1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইসরায়েলের বিরুদ্ধে নীরব, ‘অশোভন' প্রতিবাদ

আইওসি বলছে, ইসলাম এল শিহাবি যা করেছেন তা অলিম্পিকে বেমানান, অশোভন৷ তাই তাঁকে ব্রাজিল থেকে নিজের দেশ মিশরে পাঠানো হয়েছে৷ শিহাবির অপরাধ – তিনি ইসরায়েলি জুডোকার সঙ্গে হাত মেলাননি৷

রিও অলিম্পিক গেমসের অন্যতম সাড়া জাগানো ঘটনা এটি৷ জুডোয় প্রথম রাউন্ডেই ইসরায়েলের অর স্যাসনের কাছে হেরে যান মিশরের ইসলাম এল শিহাবি৷ জুডোর নিয়ম হচ্ছে, প্রতিযোগিতা শেষ হলে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ‘বো' করে, অর্থাৎ মাথা একটু নিচু করে পরস্পরকে সম্মান জানিয়ে হাত মেলাবেন৷ কিন্তু বিজয়ী অর স্যাসন সেই নিয়ম মেনে হাত মেলাতে গেলেও ইসলাম এল শিহাবি হাত না মিলিয়ে দূরে সরে যান৷

ধারণা করা হচ্ছে, ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের দীর্ঘ দিনের আগ্রাসী ভূমিকার প্রতিবাদেই হাত মেলাননি ইসলাম এল শিহাবি৷ তবে স্বাভাবিক অবস্থায় অন্য কোথাও এমন নীরব প্রতিবাদ অনেক ক্ষেত্রে প্রশংসা কুড়ালেও ব্রাজিলে শিহাবি প্রশংসিত হননি৷ বরং আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) এক বিবৃতিতে ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেছে, ‘‘অলিম্পিক কমিটি সব খেলোয়াড়ের প্রতি সম্মান দেখায়৷ কিন্তু কারো সঙ্গে হাত না মেলানো অলিম্পিকের নীতি, আদর্শ ও মূল্যবোধের পরিপন্থি৷''

আইওসির নিন্দার পর মিশরের অলিম্পিক কমিটি গেমস শেষ হওয়ার আগেই ইসলাম এল শিহাবিকে দেশে ফেরত পাঠায়৷ সোমবার ব্রাজিল থেকে মিশরে ফিরেছেন শিহাবি৷

তবে শিহাবি দেশে ফিরলেও ঘটনার রেশ এখনো চলছে৷ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে শিহাবির নীরব প্রতিবাদকে সমর্থন জানাচ্ছেন অনেকে৷ অনেকে আবার খেলোয়াড়সুলভ আচরণ এবং অলিম্পিকের মূল্যবোধের তোয়াক্কা না করায় শিহাবির সমালোচনা করছেন৷ তাঁদের মতে, শিহাবি অশোভন ও অখেলোয়াড়সুলভ আচরণ করেছেন অলিম্পিকের মতো আসরে যা একেবারেই সমর্থনযোগ্য নয়৷

ওদিকে ইসরায়েলে এখন মহানুভব এক বীরের মর্যাদা পাচ্ছেন অর স্যাসন৷ মিশরের জুডোকাকে হারানোর পর জুডোয় পদকও জিতেছেন তিনি৷ শিহাবির প্রতি খেলোয়াড়সুলভ, ভদ্র আচরণ এবং পদক জয়ের জন্য ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়ানহু ফোন করে স্যাসনকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়েছেন৷ এক ক্রীড়াবিদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর কথোপকথন সরাসরি দেখানো হয়েছে টেলিভিশনে৷

এসিবি/এসবি