1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইসরায়েল থেকে দেশে ফিরলেন তুর্কী হিরোরা

গাজা অভিমুখী ত্রাণবাহী জাহাজে থাকা তুর্কী কর্মীদের বৃহস্পতিবার দেশে ফিরিয়ে এনেছে তুরস্কের একটি বিমান৷ এই হিরোদের দেশে স্বাগত জানায় কয়েকশ তুর্কী৷ চলতি সপ্তাহের প্রথম দিকে জাহাজটিতে ইসরায়েলি কমান্ডোরা হামলা চালায়৷

default

তুরস্কের বিমান বন্দরে ইসরায়েল থেকে ছাড়া পাওয়া কয়েকশ তুর্কী কর্মী

জাহাজে থাকা প্রায় ৪'শ৬০ জন তুর্কী নাগরিককে তুরস্কে ফিরিয়ে আনা হয়েছে৷ নিহত ৯ জনের মৃতদেহও বিমানে করে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে৷ দেশে ফিরে আসা তুর্কীদের শুভেচ্ছা জানান তুরস্কের উপ-প্রধানমন্ত্রী বুলেন্ট আরিন্ক এবং অন্যান্য কর্মকর্তারা৷ উপ-প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত আমাদের কূটনীতি সফল হয়েছে৷ তিনি বলেন, আইন অনুযায়ী নিহতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ইসরায়েল৷ হামলায় ৯ জনের নিহত হবার কথা জানিয়েছে ইসরায়েল৷

বৃহস্পতিবারই নিহতদের শেষকৃত্য শুরু হয়েছে তুরস্কে৷ শোকাহত ইস্তাম্বুলবাসীরা নিহতদের কফিন বহন করে৷ তুরস্ক এবং ফিলিস্তিনের পতাকা দিয়ে নিহতদের কফিন ঢাকা ছিল৷ ৮ জনের শেষকৃত্য বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়, বাকি একজনের শেষকৃত্য হবে শুক্রবার৷

বুধবার মধ্যরাতের পরে ইস্তাম্বুলের কেন্দ্রস্থলের তাকসিম স্কোয়ারে ফিরে আসা তুর্কী কর্মীদের নিয়ে এক বিশাল মিছিল বের করা হয়৷ কয়েক হাজার মানুষ এই মিছিলে যোগ দেয়৷ অনেকেই ফিলিস্তিনি এবং তুর্কী পতাকা নাড়তে থাকে এই সময়৷ 'ইনসান ইয়ারদিন ভাকফি' নামের একটি তুর্কী ইসলামি ত্রাণ সংস্থা এই মিছিলের আয়োজন করে৷ গাজার ত্রাণবাহী জাহাজের প্রধান ব্যয়ভার যারা বহন করেছিল তাদের মধ্যে এই সংস্থাটি অন্যতম৷

Türkei Empfang von Gaza Aktivisten

মধ্যরাতের পরে ইস্তাম্বুলে বিশাল মিছিল

এদিকে অবরুদ্ধ গাজা অভিমুখী জাহাজে থাকা জার্মান নাগরিকদের মধ্যে, দু'জন আইন প্রণেতাসহ পাঁচজন জার্মান নাগরিক , জার্মানির রাজধানী বার্লিনে ফিরে এসেছেন বলে, জার্মান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে৷ বাকি ৬ জনের ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি৷ জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিডো ভেস্টারভেলে বলেছেন, মুক্তি পাওয়া পাঁচ জন আহত হয়েছিলেন তবে এখন সুস্থ রয়েছেন৷ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভেস্টারভেলে বলেন, আশা করা হচ্ছে, ইসরায়েলে থাকা জার্মান কূটনীতিকদের সঙ্গে বাকি ছয়জন জার্মান নাগরিকের দেখা করার অনুমতি দেবে ইসরায়েল৷

ওদিকে মানবিক সাহায্য বহনকারী গাজা অভিমুখী জাহাজে ইসরায়েলি হামলার পর বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় ওঠা সত্ত্বেও, ইসরায়েল গাজায় অবরোধ অব্যাহত রাখার প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেছে৷ ঘটনাটি নিয়ে আন্তর্জাতিক তদন্ত কমিশন গঠনের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে ইসরায়েল৷ এদিকে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন গাজার ওপর থেকে অবরোধ তুলে নেয়ার জন্যে আবারও ইসরায়েলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন৷

প্রতিবেদন : ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা : দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়