1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় পর্যায়: সহিংসতার আশঙ্কা

শনিবার তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আগের দুই ধাপের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে৷ কারণ, এর মধ্য দিয়েই অধিকাংশ উপজেলার নির্বাচন সম্পন্ন হবে৷ নির্বাচনের ফলাফল শেষ পর্যন্ত কোন দলের পক্ষে যাবে, তা স্পষ্ট হবে শনিবারেই৷

দুই দফায় মোট ২১২টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন হয়েছে৷ শনিবার আরো ৮৩ উপজেলায় নির্বাচন৷ শনিবারে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ২৯৫টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন শেষ হওয়ার কথা৷ অর্থাৎ মোট ৪৮৭টি উপজেলার মধ্যে বাকি থাকবে আর মাত্র ১৮২টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন৷ তাই শনিবারের নির্বাচন নানা দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ৷

১৯শে ফেব্রুয়ারির প্রথম ধাপে ৯৭টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে বিএনপি এগিয়ে থাকে৷ চেয়ারম্যান পদে বিএনপির ৪৪ জন, আওয়ামী লীগের ৩৩ জন এবং জামায়াতের ১৩ জন বিজয়ী হন৷ ২৭শে ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় ধাপের ১১৫টি উপজেলার নির্বাচনে বিএনপি ৫৩, আওয়ামী লীগ ৪৪ এবং জামায়াতের আটজন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন৷ এছাড়া দুই ধাপের ফলাফলে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি ৯৭, আওয়ামী লীগ ৭৭ এবং জামায়াত ২১টি উপজেলায় জয় পায়৷ স্বতন্ত্র এবং অন্যান্যরা চেয়ারম্যান পদে ১৩টি উপজেলায় জয়ী হয়েছেন৷ দুই ধাপে প্রায় ৫০ ভাগ উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২০টি আসন বেশি পেয়ে বিএনপি এককভাবেই আওয়ামী লীগের চেয়ে এগিয়ে আছে৷



উপজেলা নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগ হোঁচট খেয়েছে এরই মধ্যে৷ অন্যদিকে, নির্বাচন কমিশন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর আচরণে বিএনপি ক্ষোভ প্রকাশ করলেও ফলাফলে সন্তুষ্ট তারা৷

সুশাসনের জন্য নাগরিক বা সুজন-এর সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার ডয়চে ভেলেকে জানান, ‘‘তৃতীয় পর্যায়ের এই নির্বাচন এখন মর্যাদার লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে৷ কারণ এ পর্যায়ের নির্বাচন শেষ হলে জনপ্রিয়তা স্পষ্ট হয়ে যাবে৷ তাই সহিংসতার আশঙ্কা আছে৷'' তিনি বলেন, এরই মধ্যে সহিংসতার আলামতও দেখা গেছে৷ নির্বাচন কমিশন তার দায়িত্ব ঠিকমত পালন করছে না৷ এরকম হলে নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক চলতেই থাকবে৷''

জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষক পরিষদ বা জানিপপ-এর চেয়ারম্যান ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘প্রথম ধাপের নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হলেও দ্বিতীয় ধাপের সহিংসতা হয়েছে৷ আর এখন তো তৃতীয় ধাপ শুরুর আগেই সহিংসতা শুরু হয়েছে৷ গাজীপুরের শ্রীপুরে নির্বাচনি সহিংসতায় প্রকাশ্যে একজনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে৷'' তিনি বলেন, ‘‘তাই উপজেলা নির্বাচন এখন আর শান্তিপূর্ণ হবে বলে আশা করা যায় না৷'' ড. কলিমুল্লাহ মনে করেন, নির্বাচন কমিশনের উচিত হবে নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণ করার ব্যবস্থা করা৷

শনিবারের পর ২৩শে মার্চ উপজেলা নির্বাচনের চতুর্থ পর্যায়ে ৯২টি উপজেলায় এবং ৩১শে মার্চ পঞ্চম পর্যায়ে ৭৪টি উপজেলায় নির্বাচন হবে৷ এরপর এপ্রিলে ষষ্ঠ ধাপে ২২টি উপজেলার নির্বাচন হওয়ার কথা৷ তবে ষষ্ঠ ধাপের তফসিল এখনো ঘোষণা করেনি নির্বাচন কমিশন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়