1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

ইলেক্ট্রিক কার ই-গল্ফের বিষয়-আশয়

জার্মানির ফল্কসভাগেন কোম্পানির সফলতম গাড়ির মডেলটির নাম ‘গল্ফ’৷ এবার ফল্কসভাগেন বাজারে এনেছে ই-গল্ফ বা ইলেকট্রিক গল্ফ৷ মুশকিল সেই এক: গাড়ির রেঞ্জ কম ও ব্যাটারি চার্জ করার সময় বেশি৷

default

ফল্কসভাগেনের প্রথম ইলেক্ট্রিক কার ই-গল্ফ

নামি-দামি ডিস্ক জকি, একজন হলিউড স্টার আর এক বিশ্ববিখ্যাত পিয়ানোবাদক৷ এই সব মিলিয়ে মনোরম সন্ধ্যাটির আয়োজন করা হয়েছিল, কিন্তু শুধু একটি নতুন মডেলের গাড়ির মহরত উপলক্ষ্যে: ফল্কসভাগেন কোম্পানির নয়া ই-গল্ফ, তাদের প্রথম ইলেক্ট্রিক কার

ব্যাটারি-চালিত গাড়ি৷ দাম হলো ৩৫ হাজার ইউরো৷ কিনবেটা কে? কেউ বলেন: ‘‘আপাতত ও দামে পোষাবে না, তা আমি সে গাড়িতে যত কিলোমিটারই চালাই না কেন৷ বর্তমানে আমার ও গাড়িতে বিশেষ আগ্রহ নেই৷''

আরেকজনের বক্তব্য: ‘‘যদি ইনস্টলমেন্টে কেনার ভালো সুযোগ থাকে, তাহলে কেনার কথা ভেবে দেখতে পারি৷ যদিও সেই সঙ্গে রয়েছে ব্যাটারির প্রশ্ন৷''

ই-গল্ফের বিক্রি শুরু হলো বটে, তবে বাজারে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে আরো অনেক সময় লাগবে৷ উভে শেফার বার্লিন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ড্রাইভ টেকনোলজির অধ্যাপক৷ তাঁর মতে, ইলেকট্রিক গাড়ির জনপ্রিয় হবার পথে প্রথম বাধা হলো লিথিয়ামের দাম, যে বস্তুটি গাড়ির ব্যাটারি তৈরিতে কাজে লাগে৷ তার কারণ:

‘‘যে সব খনি থেকে বর্তমানে লিথিয়াম বার করা হয়, সেগুলো ধীরে ধীরে ভবিষ্যৎ চাহিদা পূরণ করতে শিখছে৷ সমস্যাটা অনেকটা মুরগি আর ডিমের মতো, কোনটা আগে আর কোনটা পরে৷ বাজার বাড়তে থাকলে এমনিতেই এ সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে৷ ইলেকট্রিক গাড়ির বিক্রি যত বাড়বে, লিথিয়ামের উৎপাদনও সেই অনুপাতে বাড়বে৷''

দ্বিতীয় বিপত্তি: সময়৷ গাড়িতে পেট্রোল ভরতে মাত্র কয়েক মিনিট সময় লাগে৷ ই-গল্ফের ব্যাটারি চার্জ করতে ১৩ ঘণ্টা অবধি সময় লাগতে পারে – কম করে হলেও আধঘণ্টা৷ ফল্কসভাগেনের আরঅ্যান্ডডি প্রধান হাইনৎস ইয়াকব নয়সার এক্ষেত্রেও প্রগতি ঘটবে বলে আশা করেন: ‘‘আমরা ইতিমধ্যেই দ্বিগুণ চার্জ ঢোকানোর কথা ভাবছি, অর্থাৎ নতুন করে চার্জ করার সময়টা যত কম করা যায়৷

সেই সঙ্গে আমরা ব্যাটারির শক্তি বাড়াব, যাতে বার বার চার্জ করতে না হয়৷'' প্রফেসর উভে শেফার বলেন: ‘‘ব্যাটারি চার্জ করতে কতোটা সময় লাগে, সে ব্যাপারে আগামী পাঁচ থেকে দশ বছরের মধ্যে কোনো লক্ষণীয় প্রগতি অর্জিত হবে বলে আমি মনে করি না৷''

তিন নম্বর বাধা: গাড়ির রেঞ্জ বা পরিধি৷ ই-গল্ফ একবার ব্যাটারি চার্জ করে বড়জোর ১৯০ কিলোমিটার যেতে পারে৷ ফল্কসভাগেন গ্রাহকদের একাংশ তাতেই খুশি: ‘‘এটা প্ল্যানিং-এর ব্যাপার, সেই সঙ্গে সচেতনতার৷ যখন আমি জানি, কাল অনেক গাড়ি চালাব, কাজেই ব্যাটারি চার্জ করে রাখতে হবে – তখন আমি সেটা করেও থাকি৷ যেমন পেট্রোলের গাড়িতে তেল নেই জানা থাকলে পেট্রোল পাম্পে গিয়ে তেল ভরতে হয়৷''

ই-গল্ফের অ্যাক্সিলারেশন পেট্রোলের গল্ফের চেয়ে বেশি৷ এছাড়া ই-গল্ফে ইঞ্জিনের আওয়াজ কম৷ নয়ত বিশেষ কোনো ফারাক নেই৷ কিন্তু ই-গল্ফের দাম ৩৫ হাজার ইউরো, যা কিনা পেট্রোল-চালিত গল্ফের বুনিয়াদি মডেলটির প্রায় দ্বিগুণ৷ অর্থাৎ এই বাড়তি দাম উশুল করতে ই-গল্ফ গাড়িটিকে অন্তত পাঁচ লাখ কিলোমিটার চলতে হবে৷

জার্মানিতে আজ প্রতি পাঁচ হাজার গাড়ির মধ্যে মাত্র একটি গাড়ি ব্যাটারি-চালিত৷ দৃশ্যত পেট্রোল-ডিজেলের দাম আরো না বাড়লে ইলেকট্রিক গাড়ির বিক্রি বাড়ার উপায় নেই৷

বিশেষ ঘোষণা: এই সপ্তাহের অন্বেষণ কুইজে অংশ নিতে ক্লিক করুন এখানে

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়