1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

উদ্বাস্তুদের টাকা দিয়ে দেশে ফেরানোর কর্মসূচি শুরু

জার্মানিতে যারা রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেছেন, তারা যাতে স্বেচ্ছায় দেশে ফেরেন সেজন্য ‘স্টার্ট হেল্প প্লাস' কর্মসূচি চালু করেছে জার্মান সরকার৷ এই কর্মসূচিতে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের দেশে ফেরার জন্য টাকা দেয়া হয়৷

পয়লা ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে চালু হয় এই কর্মসূচিটি৷ অভিবাসন ও উদ্বাস্তুদের জন্য ফেডারাল কার্যালয় (বিএমএএফ) আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংগঠন আইওএম-এর সহযোগিতায় এই কর্মসূচিটির দেখাশোনা করেছে৷ উদ্দেশ্য হলো, যে সব রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থী স্বদেশে ফিরতে রাজি, তাদের আর্থিক সহায়তা দেওয়া৷ এজন্য চার কোটি ইউরো বরাদ্দ করা হয়েছে৷

‘‘২০১৬ সালে প্রায় ৫৫,০০০ মানুষ স্বেচ্ছায় স্বদেশে প্রত্যাবর্তন করেন৷ সংখ্যাটা আগের বছরের চেয়ে বেশি, কেননা ২০১৫ সালে ফিরেছিল প্রায় ৩৫,০০০ মানুষ৷ অতিরিক্ত বাজেট পাওয়ার ফলে পরিস্থিতি আরো ভালো হয়েছে'', বলে ডয়চে ভেলেকে জানান বুধবারই সরকারিভাবে বিএমএএফ পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করা ইউটা কর্ড৷

শীঘ্রই জার্মানি ছাড়ার পুরস্কার

‘স্টার্ট হেল্প প্লাস' কর্মসূচির লক্ষ্য হলো যাদের জার্মানিতে রাজনৈতিক আশ্রয় পাবার বিশেষ সম্ভাবনা নেই, তাদের দেশ ছাড়ার জন্য পুরস্কৃত করা৷ বিশেষ করে কেউ যদি রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন দাখিলের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হওয়ার আগেই জার্মানি পরিত্যাগ করেন তাহলেই এ ‘পুরস্কার' দেয়া হবে৷

১২ বছরের বেশি বয়সের উদ্বাস্তুরা যদি তাদের আবেদন সম্পর্কে সিদ্ধান্তে নেওয়ার আগেই সেই আবেদন প্রত্যাহার করে, তাহলে তারা ১,২০০ ইউরো পাবেন৷ যাদের রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হয়েছে, তারা যদি আপিল না করতে ও একটি নির্দ্দিষ্ট সময়ের মধ্যে জার্মানি পরিত্যাগ করতে রাজি থাকে, তবে তারা পাবে ৮০০ ইউরো৷ পরিবার ও ১২ বছরের কম বয়সের শিশুসন্তানদের জন্য বাড়তি অর্থ দেওয়া হবে৷ এমনকি যারা জার্মানিতে সাময়িকভাবে থাকার অনুমতি পেয়েছে, তারাও স্বদেশে ফেরার জন্য আর্থিক সহায়তা লাভ করতে পারে৷

এ সুযোগের অপব্যবহার রোধের জন্য পশ্চিম বলকান অঞ্চলের দেশগুলি ও সিরিয়া থেকে আসা উদ্বাস্তুদের এই কর্মসূচি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে৷ বাকিদের বলা হচ্ছে যে, স্বেচ্ছায় স্বদেশে প্রত্যাবর্তন সরকারিভাবে জার্মানি থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার চেয়ে ভালো৷ অপরদিকে, সরকারের পক্ষেও এই কর্মসূচির মাধ্যমে উদ্বাস্তুদের ফেরত পাঠানোর খরচ বিধিবদ্ধভাবে বহিষ্কারের খরচের চেয়ে অনেক কম৷

এসি/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি, ইপিডি)

উদ্বাস্তুদের টাকা দিয়ে দেশে ফেরানোর এই কর্মসূচি সম্পর্কে াপনার কিছু বলার থাকলে লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়