1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ঈদের আগে ইসলাম ধর্ম নিয়ে বিতর্ক বিশ্বে

ইসলাম ধর্মকে ঘিরে একাধিক ঘটনা গোটা বিশ্বে প্রবল বিতর্কের সৃষ্টি করেছে সম্প্রতি৷ যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় কোরআন পোড়ানোর হুমকির পর, এবার ইরানে শরিয়া আইন অনুযায়ী পাথর ছুঁড়ে এক নারীকে হত্যার ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে৷

default

সাকিনে মহম্মদি আশতিয়ানি

ইরানের নারী সাকিনে'কে পাথর ছুঁড়ে হত্যার রায়কে ঘিরে বিতর্ক

ইরানের এক আদালত ব্যাভিচারের অভিযোগে সাকিনে মহম্মদি আশতিয়ানি'র বিরুদ্ধে অত্যন্ত নিষ্ঠুর উপায়ে মৃত্যুদণ্ডের রায় শুনিয়েছিল৷ ২০০৬ সালে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক ও পরে তাঁর স্বামীর হত্যার জন্য তাঁকে দায়ী করা হয়েছে৷ পাথর ছুঁড়ে মারার এই বিধানের ফলে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে গোটা বিশ্বে প্রবল প্রতিবাদের ঝড় ওঠে৷ ইরানের সংবাদ মাধ্যমের সূত্র অনুযায়ী পাথর ছুঁড়ে মারার বদলে সাকিনে'কে ফাঁসি দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছিল৷ আজ ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রামিন মেহমানপারাস্ত জানিয়েছেন,

Rom Proteste Sakineh Mohammadi Ashtiani

সাকিনে’কে পাথর ছুঁড়ে মারার বিধানের ফলে বিশ্বে প্রবল প্রতিবাদের ঝড় ওঠে

এই রায় স্থগিত রাখা হয়েছে এবং হত্যার অভিযোগের বিষয়টি নতুন করে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে৷ আন্তর্জাতিক স্তরে এই রায়কে ঘিরে প্রবল বিতর্কের জন্য মেহমানপারাস্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেন৷

আন্তর্জাতিক স্তরে ইরানের আদালতের এই রায়কে ঘিরে প্রতিক্রিয়া

ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জোসে মানুয়েল বারোসো গতকাল এই রায়কে ‘বর্বরোচিত' হিসেবে বর্ণনা করেছিলেন৷ আজ ইউরোপীয় পার্লামেন্টও প্রায় ঐক্যবদ্ধভাবে ইরানের আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়েছে৷ এদিকে ব্রিটেনের ‘টাইমস' সংবাদপত্রে হিজাব ছাড়াই সাকিনে'র এক ছবি প্রকাশিত হওয়ায় তাঁকে ৯৯ বার বেত মারা হয়েছে বলে দাবি করেছেন সাকিনে'র ছেলে সাজ্জাদ৷

Catherine Ashton

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন

নাইন-ইলেভেন উপলক্ষ্যে কোরআন পোড়ানোর পরিকল্পনা

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিন্টন ফ্লোরিডার গির্জায় কোরআন পোড়ানোর পরিকল্পনার তীব্র নিন্দা করেছেন৷ এর আগে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছিলেন, এই পরিকল্পনা অ্যামেরিকার মূল্যবোধের বিরোধী৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটনও এই পরিকল্পনার নিন্দা করেছেন৷ জার্মানির কেন্দ্রীয় ইহুদি সংগঠনও ফ্লোরিডার ঐ সংগঠনের সমালোচনায় সোচ্চার হয়েছে৷ নাৎসি জমানায় হিটলারের প্রশাসন যেভাবে প্রথমে বই পুড়িয়ে তারপর ইহুদি নিধন যজ্ঞ শুরু করেছিল, এই ঘটনা সেই ভয়াবহ ইতিহাসকে মনে করিয়ে দেয়, বলেছেন সংগঠনের প্রধান শার্লটে ক্নোবলখ৷ অনেক মার্কিন ধর্মীয় নেতাও মুসলিম বিরোধী এই মনোভাবের সমালোচনা করেছেন৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন