1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইস্তানবুলে ন্যাটোর আলোচনায় আফগানিস্তান ও বাজেট

ইস্তানবুলে ন্যাটোর বৈঠকে আফগানিস্তানে আরও সেনা ও পুলিশ প্রশিক্ষক পাঠানো নিয়ে চাপের মুখে পড়েছেন সামরিক জোটটির ইউরোপীয় সদস্যরা৷

default

ফাইল ফটো

ওদিকে, ন্যাটোর বাজেট ঘাটতি দূর করতে সদস্য দেশগুলো এ বছর জোটের তহবিলে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউরো দেওয়ার পরিকল্পনা করছে বলে জানা গেছে৷

তুরস্কের ইস্তানবুল শহরে ন্যাটোর দুইদিনব্যাপী প্রতিরক্ষা মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে শুক্রবার আফগান যুদ্ধে সহায়তার প্রতিশ্রুতি পূরণে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো মহাসচিব আন্ডার্স ফঘ রাসমুসেন চাপ দেন ইউরোপীয় সদস্য দেশগুলোকে৷

আফগানিস্তানে সেনাবাহিনী ও পুলিশকে প্রশিক্ষণ দিতে আরও বেশি করে প্রশিক্ষক পাঠানোর জন্য সদস্য দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে কর্মকর্তারা বলেন, আফগান বাহিনীর সক্ষমতার ওপরই নির্ভর করছে সেখান থেকে কতো দ্রুত বেরিয়ে আসতে পারবে ন্যাটো নেতৃত্বাধীন ‘ইন্টারন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাসিস্ট্যান্স ফোর্স' (আইএসএএফ)৷

আট বছর ধরে চলতে থাকা আফগান যুদ্ধ অবসানের নতুন কৌশল অনুসারে সম্প্রতি আরও প্রায় ৪০ হাজার সেনা মোতায়েনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে ‘আইএসএএফ' বাহিনীর৷ কিন্তু, গত বছর কঠিন একটি সময় পার হলেও এখন সেখানে নিরাপত্তা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে জানিয়ে ন্যাটো মহাসচিব রাসমুসেন বলেন, ‘‘আমাদের আরও অনেক বেশি দরকার হবে৷ অনেক বেশি৷''

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রবার্ট গেটস বলেছেন, ‘‘আরও প্রশিক্ষক দরকার এবং তা দরকার অতি দ্রুত৷ আফগানিস্তানের সেনাবাহিনী ও পুলিশের জন্য হাজারো প্রশিক্ষকের দীর্ঘদিনের চাহিদা মেটাতে জোট সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছি আমি৷''

ন্যাটো নেতারা চাইছেন আফগানিস্তানের সেনাবাহিনীর আকার ২০১০ সালের অক্টোবরের মধ্যে ১,৩৪,০০০ এবং ২০১১ সালের অক্টোবরের মধ্যে তা ১,৭১,৬০০ জনে উন্নীত করতে৷ একইসময়ে পুলিশ বাহিনীর সদস্য সংখ্যা বর্তমান ৮০,০০০ থেকে বাড়িয়ে যথাক্রমে ১,০৯,০০০ এবং ১,৩৪,০০০ জনে উন্নীত করতে৷

ওদিকে, ন্যাটোর তহবিল সংকট দূর করার বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করে ইতালির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইগনাসিও লা রুসা জানিয়েছেন, ২০১০ সালের বাজেট ঘাটতি দূর করতে সদস্য দেশগুলো এ বছর জোটের তহবিলে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউরো দেওয়ার পরিকল্পনা করছে৷ শুক্রবার দুই দিনের এই বৈঠকের শেষদিনে কর্মকর্তারা জানিয়েছ, মূলত আফগানিস্তানে সেনাদের জন্য অবকাঠামো তৈরির জন্য অনুমানের চেয়ে অনেক বেশি অর্থ খরচ হওয়ায় প্রায় ৯০০ মিলিয়ন ইউরো বাজেট ঘাটতিতে পড়েছেন তারা৷

প্রতিবেদক : মুনীর উদ্দিন আহমেদ

সম্পাদনা : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়