1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

উত্তর কোরিয়ার কূটনীতিককে বের করে দিচ্ছে বাংলাদেশ

চোরাচালানের অভিযোগে উত্তর কোরিয়ার এক কূটনীতিককে দেশ থেকে বের করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ৷ শিপিং কন্টেইনারে করে এক মিলিয়ন সিগারেট এবং ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী শুল্ক না দিয়ে বাংলাদেশে এনেছিলেন তিনি৷

ঢাকায় উত্তর কোরিয়ার দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি হান সন ইককে বাংলাদেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে৷ যথাযথ প্রক্রিয়া লঙ্ঘন করে প্রায় লাখ মার্কিন ডলারের পণ্য বাংলাদেশে আনার অভিযোগ ওঠার পর এই সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ সরকার৷ ঢাকার জনপ্রিয় পত্রিকা প্রথম আলো লিখেছে, ‘‘গত মাসে শুল্ক কর্মকর্তারা কমলাপুরের অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার ডিপোতে (আইসিডি) তল্লাশি চালিয়ে উত্তর কোরিয়া দূতাবাসের ওই প্রথম সচিবের নামে আনা সাড়ে তিন কোটি টাকা মূল্যের সিগারেট ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম আটক করেন৷''

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক কূটনীতিককে বহিষ্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, উত্তর কোরীয়দের এটা জানানো হয়েছে৷ তবে ঠিক কবের মধ্যে কূটনীতিকের দেশত্যাগ করতে হতে তা জানাননি তিনি৷ স্থানীয় গণমাধ্যম অবশ্য জানিয়েছে, সোমবারের মধ্যেই ঢাকা ত্যাগ করতে বলা হয়েছে ইককে৷

ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে শহিদুল হক বলেন, ‘‘কূটনৈতিক শিষ্টাচার লঙ্ঘনের অভিযোগে তাকে ফিরিয়ে নিতে আমরা উত্তর কোরিয়াকে জানিয়েছি৷''

শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তা মইনুল খান জানিয়েছেন, উত্তর কোরীয় জানিয়েছিলেন যে, কন্টেইনারে খাবার এবং সফট ড্রিংকস আনা হচ্ছে৷ কিন্তু আমরা তল্লাশি দামি সিগারেট এবং ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী পেয়েছি৷ এসব সামগ্রী কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে আনা হচ্ছিল বলেও দাবি করেন এক শুল্ক কর্মকর্তা৷

এই বিষয়ে এএফপির তরফ থেকে উত্তর কোরিয়ার দূতাবাসের সঙ্গে মন্তব্যের জন্য দ্রুত যোগাযোগ সম্ভব হয়নি৷

উল্লেখ্য, এর আগে গতবছরের মার্চে ঢাকা বিমানবন্দরে ২৭ কেজি স্বর্ণসহ ধরা পড়েন আরেক উত্তর কোরীয় কূটনীতিক৷ পরে তাঁকে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করা হয়৷ এছাড়া গতবছর ঢাকায় একটি উত্তর কোরীয় রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেয়া হয়৷ কেননা তারা অনুমতি ছাড়াই ওয়াইন এবং ভায়াগ্রার মতো ড্রাগ বিক্রি করছিল৷

এআই/ডিজি (এএফপি, প্রথম আলো)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়