1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইসলামি পণ্ডিতদের কথা কি শুনবে ইসলামি বিশ্ব?

ক’দিন আগে দারুণ এক কাজ করলেন কয়েকজন ইসলামি পণ্ডিত ও পরিবেশবাদী৷ তাঁরা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কাজ করতে মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন৷

তাঁরা বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কাজ করাটা নাকি প্রত্যেক মুসলমানের ধর্মীয় দায়িত্বের মধ্যে পড়ে৷ সেজন্য জলবায়ু পরিবর্তনে প্রভাব ফেলে এমন জীবনযাপনে পরিবর্তন আনতে, অভ্যাস পাল্টাতে ও মানসিকতায় পরিবর্তন আনতে বিশ্বের ১৬০ কোটি মুসলমানের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন ঐ ইসলামি পণ্ডিতরা৷

শুধু একক ব্যক্তি নয়, দেশ হিসেবে তেল উৎপাদনকারী মুসলিম দেশগুলোকেও এক্ষেত্রে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়েছে৷ বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় তেল উৎপাদনকারী দেশ সৌদি আরবও এই অনুরোধের মধ্যে পড়ছে৷ তাহলে কি সৌদি আরব এই অনুরোধ রক্ষায় কাজ শুরু করবে?

DW Bengali Mohammad Zahidul Haque

জাহিদুল হক, ডয়চে ভেলে

নাকি মুষ্টিমেয় কয়েকজন ইসলামি পণ্ডিত কি বললো, না বললো তাতে কিছু যায় আসে না – এমন মনোভাব দেখাবে? আমি নিশ্চিত, দ্বিতীয় কাজটিই করবে সৌদি আরব৷ কারণ এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে অর্থনীতি৷ তাছাড়া কোরআন কিংবা হাদিসেতো আর জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে সরাসরি কোনো কথা বলা নেই৷ তাহলে কেন শুধু শুধু কয়েকজন পণ্ডিতের কথা শুনে আর্থিকভাবে ক্ষতির শিকার হতে যাবে সৌদি আরব?

এভাবে চিন্তা করলে হয়ত মনে হবে সৌদি আরবের সিদ্ধান্তই ঠিক৷ কিন্তু সরাসরি না হলেও কুরআনে কিন্তু প্রকৃতিকে রক্ষার কথা বলা হয়েছে৷ যেমন সূরা আর রহমান-এর একটি আয়াত বলছে, ‘‘মানুষের ব্যবহারের জন্যই পৃথিবীর সবকিছু সৃষ্টি করা হয়েছে, তবে সেটা করতে হবে সতর্ক হয়ে৷'' আর সূরা আল বাক্বারাহ-য় বলা আছে, ‘‘তোমরা পৃথিবীর অনিষ্ট করো না৷''

কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনে ভূমিকা রাখা মানে পৃথিবীকে একরকম অনিষ্টর দিকেই ঠেলে দেয়া৷ তাই আজ হোক, কাল হোক মুসলিম বিশ্বকে এই বিষয়টি অনুধাবন করতে হবে এবং সে অনুযায়ী কাজ করতে হবে৷ সেটা যত তাড়াতাড়ি হবে পৃথিবীর জন্য ততই মঙ্গল৷ মুষ্টিমেয় কয়েকজন ইসলামি পণ্ডিতের আহ্বান যদি মুসলমানদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়া যায় তাহলে কাজটা দ্রুততর হবে৷ এক্ষেত্রে ইমামদের অনেক বড় দায়িত্ব নিতে হবে৷ তাঁরা যদি খুতবার সময় এই বিষয়টি বারবার উল্লেখ করেন তাহলে সাধারণ মুসল্লিদের মধ্যে তার একটা প্রভাব পড়তে বাধ্য৷

তাই মুসলিম বিশ্বের নীতিনির্ধারকদের প্রথম কাজ হবে ঐ ইসলামি পণ্ডিতদের আহ্বান সব মুসলমানদের জানানোর উদ্যোগ নেয়া৷ এছাড়া ইমামদেরকে এ বিষয়ে পর্যাপ্ত তথ্য দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে যেন তাঁরা খুতবায় সেগুলো উপস্থাপন করতে পারেন৷

এভাবে ব্যক্তি পর্যায়ে মুসলমানদের মধ্যে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে পারলে ভবিষ্যতে তাঁরাই তাঁদের সরকারের উপর এ বিষয়ে ভূমিকা রাখতে চাপ দিতে পারবে৷

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, ইসলামি বিশ্ব কি এই উদ্যোগ নেবে?

নির্বাচিত প্রতিবেদন