর অপারগতার কথা জানান বলে জানিয়েছেন মনি৷

এদিকে, দ্বিতীয় পর্যায়ে এই মামলায় আসিফের পক্ষে আইনি লড়াইয়ে নিয়োজিত হন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া৷ তিনি ডয়চে ভেলেকে জানান, সাতাশে জুন আসিফের জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হবে৷ একই দিনে অভিযোগ গঠনের ওপর শুনানিও হবে৷

তিনি বলেন, একই অভিযোগে আটক আরো ৩ ব্লগার যেহেতু জামিন পেয়েছেন, তাই তাঁর আশা এবার হয়তো আসিফ জামিন পাবেন৷

এদিকে ব্লগার আসিফ মহীউদ্দিনের মুক্তির দাবিতে শুক্রবার জাতীয় জাদুঘরের সামনে দেশের বিশিষ্ট নাগরিকরা মানব বন্ধন করেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন