1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

একটি সমীক্ষা: জার্মান মিডিয়ায় ‘জিপসি’ বিদ্বেষ

বলকান অঞ্চলের দেশগুলি থেকে আসা ‘দরিদ্র অভিবাসীদের’ নিয়ে রাজনৈতিক জগতে ও গণমাধ্যমে যে আলাপ আলোচনা চলছে, তাকে ভীষণ ক্ষতিকর বলে উল্লেখ করেছে জার্মান সিন্টি ও রোমা সম্প্রদায়ের কেন্দ্রীয় পরিষদ৷

Antiziganismus in der deutschen Öffentlichkeit Romani Rose

রোমানি রোসে

‘মিডিয়ায় সিন্টি ও রোমা বিদ্বেষ' নিয়ে প্রকাশিত সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষায় এই ধরনের চিত্রই উঠে আসে৷

‘‘হ্যাঁ আমরা অনেক অর্জন করেছি৷'' স্মৃতিচারণ করে বলেন জার্মান সিন্টি ও রোমা সম্প্রদায়ের কেন্দ্রীয় পরিষদের প্রধান রোমানি রোসে৷ ৩০ বছর আগেও এতোটা অর্জন হবে বলে ধারণা করা যায়নি৷ যেমন জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে একটি অ্যাপয়েন্টমেন্ট করা সম্ভব হয়েছে, নাৎসিদের হত্যাযজ্ঞের শিকার সিন্টি ও রোমাদের জন্য একটি স্মৃতিসৌধ স্থাপন করা হয়েছে, শ্লেসভিগ হলস্টাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু সুরক্ষার বিষয়টি সংবিধানে সংযোজন করা হয়েছে৷

Antiziganismus in der deutschen Öffentlichkeit Markus End

সমীক্ষার লেখক মার্কুস এন্ড

কিন্তু এইসব ইতিবাচক পদক্ষেপ সত্ত্বেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে সিন্টি ও রোমাদের সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণাটা আরো বৃদ্ধি পেয়েছে বলে মনে করেন রোসে৷

‘দারিদ্র্য অভিবাসন' নিয়ে বিতর্ক ক্ষতিকর

জার্মানিতে ‘দারিদ্র্য অভিবাসন' নিয়ে যে বিতর্ক চলছে, সেই দিকে ইঙ্গিত করে বলেন তিনি৷ গত কয়েক বছরে দক্ষিণপূর্ব ইউরোপ থেকে আসা রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীদের সংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়েছে৷

২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে জার্মানির বেশ কিছু শহরের মেয়র একত্রিত হয় জার্মান সরকারের কাছে আর্থিক সাহায্য দাবি করেছেন৷ কেননা বিভিন্ন ইইউ-ভুক্ত দেশগুলি থেকে আসা দরিদ্র মানুষের চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাঁদের৷

মিডিয়ায় দরিদ্র অভিবাসীদের সঙ্গে সিন্টি ও রোমাদের এক করে ফেলা হয়৷ সমালোচনা করে বলেন ‘জার্মান মিডিয়ায় সিগয়নার বা জিপসি বিদ্বেষ' সমীক্ষার লেখক মার্কুস এন্ড৷ এটা ভুল, কেননা এতে পার্থক্যটা চোখে পড়ে না বলে মনে করেন তিনি৷

Bildergalerie Diskriminierung

জার্মানির বৈষম্য বিরোধী কেন্দ্রের প্রধান ক্রিশ্টিয়ানে ল্যুডার্স

বিষয়টি নিয়ে সস্তা জনপ্রিয়তা পাওয়ার চেষ্টা করা হয়৷ যেমন বাভারিয়ার এক স্থানীয় নির্বাচনে সিএসইউ-এর পক্ষ থেকে এক স্লোগান দেওয়া হয়, ‘‘যে প্রতারণা করবে, সে বের হয়ে যাবে৷'' কট্টর ডানপন্থি কিছু ভোটের জন্য এই সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জনের চেষ্টাকে সমালোচনা করেন রোসে৷ এইভাবে বিপজ্জনক এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়া হয়৷

কট্টর ডানপন্থি দলগুলি সস্তা জনপ্রিয়তা চায়

ইদানীং ইউরোপীয় ইউনিয়নব্যাপী কট্টর ডানপন্থি দলগুলি বিদেশি বিদ্বেষের ধোঁয়া তুলে ভোটারদের কাছে টানতে চেষ্টা করছে৷ এই প্রবণতা বিশেষ করে হাঙ্গেরিতে স্পষ্ট৷ রোসে আশা করেন জার্মান রাজনৈতিক দলগুলি এই প্রবণতা থেকে দূরে থাকবে৷ তাঁর প্রশ্ন: দারিদ্র্যের সঙ্গে বংশের কী সম্পর্ক?

এই ধরনের বিতর্কে ফলে জার্মানিতে বসবাসকারী সংখ্যলঘুদের ওপর মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে পারে৷ যেমনটি হয়েছিল জার্মানিতে নাৎসি আমলে ইহুদিদের ভাগ্যে৷

জার্মানির বৈষম্য বিরোধী কেন্দ্রের প্রধান ক্রিশ্টিয়ানে ল্যুডার্স এই প্রসঙ্গে বলেন, কর্মবাজারে সিন্টি ও রোমাদের অবস্থা ‘খুব খারাপ'৷

বিমানবন্দরে ও রেলস্টেশনে ঘনঘন নিয়ন্ত্রণের মুখে পড়তে হয় এই জনগোষ্ঠীকে৷ পুলিশকে এই ধরনের জাতিবৈষম্যমূলক আচরণ থেকে বিরত থাকার দাবি জানান ল্যুডার্স৷

ইতিবাচক দৃষ্টান্ত দেওয়া যায়

সিন্টি ও রোমাদের সম্পর্কে এই নেতিবাচক ধারণার বিপরীতে ইতিবাচক দৃষ্টান্ত দিয়ে পাল্টা হাওয়া বইয়ে দেওয়া যায়৷ বলেন ল্যুডার্স৷ অনেকেই জানেনা, চার্লি চ্যাপলিন ও পাবলো পিকাসো এই জনগোষ্ঠী থেকেই এসেছেন৷ তবে অল্প কিছু দৃষ্টান্ত দিয়ে বিদ্বেষের শেকড় ওপড়ানো যাবে না৷ সতর্ক করে বলেন সমীক্ষার লেখক মার্কুস এন্ড৷ এই জনগোষ্ঠী সম্পর্কে গণমাধ্যমের দায়িত্বহীন আচরণও একটা বড় সমস্যা৷ বলেন এই রাষ্ট্রবিজ্ঞানী৷ প্রেস ও মিডিয়া এখনও ‘সিগয়নার' বা জিপসিদের বিষয়ে ছাঁচেঢালা চিত্রটাই তুলে ধরে৷ এ ক্ষেত্রে সরকারি ও বেসরকারি মিডিয়ার মধ্যে খুব কমই পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়৷ এতে বোঝা যায় বৈরিতা শুধু দক্ষিণপন্থিদের সমস্যা নয়, বরং সমাজের কেন্দ্র থেকে উঠে আসে এটি৷ মনে হয় অনেক সাংবাদিক কিন্ডারগার্টেন থেকে এই বদ্ধমূল ধারণাটা সাথে নিয়ে এসেছেন৷ মিডিয়ার সমালোচনা করে সিন্টি ও রোমা কেন্দ্রীয় পরিষদের প্রধান রোমানি রোসে বলেন, সাংবাদিকদের দায়িত্বশীল হতে হবে৷ রাজনীতিবিদদের দৃষ্টান্ত বাছবিচার না করেই গ্রহণ করা উচিত নয় তাঁদের৷

সিন্টি ও রোমারা বৈষম্যের শিকার

বলকান অঞ্চলের দেশগুলি থেকে আসা অভিবাসীদের রাজনৈতিক আশ্রয় দেওয়ার ব্যাপারে কড়াকড়ি করার প্রসঙ্গে রোসে বলেন, সার্বিয়ার মতো দেশগুলিতে সিন্টি ও রোমারা সরাসরি নির্যাতনের শিকার না হলেও বৈষম্যের শিকার হন৷ ইউরোপ হলো একটি সম্প্রদায়, এ কারণে সিন্টি ও রোমা অধ্যুষিত দেশগুলিতে যাতে বিশেষ করে অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ভাল হয়, সে চেষ্টা করা উচিত ইউরোপের৷

এন্ড জার্মানিতে বর্ণবৈষম্য নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করার প্রস্তাব রাখেন৷ এখনকার কার্যকলাপ দেখে মনে হয়, জার্মানি যেন শুধুমাত্র ‘স্মৃতিরক্ষা নীতি' পালন করেই স্বস্তি বোধ করছে৷ আর সব কিছুই যেন ঠিকঠাক আছে৷

এ ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডকে দৃষ্টান্ত হিসাবে নেওয়া যেতে পারে৷ এই দেশগুলিতে এই ধরনের বিতর্ক অনেক খোলামেলা ও বিস্তৃত৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়