1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা তোলা নিয়ে বিতর্ক বাংলাদেশে

উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা তোলা নিয়ে বাংলাদেশে দীর্ঘদিন ধরে বিতর্ক চলছে৷ সরকারের তরফ থেকে একাধিকবার এভাবে কয়লা তোলার পক্ষে সমর্থন দেয়া হলেও জনগণ তার বিরোধীতা করেছে৷ ঘটেছে প্রাণহানির ঘটনা৷

Indien Kinderarbeit in Kohlelager

প্রতীকী ছবি

বাংলাদেশে ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা তোলা সংক্রান্ত বিতর্ক নিয়মিত কভার করছে৷ চলতি বছরের তিন ফেব্রুয়ারি অনলাইন সংবাদপত্রটিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনের শিরোনাম ছিল, ‘‘কয়লা তুলতে উন্মুক্ত পদ্ধতির দিকে সরকার৷''

এই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় যে, ‘‘বাংলাদেশে পাঁচটি কয়লা খনি থাকলেও ভূগর্ভস্থ পদ্ধতিতে শুধু একটি খনি থেকে প্রতিদিন গড়ে সাড়ে চার হাজার টনের মতো কয়লা উৎপাদন হচ্ছে৷ পেট্রোবাংলার হিসাবে, পাঁচটি খনিতে ৩১০ কোটি টনের মতো কয়লা মজুদ রয়েছে৷ কিন্তু কয়লা কিভাবে তোলা হবে তা নিয়ে গত দেড় দশকেও বিতর্ক থামিয়ে কয়লা নীতি করতে পারেনি সরকার৷''

অবশ্য তিনদিন পরই প্রকাশিত আরেক প্রতিবেদনে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম উল্লেখ করে, কয়লা তোলার ক্ষেত্রে ‘নতুন প্রযুক্তির' জন্য অপেক্ষা করবে সরকার৷ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাতে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু জানান, ‘‘প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, কয়লা উত্তোলনে আরো নতুন প্রযুক্তি হয়ত এই সময়ের মধ্যে চলে আসতে পারে৷ এই মুহূর্তে কয়লা উত্তোলনের ব্যাপারে নতুন প্রযুক্তির জন্য অপেক্ষা করব৷''

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে দীর্ঘদিন ধরে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা তোলার বিরোধীতা করে আসছে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি৷ এই কমিটির একটি প্রতিনিধি দল গত বছর ভারতে উন্মুক্ত কয়লা খনি পরিদর্শনে গিয়ে পুলিশি বাধার মুখে ফিরতে আসতে বাধ্য হয়৷

তবে বাংলাদেশে অত্যন্ত সক্রিয় এই কমিটি৷ ২০০৬ সালের ২৬শে আগস্ট এই কমিটির মিছিলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী গুলি চালালে তিনজন নিহত এবং প্রায় দুই শত মানুষ আহত হন৷ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের সিদ্ধান্ত বাতিল এবং যুক্তরাজ্যভিত্তিক কোম্পানি এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ি থেকে প্রত্যাহারের দাবিতে সেই মিছিলের আয়োজন করা হয়েছিল৷

সংকলন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়