1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এই হামলা অ্যামেরিকাকে এক কঠিন পরীক্ষার মুখে ফেলেছে

সন্ত্রাসবাদীরা তাদের হামলার মাধ্যমে মুক্ত সমাজ ধ্বংস করতে চায়৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচার যখন জমে উঠেছে, ঠিক তখনই অরল্যান্ডোর এই হামলাকারী সেই কাজে সফল হতে পারেন বলে মনে করছেন ইনেস পোল৷

সন্ত্রাসবাদীরা তাদের হামলার মাধ্যমে সাধারণত দু'টি লক্ষ্য পূরণ করতে চায়৷ প্রথমত, মানুষ হত্যা করা৷ তাছাড়া মুক্ত সমাজ ধ্বংস করে ফেলতে চায় তারা৷ সে কারণেই অরল্যান্ডো শহরের নাইটক্লাবে হামলায় ৫০ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যুর ঘটনা শুধু বেদানময় এক ট্র্যাজিডি নয়, এটি অত্যন্ত বিপজ্জনক এক ইঙ্গিত বহন করে৷

এমন সময় এই হামলা ঘটল, যখন অ্যামেরিকা এক কঠিন পরীক্ষার মুখে রয়েছে৷ অ্যামেরিকা এমন এক সংঘাতের সূচনাপর্বে রয়েছে, যার মাধ্যমে শুধু আগামী প্রেসিডেন্ট কে হবেন, সেই ফয়সালা হচ্ছে না৷ শক্তিশালী এই দেশটি কোন দিশায় এগোবে, সেই মৌলিক সিদ্ধান্তের সময় এসে গেছে৷ গত কয়েক বছরে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যে প্রগতিশীল পথে অগ্রসর হয়েছেন, আগামী প্রেসিডেন্ট সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারেন৷ অথবা তাঁর সাফল্য ও অর্জন নষ্ট করে ফেলতে পারেন৷

সর্বোচ্চ আদালতের শীর্ষ পদের গুরুত্ব

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা সীমিত৷ ওবামা বার বার সেই বেদনা অনুভব করেছেন৷ স্বাস্থ্য খাতের সংস্কার থেকে শুরু করে গুয়ান্তানামো কারাগার বন্ধ করার চেষ্টার সময় তিনি হাড়ে হাড়ে তা টের পেয়েছেন৷ দুই দলীয় শাসনব্যবস্থায় আপোশের বদলে সংঘাতই যেখানে বেড়ে চলেছে, সেখানে একজন প্রেসিডেন্টকে বার বার সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হতে হয়৷

USA Orlando Symbolbild Trauer nach Attentat

অ্যামেরিকা কি সন্ত্রাসবাদীদের ফাঁদ থেকে দূরে থাকতে পারবে?

এই সুপ্রিম কোর্ট নির্বাচনের গুরুত্ব আরও বাড়িয়ে তোলার অন্যতম কারণ৷ দেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে বিচারপতিদের বিশাল প্রভাব-প্রতিপত্তি রয়েছে৷ শেষ পর্যন্ত তাঁরাই সমকামীদের বিয়ের অধিকার থেকে শুরু করে উভলিঙ্গদের টয়লেট ব্যবহার সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেন৷

এই বিচারপতিদের কার্যকালের মেয়াদ আজীবন হওয়ার কারণে তাঁদের ম্যানডেট যে কোনো প্রেসিডেন্টের কার্যকালের সীমা ছাপিয়ে যায়৷ বর্তমানে বিচারমণ্ডলীতে একটি পদ খালি রয়েছে৷ বাকি বিচারপতিদেরও বয়স হচ্ছে৷ তাই আগামী প্রেসিডেন্ট কমপক্ষে আরও দুই বিচারপতি নিয়োগ করতে পারবেন বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে৷

সন্ত্রাস থেকে ফায়দা তোলার প্রচেষ্টা

অরল্যান্ডোর জঘন্য হামলা নির্বাচনি প্রচার অভিযান জমে ওঠার ঠিক আগে ঘটলো৷ এই মর্মান্তিক ঘটনার ঠিক পরেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা এই হামলা থেকে ফায়দা তোলার চেষ্টা শুরু করলেন৷ আততায়ীর ধর্মীয় পরিচয় উল্লেখ করে টুইটারের মাধ্যমে তাঁরা ট্রাম্পকে তাঁর ইসলাম-বিরোধিতার জন্য অভিনন্দন জানালেন৷ মুসলিমদের প্রতি সংহতিবোধ ও সহানুভূতিকেও হিলারি ক্লিন্টনের বিরুদ্ধে হাতিয়ার করবেন তাঁরা৷ নিজেদের প্রার্থীকে আরও শক্তিশালী করতে তাঁরা মানুষের ভীতিকে কাজে লাগাবেন৷ কারণ মনে হচ্ছে, চলতি বছর অ্যামেরিকার অনেক মানুষ এই ধরনের জনমোহিনী ‘পপুলিজম'-এর প্রতি বিশেষভাবে আকৃষ্ট হচ্ছেন৷ চটজলদি দাওয়াইয়ের প্রতিশ্রুতি শুনে তাঁরা মোহিত হয়ে পড়ছেন৷ মানুষকে বিচ্ছিন্ন করে ও তাদের উপর নজরদারি চালিয়ে যে সমাজ গড়ে তোলার চেষ্টা চলছে, তার পরিণতি সম্পর্কে তাঁরা ভাবনাচিন্তা করতে প্রস্তুত নন৷

Pohl Ines Kommentarbild App

ইনেস পোল, ডয়চে ভেলে

প্রতিভাধর জনমোহিনী নেতা

ফ্লোরিডার জঘন্য হত্যাকাণ্ড থেকে চুটিয়ে ফায়দা তুলবেন প্রতিভাধর জনমোহিনী নেতা ট্রাম্প৷ সন্ত্রাসী হামলা ঘটলে যে কোনো মুক্ত সমাজের সামনে বড় এক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে৷ ব্যক্তিস্বাধীনতার মূল্য নিয়ে জটিল প্রশ্ন উঠে আসে৷ মুক্ত সমাজ ধরে রাখতে কতটা ঝুঁকি নিতে আমরা প্রস্তুত? সন্ত্রাসের ঘটনা ফলে যে ঘৃণা ও প্রতিশোধস্পৃহা দেখা যায়, সেই অবস্থায় রাজনীতিবিদ ও সাধারণ মানুষের পক্ষে শান্ত ও স্থিতিশীল থাকা কঠিন হয়ে পড়ে৷ প্যারিস হামলার পর ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রঁসোয়া ওলঁদ সেই অসাধ্য সাধন করতে পেরেছিলেন৷ তিনি দেশবাসিকে সুযোগ্য নেতৃত্ব দিতে পেরেছিলেন৷

সন্ত্রাসবাদীদের ফাঁদ

কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন এমন নির্বাচনি প্রচার চলছে, গোটা বিশ্ব যেমনটা এর আগে কখনো দেখেনি৷ ২০১৬ সালের অ্যামেরিকা কি সন্ত্রাসবাদীদের ফাঁদ থেকে দূরে থাকতে পারবে? মৌলবাদী মুসলিমদের আদর্শ অনুসরণ করে মৌলিক স্বাধীনতা খর্ব না করে থাকতে পারবে কি সেই দেশ? নাকি ‘অ্যামেরিকান ড্রিম'-এর ধারণা রক্ষা করা সম্ভব হবে, যার ভিত্তিই হলো অভিবাসীদের খোলামেলা এক সমাজ? অন্ধ ক্রোধের জয়ের সম্ভাবনাই বেশি৷

ডয়চে ভেলের ইনেস পোল মনে করেন, অরল্যান্ডোর এই হামলা অ্যামেরিকাকে এক কঠিন পরীক্ষার মুখে ফেলেছে৷ প্রিয় পাঠক, আপনিও কি তাই মনে করেন? নীচের ঘরে আপনার মতামত জানান৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়