1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করা

জার্মানিতে সোমবার ছিল ঈদ৷ তবুও ডয়চে ভেলের পাঠকদের সঙ্গে মিল রেখে কর্মীরা মঙ্গলবার অফিসে ঈদ করেছে৷ তারই কিছু ছবি ওয়েসাইটে দেওয়া হয়েছে – এভাবেই লিখেছেন পাঠক বন্ধু এমএ বারিক৷

তিনি জানিয়েছেন, ‘‘ছবিগুলো দেখে আমার ভীষণ ভালো লাগলো৷ থ্যাংক ইউ ডয়চে ভেলে আমাদেরকে এতো ভালোবাসার জন্য৷ তোমার ভালোবাসা পেয়ে আমরা ধন্যবাদ৷ আই লাভ ইউ টু৷''

এই পাঠকের লেখা পরের ইমেল, ‘‘আদা রুচি বাড়ায়, হজম করতে সহায়তা করে এবং অ্যান্টিসেপ্টিক হিসেবেও কাজ করে৷ ঔষধি গাছের গুণাগুণ নিয়ে ডয়চে ভেলের ছবিঘর থেকে আমি অনেক কিছু জানতে পারলাম৷ আদা যে অ্যান্টিসেপ্টিক হিসাবে কাজ করে তা আমার আগে জানা ছিলো না৷ এ রকম প্রতিবেদন আমি ডয়চে ভেলের কাছে থেকে আরও চাই, যা আমার জ্ঞানের ভাণ্ডারকে আরও বিকশিত করবে৷ আদার একটি বিশেষ গুণের কথা আমি ডয়চে ভেলের মাধ্যমে পাঠকদের বলতে চাই যে, অনেকে রং চা এর সঙ্গে আদা পছন্দ করেন৷ যারা দুধ চা পছন্দ করেন তাদের জন্যও একটি মজার খবর আছে৷ তা হলো দুধ চা এর সঙ্গেও আপনারা কিন্তু আদা দিতে পারেন৷ রং চা থেকে এর স্বাদও অনেক বেশি৷ দুধ চা এর সাথে যদি আপনাদের ভালো লাগে তবেই আমার লেখা স্বার্থক হবে৷ সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে আজকের মতো এখানেই শেষ করছি৷''

বগুড়ার শিবগঞ্জ থেকে বারিকের পাঠানো আরেকটি ইমেল, ‘‘বিয়ের রীতি একেক দেশে একেক রকম৷ আবার ধর্ম, গোত্র অনুসারেও বিয়ের নিয়মকানুন ঠিক হয়৷ নানা দেশের বিয়ের রীতি সম্পর্কে ডয়চে ভেলের ছবিঘর অত্যন্ত সুন্দর হয়েছে৷ এসব প্রতিবেদন থেকে অনেক কিছু শেখার আছে৷ ডয়চে ভেলে যা করে তাই আমাদের ভালো লাগে৷ কেন জানেন? কারণ ডয়চে ভেলের সাথে আমাদের প্রেম খুবই গভীর৷ ভালোবাসার মানুষের হাসি, চলাফেরা, কথা বলার ভঙ্গি ইত্যাদি তার প্রেমিকের কাছে মধুর বলে মনে হয়৷ এ প্রেম যেন জন্ম জন্মান্তরের৷''

এবারের মেলটি পাঠিয়েছেন ভারতের নতুন দিল্লি থেকে সুভাষ চক্রবর্তী৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘ওয়েবসাইট খুলে একটু ব্যতিক্রমধর্মী হলেও একটা অসাধারণ প্রতিবেদন পেলাম৷ ছোট প্রাণীদের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা করার জন্য বার্লিনে রাস্তা পারাপারের কাঠবিড়াল সেতু নির্মাণ৷ এই ধরনের উদ্যোগ যে বিশ্বের আরও কয়েকটি দেশে আছে তা তো জানা ছিল না৷ এই ধরনের উদ্যোগ বিলুপ্তির মুখে প্রাণীদের টিকিয়ে রাখতে খুবই সহায়ক হবে৷ সমগ্র প্রতিবেদনটি পড়ে ভীষণ ভালো লাগলো৷''

তিনি আরও লিখেছেন, ‘‘দিনের শেষে ওয়েবসাইটের পাতা আপডেট করতে গিয়ে ইসরায়েলি সেনার হামলায় গাজায় অসহায় নারী, শিশুর মৃত্যু মিছিলের খবরটি চোখে পড়ল৷ আন্তর্জাতিক মঞ্চে এই পরিস্থিতিতে মানবাধিকারের বিষয়ে বিশ্বের প্রতিটি শান্তিকামী রাষ্ট্রকে, ইসরায়েলের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক বজায় রাখাকে তোয়াক্কা না করে, অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবকে সমর্থন করা উচিত৷ এ গণহত্যাকে কোনোমতেই মেনে নেওয়া যায় না৷''

-মতামত পাঠানোর জন্য ধন্যবাদ দুজনকেই৷ সবাই ভালো থাকবেন আর আমাদের সাথে থাকবেন, কেমন?

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন