1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

এই যুগেও এত মানুষ ক্ষুধাপীড়িত!

বিশ্বে চরম ক্ষুধাপীড়িত মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৪ কোটি ২০ লাখে৷ খবরটি পড়ে অনেকে আমাদের কাছে ই-মেল, ফেসবুকে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন৷ কেউ কেউ এর কারণ বের করারও চেষ্টা করেছেন৷

যেমন বাংলাদেশের মাদারীপুর থেকে মোঃ রাসেল শিকদার লিখেছেন, ‘‘খবরটি পড়ে আঁতকে উঠলাম৷ সত্যি ভাবতে কষ্ট হয় আধুনিক বিশ্বে এসেও ক্ষুধার সঙ্গে মানুষের যুদ্ধ করে জীবিকা নির্বাহ করতে হয়৷ ডয়চে ভেলের এই প্রতিবেদন থেকে আরো জানতে পারলাম আফ্রিকার প্রতি চারজনের মধ্যে একজন খাদ্যাভাবে ভুগছে৷''

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ থেকে ডা. সিদ্ধার্থ সরকার লিখেছেন, ‘‘আজ বিশ্বে চরম ক্ষুধাপীড়িত মানুষের সংখ্যা ৮৪ কোটি ২০ লাখ! এর কারণ জনসংখ্যা বৃদ্ধি, উষ্ণায়ন জনিত কারণে কৃষি উৎপাদন কম, অর্থনৈতিক মন্দার কারণে ক্রয় ক্ষমতা হ্রাস৷ আর এসবের পাশাপাশি বড্ড বেমানান লাগে যখন দেখি উন্নত দেশগুলোতে খাদ্যের অপচয়! এইসব উন্নত দেশগুলোর মানসিকতার উন্নতি হবে না?''

Slum Schule in Nairobi Kenia

বিশ্বে চরম ক্ষুধাপীড়িত মানুষের সংখ্যা এখন ৮৪ কোটি ২০ লাখ

ফেসবুকে আশরাফুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘আতঙ্কিত হবার মত তথ্য৷''

ক্ষুধাপীড়িতের খবরের পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী বিদেশি বন্ধুদের সম্মাননা দেয়া এবং এগার বছরের গৃহকর্মী আদরিকে নির্যাতন বিষয়ক প্রতিবেদন নিয়েও মন্তব্য করেছেন মাদারীপুরের মোঃ রাসেল শিকদার৷ তাঁর মতে, ‘‘বিদেশিদের সম্মাননা দেওয়ার মাধ্যমে তাদের সাথে আমাদের সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক আরো বৃদ্ধি পাবে৷'' আদরির ব্যাপারে রাসেল শিকদার ডয়চে ভেলের মাধ্যমে নির্যাতনকারীর যথাযথ শাস্তি কামনা করেছেন৷

প্রিয় মোঃ রাসেল শিকদার, আপনার মতো আমরাও আদরিকে নির্যাতনকারীর উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছি৷

মঙ্গলবারের আলোচিত সংবাদ ছিল বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসির রায় এবং পূর্বেই রায়ের খসড়া প্রকাশের খবর৷ এ নিয়ে ব্লগওয়াচ প্রতিবেদন করে ডয়চে ভেলে৷ ফেসবুকে এই প্রতিবেদন সংক্রান্ত পোস্টের নীচে জহিরুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘সাকার রায় যদি আগেই প্রকাশ হয়ে থাকে তাহলে এটা নিশ্চয় সাকা পরিবার জালিয়াতি করিয়া প্রকাশ করার ব্যবস্থা করিয়াছেন আদালত কে বিতর্কিত করার জন্য৷''

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন