1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

উন্নয়নশীল দেশে সবার জন্য ওষুধ চাই

উন্নয়নশীল দেশগুলিতে বহু রোগী জরুরি ওষুধ-পত্রের অভাবে মারা যান৷ কারণ চড়া মূল্যে ওষুধ কেনা তাদের পক্ষে সম্ভব হয় না৷ তবে দাম ছাড়াও কিছু অসুবিধার কারণে প্রয়োজনীয় ওষুধ জোগাড় করতে পারে না অনেকে৷

অ্যামেরিকার হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুলের প্রফেসর আনিটা ওয়াগনার এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘এমন সব অসুখ-বিসুখেও মানুষ মারা যাচ্ছে, যেগুলির নিরাময়ে খুব ভালো ওষুধ আছে৷ আমাদের সমস্যা হলো প্রক্রিয়াটা এমন, যাদের এই সব ওষুধ প্রয়োজন, তারা এগুলি পায় না৷''

দরিদ্র দেশে সস্তায় ওষুধ

কিছু ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান, যেমন ফ্রান্সের সানোফি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা কম আয়ের দেশগুলিতে যতটা সম্ভব কম দামে ওষুধ বিক্রি করে থাকে৷ একই ওষুধ শিল্পোন্নত দেশগুলিতে বেশি দাম দিয়ে বিক্রি করে তারা৷ এর ফলে ভারসাম্যটা বজায় থাকে৷ ব্যবসায় লোকসান হয় না৷

Shailesh Pednekar, der für die Region Afrika zuständige Marketing Executive der indischen Firma Cipla Ltd posiert am 20.4.2001 im Export-Raum der Firma in Bombay mit einer Anzahl von Medikamenten gegen Aids. In Indien stellen Pharmafirmen preiswerte Nachahmerprodukte (Generika) von Anti-Aids-Medikamenten her. In Südafrika fand kürzlich ein Prozess zwischen 39 Pharmakonzernen und der südafrikanischen Regierung statt. Bei dem Rechtsstreit ging es um die Frage, ob Südafrika internationales Patentrecht brechen darf, um seine 4,7 Millionen Aids-Kranken mit preiswerten Medikamenten zu versorgen. Die Konzerne zogen am 19.4.2001 unter dem wachsenden internationalen Druck ihre Klage zurück.

উন্নয়নশীল দেশগুলিতে বহু রোগী জরুরি ওষুধ-পত্রের অভাবে মারা যান (ফাইল ফটো)

এই প্রসঙ্গে ওষুধপ্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সানোফির ফ্রঁসোয়া বঁপার বলেন, ‘‘টিকার ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি বেশ কার্যকর হয়েছে৷ যে টিকা আমরা অ্যামেরিকা ও ইউরোপে ৫০ ইউরো দিয়ে বিক্রি করি, সেটাই আমরা আফ্রিকায় তিন থেকে চার ইউরোতে বিক্রি করি৷ ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা ও থাইল্যান্ডের মতো দেশগুলিতে আমরা মাঝামাঝি একটা দাম যেমন ১০ থেকে ২০ ইউরো ধার্য করি৷''

বিশেষজ্ঞরা এ ব্যাপারে একমত যে, সামর্থ্য অনুযায়ী বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন রকমের দাম নির্ধারণ করাটা এইডস ও ক্যানসারের মতো অসুখের জন্য খুব জরুরি৷ কেননা উন্নয়নশীল দেশের মানুষের পক্ষে এতো দামি ওষুধ কেনা সম্ভব নয়৷ তবে ট্রপিক্যাল দেশের রোগব্যাধির ক্ষেত্রে ওষুধের দামের হেরফের করা সম্ভব নয়৷ এর কারণ ধনী দেশগুলিতে এই ধরনে অসুখ বিসুখ প্রায় দেখাই যায় না৷

উপেক্ষিত রোগব্যাধি

বঁপার স্বীকার করেন যে, ওষুধ কোম্পানিগুলি এইসব রোগের ওষুধ তৈরির ব্যাপারে তেমন আগ্রহী নয়৷ তাঁর ভাষায়, ‘‘আমরা ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠান৷ আমরা আমাদের অর্থ এমনভাবে বিনিয়োগ করতে চাই, যাতে পরে তা লাভসহ তুলে আনতে পারি৷''

ডেঙ্গু ও স্লিপিং সিকনেস-এর মতো রোগগুলিকে তাই উপেক্ষিত অসুখ বলে আখ্যায়িত করা হয়৷ এই প্রসঙ্গে আনিটা ওয়াগনার বলেন, ‘‘এসব অসুখ-বিসুখ দমন করার ক্ষেত্রে আরো মনযোগী হতে হবে৷ গবেষণা করতে হবে৷ এজন্য বিভিন্ন দেশের সরকার ও ওষুধপ্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলির মধ্যে সহযোগিতামূলক কর্মসূচি গড়ে তুলতে হবে৷''

ওষুধ-পত্র যতই সস্তার হোক না কেন, কোনো কোনো রোগীর পক্ষে তাও চড়া মূল্যের মনে হতে পারে৷ বিশেষ করে সেই মুহূর্তে যদি টাকা হাতে না থাকে৷ বিশ্বস্বাস্থ্যসংস্থা ডাব্লিউএইচও-র জো কাটসিন মনে করেন, স্বাস্থ্য পরিষেবার উন্নয়ন ও ওষুধ-পত্রের দাম সবার আয়ত্তের মধ্যে আনতে হলে আরো দেশকে এক্ষেত্রে সম্পৃক্ত করতে হবে৷

তাঁর ভাষায়, ‘‘জরুরি চিকিত্সার প্রয়োজন হলে সাথে সাথেই যাতে রোগীর পকেট থেকে টাকা দিতে না হয়, সেই রকম ব্যবস্থা করা প্রয়োজন৷ রোগীদের আর্থিক সামর্থ্য ও স্বাস্থ্যরক্ষার মধ্যে যেন টানাপোড়েন না হয়৷''

TO GO WITH India-health-hospital,FEATURE by Adam Plowright In this picture taken on February 7, 2013 hospital staff work at one of the post-operative pediatrics observation and care units of the Narayana Hrudayalaya cardiac-care hospital in Bangalore. What if hospitals were run like a mix of Wal-Mart and a low-cost airline? The result might be something like the chain of no-frills Narayana Hrudayalaya clinics in southern India. Using pre-fabricated buildings, stripping out air-conditioning and even training visitors to help with post-operative care, the group believes it can cut the cost of heart surgery to an astonishing 800 USD. AFP PHOTO/Manjunath KIRAN (Photo credit should read Manjunath Kiran/AFP/Getty Images)

ডেঙ্গু ও স্লিপিং সিকনেস-এর মতো রোগগুলিকে উপেক্ষিত অসুখ বলে আখ্যায়িত করা হয় (ফাইল ফটো)

নিয়মকানুন জানাটাও জরুরি

বঁপার মনে করেন, দাম ছাড়াও ওষুধের ক্ষেত্রে আর একটি ব্যাপার উপেক্ষা করা হচ্ছে৷ আর তা হলো ওষুধ ব্যবহারের নিয়মকানুন জানা৷ প্রথমে রোগের লক্ষণগুলি জানতে হবে, রোগটি শনাক্ত করতে হবে৷ তারপর আসে চিকিত্সার প্রশ্ন৷ এজন্য আরো বেশি ডাক্তার ও নার্সকে প্রশিক্ষণ দিতে হবে৷

তাঁর ভাষায়, ‘‘আমি আশা করি, আমার দেশের প্রতিটি জেলায় বিভিন্ন রোগ শনাক্ত করার মতো প্রযুক্তি ও কারিগরি ব্যবস্থা যেন থাকে৷ আমরা ক্যানসার শনাক্ত করতে, ম্যালেরিয়ার বিভিন্ন ধরন ও ভাইরাস সংক্রমণ সম্পর্কে যেন সহজে জানতে পারি৷ আর তাহলেই কী পরিমাণ ওষুধ আমাদের দেশে প্রয়োজন, সে ব্যাপারে আমরা সুষ্ঠু পরিকল্পনা করতে পারবো৷''

তবে রোগ প্রতিরোধই হচ্ছে সবচেয়ে ভালো ওষুধ৷ এক্ষেত্রে নানা ধরনের উদ্যোগ গড়ে উঠেছে, যাতে ওষুধের প্রয়োজনীয়তা কমে যায়৷ যেমন মা-বাবা ও বাচ্চাদের শেখানো হচ্ছে কীভাবে মশার হাত থেকে উদ্ধার পাওয়া যায়, মশারি টানিয়ে শোয়া যায়৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন