1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইয়েমেন থেকে কূটনীতিক সরিয়ে নিচ্ছে অ্যামেরিকা

বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইয়েমেন থেকে তারা তাদের কর্মীদের সরিয়ে নিচ্ছে৷ যতদ্রুত সম্ভব তারা যেন ইয়েমেন ত্যাগ করে –এমন নির্দেশ দেয়া হয়েছে৷ বিশেষ করে যারা সেখানে সপরিবারে বসবাস করছে৷

default

বিক্ষোভকারীদের আন্দোলন জোরদার হচ্ছে

ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আলি আবদুল্লাহ সালেহ'র পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলেনকারীরা সরব৷ সরকারের নিরাপত্তা রক্ষীদের সঙ্গে উপজাতিদের সংঘর্ষের পর বিমানবন্দর বন্ধ রাখার ওপর জোর দেয়া হয় এবং এক পর্যায়ে উপজাতিরা জোর করে বিমানবন্দর বন্ধ করে দেয়৷ প্রসঙ্গত, রাজধানী সানার মূল বিমানবন্দরই ব্যবহার করে আসছিল বিভিন্ন দূতাবাস এবং পর্যটকরা৷

Proteste gegen die Regierung im Jemen

তরুণ প্রজন্ম সালেহ-কে চায় না

এছাড়া, কোন অ্যামেরিকান যেন এই মুহূর্তে ইয়েমেনে ভ্রমণ না করে, তাও জানানো হয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে৷ দূতাবাস ছাড়াও যেসব মার্কিন সংস্থা এবং এনজিও'র কর্মীরা ইয়েমেনে রয়েছে, তাদের দ্রুত ইয়েমেন ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে৷ ইয়েমেনে বেশ কিছু মার্কিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে এবং সেখানে সপরিবারে বসবাস করছে বহু অ্যামেরিকান৷ তাই বিমানবন্দর পুরোপুরি বন্ধ হওয়ার আগেই, যেভাবে সম্ভব, ইয়েমেন ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷ অ্যামেরিকানদের ওপর হামলা বা আক্রমণ চালানো হতে পারে - এমন আশঙ্কা করছে যুক্তরাষ্ট্র৷

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আলি আবদুল্লাহ আল-সালেহ'কে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য বলেছেন৷ উল্লেখ্য, সরকারের নিরাপত্তা কর্মীদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন উপজাতি দলের সংঘর্ষ ক্রমেই বাড়ছে৷ এসব উপজাতিদের সঙ্গে আল-কায়েদা যোগ দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছে পশ্চিমা বিশ্ব৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ