1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘এই দেশটা আমার নয় – বলে তাদের হাতেই তুলে দিচ্ছেন'

ওয়াশিকুর রহমান ওরফে বাবু নামে এক ব্লগারকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা৷ এই হত্যার বিরুদ্ধে আবারো নিন্দার ঝড় উঠেছে সামাজিক মাধ্যমে৷

সাংবাদিক সাবির মুস্তফা টুইটারে লিখেছেন, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় ব্লগার ওয়াশিকুর রহমানকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে৷ হত্যার কারণ অস্পষ্ট৷ পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে এবং হত্যার অস্ত্র উদ্ধার করেছে৷

তাহমিনা আমিন টুইটারে এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ শেয়ার করে লিখেছেন অভিজিৎ রায়ের পর আর এক ব্লগারকে কুপিয়ে হত্যা করা হলো৷

ইবতিশাম আহমেদ টুইটারে এ খবরটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘‘আর একটি মাস, আর একজন ধর্ম নিরপেক্ষ ব্লগার খুন হলেন বাংলাদেশে৷ আমরা কি পরবর্তী মাসে এ ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখার অপেক্ষায় থাকব?''

সেলিম সামাদ লিখেছেন, বাংলাদেশের ব্লগার রহমানকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে৷

লেখিকা তসলিমা নাসরিন টুইটারে লিখেছেন, বাংলাদেশ এখন মুক্তচিন্তার মানুষদের জন্য নয়৷

ব্লগার পারভেজ আলম তার ফেসবুক পাতায় লিখেছেন, ‘‘

যারা বলেন, এই বাংলাদেশ আমার নয়, তাদের উচিত নিজেদেরকে প্রশ্ন করা ‘আমি কি আদৌ বাংলাদেশটাকে কখনো নিজের মতো করে পেতে চেয়েছি? পাওয়ার জন্যে কী কী কাজ আমি করেছি?' যারা ধর্মীয় মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি করে তারা এই বাংলাদেশটাকে নিজেদের মতো করে পেতে চায়৷ পাওয়ার জন্যে তাদের চেষ্টার অন্ত নাই৷ তারা জোর গলায় দাবি তোলে বাংলাদেশটা তাদের৷ আর আপনি ‘এই বাংলাদেশটা আমার নয়' বলে দেশটাকে তাদের হাতেই তুলে দিচ্ছেন৷ বাংলাদেশে এখন নাস্তিকদের জীবনের দাম সবচাইতে কম৷ কারণ তারা রাজনীতিতে আপাদমস্তক পরাজিত ও ব্যবহৃত হয়েছে৷ এখন বলির পাঠার মতো গণহারে নিহত হচ্ছে৷ এই অবস্থায়, ‘বিচার চাই' বলে যেতেই হবে, গলায় ছুড়ি থাকা অবস্থায়ও বলতে হবে ‘বিচার চাই'৷

‘বাংলাদেশ নয়া-পাকিস্তান হয়ে গেছে' এই বলে প্রচার করার মানে হলো মুক্তিযুদ্ধ থেকে জন্ম নেয়া 'ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশের' অস্তিত্বকেই অস্বীকার করা৷ যে ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, নাস্তিক সকলেই সমান ও যেই বাংলাদেশ তার সকল নাগরিককে ন্যায় বিচার দিতে বাধ্য সেই বাংলাদেশের অস্তিত্ব অস্বীকার করে কেবলি সন্ত্রাসীদের বাংলাদেশকে স্বীকার করে নেয়া হলো আত্মহননের সামিল৷'

তিনি আরো লিখেছেন, ‘‘মরার পরে যদি ব্লগারের সহযোদ্ধারা তার খুনির হাতেই দেশটাকে তুলে দিতে চায়, বিচার আদায় করার ক্ষমতাও না রাখে, তাইলে ওয়াশিকুর বাবু'র মরে গিয়ে কী লাভ হইল? এইরকম রাজনৈতিকভাবে অজ্ঞান ও আবেগসর্বস্ব একটি কমিউনিটির আদর্শের জন্যে খুন হওয়ার চাইতে এই ছেলের জীবনের মূল্য অনেক বেশি ছিল৷''

সাংবাদিক রুহুল মাহফুজ জয় ফেসবুকে লিখেছেন, ‘‘

অভিজিৎ রায় হত্যার মাস পার হতে না হতেই খুন হলেন মুক্তমনা ব্লগের ব্লগার ওয়াশিকুর বাবু৷ এদেশে মুক্তবুদ্ধি চর্চা করা যাবে না তাহলে? আমরা তো এই বাংলাদেশই চেয়েছি নাকি!! জেনে রাখো, যত হত্যা হবে...মুক্তমনা তত বাড়বে৷ তোমরা একদিন পরাজিত হবেই৷''

মেঘনা গুহঠাকুরতা লিখেছেন, ‘হিটলিস্টের ৮৪ জনের মধ্যে ৮ জন ব্লগারকে হত্যা করা হলো৷'

অভিনু কিবরিয়া ইসলাম লিখেছেন, ‘‘

এবার ওয়াশিকুর বাবু৷ তার প্রোফাইল পিকচারে ঝুলছে, 'আই অ্যাম অভিজিৎ'৷ এই খুনের জন্য সরকার ও রাষ্ট্রযন্ত্র মুখ্যত দায়ী, আর আমরা সকলেই পরোক্ষভাবে দায়ী৷ আমরা দুদিন ফেসবুকে ঝড় তুলে, কার্যত কোন প্রেশার তৈরি করতে না পেরে, শেষমেশ ঘরে ঢুকে বসে আছি৷ তার চেয়ে চলুন, নিজেরাও খুন হয়ে যাওয়ার দিন গুনি৷''

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়