1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

উত্তরাখন্ডের ত্রাণ শিবিরে সেবায় নিয়োজিত জার্মান মহিলা

উত্তরাখন্ডের সাম্প্রতিক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে আটকা পড়া হাজার হাজার তীর্থযাত্রীদের উদ্ধার করে যেসব অস্থায়ী ত্রাণ শিবিরে রাখা হয়, সেখানে জমে ওঠা পাহাড় প্রমাণ প্লাস্টিক ও অন্যান্য জঞ্জাল সাফাই-এর কাজ করছেন এক জার্মান মহিলা৷

ভারতের হিমালয় পার্বত্য রাজ্য উত্তরাখন্ডে মেঘভাঙ্গা বৃষ্টি, বন্যা ও ধসে তীর্থভূমি কেদার-বদ্রী-গঙ্গোত্রী এক মৃত্যুপুরির চেহারা নেয়৷ গত আড়াই সপ্তাহ ধরে আটকা পড়া হাজার হাজার তীর্থযাত্রী এবং পর্যটকদের উদ্ধার করে তাঁদের বিভিন্ন অস্থায়ী ত্রাণ শিবিরে পৌঁছে দেয় সামরিক বাহিনী৷ ক্লান্ত, বিধ্বস্ত,অসুস্থ, মৃত্যুভয়ে আতঙ্কিত যাত্রীদের আহার পানীয়ের জন্য ব্যবহার করা হয় চটজলদি প্রচুর প্লাস্টিকের সামগ্রী৷

এমনি একটি ট্রানজিট বেস ক্যাম্প ঋষিকেশ৷ উদ্ধার করা যাত্রীদের সাময়িক আস্তানা৷ দুয়েক দিন পর যে যার গন্তব্যে চলে যাবার পর দেখা যায় শিবিরের চারপাশটা ভরে আছে আবর্জনার স্তূপে যার বেশিরভাগ প্লাস্টিকের বোতল, থালা, গ্লাস আর প্লাস্টিক ব্যাগ৷ ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে উচ্ছিষ্ট খাবার দাবার৷ ফেলে যাওয়া প্লাস্টিক ব্যাগে বন্ধ নর্দমার নিকাশি ব্যবস্থা৷ সংক্রমণের আশঙ্কা প্রতি পদে৷ জঞ্জাল সাফাই-এর পরিকাঠামো অপ্রতুল৷

স্থির থাকতে পারেননি সেবাব্রতী, ধর্মপ্রাণা এক জার্মান পরিব্রাজিকা মহিলা যাঁর হিন্দু নাম কমলা এবং তাঁর ৯/১০ বছরের ছেলে রামো৷ ভারতের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে ঘুরতে কয়েকদিন আগে পর্যন্ত ছিলেন গঙ্গোত্রীতে৷ প্রাকৃতিক দুর্যোগের আগে নেমে আসেন ঋষিকেশে৷ জনস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে ত্রাণ শিবির ও ঋষিকেশ বাস টার্মিনালের আশপাশে প্লাস্টিকের জঞ্জাল সাফ করতে সেবিকার মত হাত লাগান৷ নাম কেনার জন্য নয়, অন্তরের তাগিদে৷ থাকতে চেয়েছিলেন প্রচারের আলোর বাইরে৷ তবু চাপা থাকেনি৷ খবরের কাগজে তাঁর ছবি বেরিয়েছে ফলাও করে৷

মায়ের মতই হাত লাগিয়েছে তাঁর ছেলে রামো৷ সাফাই কর্মীদের কাছ থেকে নিজের ও মায়ের জন্য নিয়ে এসেছে দু'জোড়া রাবারের দস্তানা৷ জোগাড় করেছে পিচবোর্ডের বাক্স৷ তাতে একটি একটি করে তুলে আনছে প্লাস্টিকের আবর্জনা৷ মা-ছেলের এই কাজ হয়ত একথাই বলতে চাইছে যে, এত বড় বিপর্যয়ের পরও পরিবেশ নির্মল রাখার শিক্ষা কেন হলো না এখানকার মানুষজনদের৷

উল্লেখ্য, সরকার ও বিভিন্ন পুরসভা প্লাস্টিক ব্যাগ ইত্যাদির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে৷ নিষিদ্ধ হয়েছে ২০ মাইক্রোনের নীচে প্লাস্টিক ব্যাগ উৎপাদন৷ কিন্তু প্রয়োজন বড় বালাই৷ প্লাস্টিক ব্যাগের ব্যবহার কমেনি৷ বেশিরভাগ প্লাস্টিক ব্যাগ হাই-ডেনসিটি পলিথিন৷ তামিলনাডুর চেন্নাই শহরে দৈনিক প্রায় সাড়ে তিন হাজার আবর্জনা জমে৷ তারমধ্যে ৩০-৪০ টন প্লাস্টিক ব্যাগ৷ ২০ লাখ লোকের পুণে শহরে দৈনিক জমে ৯০টন প্লাস্টিক আবর্জনা৷ সেই আবর্জনা ফেলার মত ধাপার মাঠের অভাব৷ উন্নয়নের সময় পরিবেশ সুরক্ষার কথা মাথায় রাখলে উত্তরাখন্ডের এই মানবিক ট্র্যাজিডি অনেক কম করা যেত মনে করেন পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা৷ যেমন বৃক্ষনিধন নিবারণ করা, তীর্থযাত্রী ও পর্যটক সংখ্যা নিয়ন্ত্রিত করা এবং নদী তীরের ১০০ মিটারের মধ্যে বাড়িঘর, হোটেল, ধর্মশালা, গেস্টহাউস ইত্যাদি নির্মাণ না করা৷

পাহাড়ে বৃষ্টিবাদলের অভিঘাত রোধ করা পুরোপুরি সম্ভব নয়৷ কিন্তু কতকগুলি নির্দেশিকা পালন জরুরি৷ যেমন, পাহাড়ে রাস্তা তৈরির সময় খেয়াল রাখতে হবে পাহাড়ের একদিকটা কাটলে পাহাড়ে ঢাল দুর্বল হয়ে পড়ে এবং পর্বতের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে ভূমিধসের আশঙ্কা বাড়ে৷ এটাই হয়েছিল ১৯৯৬ সালে৷ জম্মু-কাশ্মীরের অমরনাথ তীর্থপথে বন্যা ও ধসে প্রাণ হারিয়েছিল ২৪৩ জন যাত্রী৷ তবু আমরা শিক্ষা নিইনি৷ আসলে মানুষের বাণিজ্যিক স্বার্থ এবং সরকারের ভোট ব্যাংক বড় বালাই৷ নতজানু সেখানে পরিবেশ৷ তাই এমনি করে জীবনের মূল্যে তার খেসারত দিতে হবে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন