1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘‘এই যুদ্ধে অনেক ক্ষেত্রে অনিয়মই নিয়ম হবে!''

বাংলাদেশে শেষ হয়েছে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন৷ কিন্তু এখনও থামছে না সহিংসতা৷ থেমে নেই ব্লগ আর ফেসবুকে লেখালেখিও৷ একজন ব্লগার মনে করেন, দেশপ্রেম অথবা মানবতাবোধে দু'দলই শূন্য পেয়েছে৷

সামহয়্যার ইন ব্লগে কয়েছ আহমদ বকুল লিখেছেন, ‘‘৫ জানুয়ারি পেরিয়ে গেছে৷ ইগো সংক্রান্ত জটিলতায় বিএনপি, আওয়ামী লীগ উভয় দলই পাস করেছেন বলা চলে৷ আর দেশপ্রেম অথবা মানবতাবোধে দু'দলই পেয়েছে শূন্য৷ উভয়ই হেরেছে চরমভাবে৷'' তবে বকুল আশা করছেন, ‘‘আগামীতে দেশ রক্ষায় দেশের সাধারণ মানুষের প্রতি সামান্যতম ভালোবাসা অবশিষ্ট থাকলে সেই ভালবাসার অনুভবে তারা (দুই দল) ইগো পরিহার করবে৷''

নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম নিয়ে আমারব্লগে দেয়া পোস্টে নাভিদ আরমান শিফাত লিখেছেন, ‘‘...মনে রাখবেন বিশ্ববাসী, যে দেশের মানুষ ক্রিকেট ম্যাচের টিকিটের জন্য ২ রাত না খেয়ে একটানা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে পারে, সে দেশের মানুষরাই ভোটকেন্দ্রে নাকে তেল মেখেও যেতে পারে না৷ কারণ ক্রিকেটাররা তাদের কাছে ভগবান আর রাজনীতিবিদ এক আপদের নাম৷''

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি আশরাফুল আলম খোকন ফেসবুকে লিখেছেন, নির্বাচন নিয়ে কেউ যদি প্রশ্ন উত্থাপন করতে চায় তাহলে খুব বেশি গবেষণার প্রয়োজন নেই, সাদা চোখেই তা দেখা যায়৷ তবে এই ঘরানার লোকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘‘...যাঁরা যুদ্ধাপরাধী জামায়াত-শিবির গোষ্ঠীকে ক্ষমতায় আনতে চান তাঁরা নির্বাচন নিয়ে ত্যানা প্যাচাইতে থাকেন! এই অপশক্তির বিরুদ্ধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমাদের সংগ্রাম চলবেই! এই যুদ্ধে অনেক ক্ষেত্রে অনিয়মই নিয়ম হবে! ত্যানা প্যাচানোদের কাউন্ট করার টাইম নাই!''

আমারব্লগে জামানের পোস্টের শিরোনাম, ‘‘আওয়ামী লীগ হারলেও বাংলাদেশকে হারতে দেবে না জননেত্রী শেখ হাসিনা৷'' প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি লিখেছেন, ‘‘আপনার ডাকে সাড়া দিয়ে বাংলার অকুতোভয় জনতা বোমা, গ্রেনেড, জ্বালাও-পোড়াও, হত্যা ও সন্ত্রাসকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ভোটের মাধ্যমে তাদের ম্যান্ডেট প্রয়োগ করেছে৷ এখন এই জনগণের ভোটের মর্যাদা রক্ষার দায় আপনার ও প্রতিটি নির্বাচিত সাংসদের এবং আগামী সরকারের উপর বর্তেছে....একাত্তরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে নিরস্ত্র জনগণ পৃথিবীর অন্যতম দুর্ধর্ষ ও চৌকষ বাহিনী পাকিস্তানি হানাদার ও কতিপয় এদেশীয় দালালদের শোচনীয়ভাবে পরাজিত করে যে বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলো তাকে পরিপূর্ণতা দিতেই আজকের সংগ্রাম৷''

বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির মধ্যে জীবন চালিয়ে যেতে সাধারণ জনগণের জন্য কয়েকটি পরামর্শ দিয়ে সামহয়্যার ইন ব্লগে পোস্ট দিয়েছেন আরাফাত শাহরিয়র৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘এতদিনে অন্তত এটা পরিষ্কার হয়ে উঠেছে যে ক্ষমতাসীন জোট হোক, আর ক্ষমতাহীন জোটই হোক, পরস্পরকে বিপাকে ফেলার জন্য তাদের প্রধান অস্ত্রটি হচ্ছে সাধারণ মানুষকে জানে মেরে ফেলা অথবা তাদের সকল প্রকার দুর্দশার সুবন্দোবস্ত করা৷''

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়