1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ঋতুস্রাবজনিত ব্যথা কমাতে আকুপাংচার কার্যকর

সব মেয়েরই মাসিকের সময় ব্যথা হয়, তবে কারও কারও ক্ষেত্রে ব্যথার পরিমাণটা খুব তীব্র হয়৷ একে বলে ঋতুস্রাবজনিত ব্যথা৷

default

আকুপাংচার চিকিত্সা নিচ্ছেন এক নারী

প্রায় ৬৭.২ শতাংশ মেয়েকেই এ ব্যথাতে কাতর হতে হয় বলে এক প্রতিবেদনে জানা গেছে৷ সাধারণত মেয়েরা বয়ঃসন্ধি পার হবার পরই এ রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে৷ তবে ৪০ বছরের উপর নারীদের এ রোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা কম থাকে৷ মেয়েরা এ রোগে এত বেশি কষ্ট পায় যে এর নিরাময় নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে এবং হচ্ছে৷

মেয়েদের ঋতুস্রাবজনিত ব্যথা কমাতে আকুপাংচার কার্যকর বলে সাম্প্রতিক একটি রিভিউ প্রতিবেদনে জানা গেছে৷ প্রায় তিন হাজার নারীর উপর করা ২৭টি গবেষণা নিয়ে ঐ প্রতিবেদনটি তৈরি করেন দক্ষিণ কোরিয়ার ক্যুং হি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারের গবেষকরা৷ তাঁরা বলেন, ওষুধ ও হারবাল মেডিসিনের চেয়েও আকুপাংচার কার্যকর হতে পারে৷

এক বিবৃতিতে গবেষকরা বলেন, ব্যথা উপশমে আকুপাংচারের কার্যকারিতা সম্বন্ধে নিশ্চিত হবার মতো কিছু বিষয় পাওয়া গেছে৷ কারণ আকুপাংচার শরীরের সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেমে এন্ডোরফিন্স ও সেরোটোনিন উত্পাদন করতে সহায়তা করে৷ মানুষ ব্যায়াম করলে বা উত্তেজনায় শরীরে এন্ডোরফিন্স উত্পন্ন হয়, যা দেহে ভাল একটা অনুভূতি নিয়ে আসে৷

গবেষকরা বলছেন, সাধারণ ওষুধ ও হারবাল মেডিসিন দিয়ে করা চিকিত্সার চেয়ে ব্যথা নিরাময়ে আকুপাংচার বেশি কাজ করে৷ জার্নাল অব অবসটেট্রিকস এন্ড গাইনোকোলজি-র সাম্প্রতিক সংখ্যায় গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে৷

Bend it like Beckham

ঋতুস্রাবজনিত ব্যথার কারণে মেয়েরা সাধারণ কাজই করতে পারেনা

মার্কিন ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব হেলথ্-ও বলছে যে ঋতুস্রাবজনিত ব্যথার চিকিত্সায় আকুপাংচার কার্যকর হতে পারে৷

কি কারণে এ ধরণের ব্যথা হয় তা এখনো জানা যায়নি৷ তবে কোনো কোনো নারীর ক্ষেত্রে এই ব্যথার সঙ্গে বমি, ডায়রিয়া, মাথাব্যথা, বিতৃষ্ণাসহ আরও নানাধরণের সমস্যা দেখা দেয়৷ ফলে সবমিলিয়ে নারীদের এ রোগে বেশ ভুগতে হয়৷ কারও কারও ক্ষেত্রে বয়স বাড়ার পরও ব্যথা থেকে যায়৷

শতকরা ১০ শতাংশ মেয়েদের ক্ষেত্রে পরিস্থিতি এত জটিল আকার ধারণ করতে পারে যে কর্মজীবী মেয়েরা কাজে যেতে পারেনা৷ ফলে প্রতি বছর এই কর্মজীবি নারীদের বেতনের পেছনে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার অপচয় হয়ে থাকে৷

ঋতুস্রাবজনিত ব্যথা কমাতে সাধারণত বিভিন্ন ধরণের অনুশীলনের পরামর্শ দেয়া হয়ে থাকে৷ এছাড়া ব্যথা নিরোধক ওষুধ ব্যবহার ও তলপেটে গরম তাপ দেয়ার কথাও বলা হয়৷ ইদানিং আকুপাংচারের কথাও আলোচিত হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়৷

চীনে প্রায় ২,৬০০ সাল আগে থেকে অ্যানেস্থেশিয়ার জন্য আকুপাংচারের ব্যবহার হয়ে আসছে৷ বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, রক্ত সঞ্চালনের ক্ষেত্রে যে কোনো ধরণের বাধা দূর করতে আকুপাংচার কার্যকর৷

পশ্চিমা বিশ্বের অনেক ডাক্তারও আজকাল বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে তাঁর রোগীদের চিকিত্সায় আকুপাংচার ব্যবহার করছেন৷

প্রতিবেদন : জাহিদুল হক

সম্পাদনা : আবদুস সাত্তার

সংশ্লিষ্ট বিষয়