1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

ইলেকট্রিক কার-এর দিন আসছে

ভবিষ্যতের গাড়িচালকরা ক্রমেই আরো বেশি করে ইলেকট্রিক কারের দিকে ঝুঁকবেন৷ তবে সেটা নিছক ইলেকট্রিক কার হবে, না হাইব্রিড হবে, তা এখনো নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়৷

ভিডিও দেখুন 02:37

ইলেকট্রিক গাড়ি কি চাহিদা মেটাতে পারছে?

‘ইলেকট্রিক কার' বলতে খেলনা মনে করবেন না৷ ব্যাটারিতে চলে এমন গাড়ির সর্বোচ্চ শক্তি আজ ৭৫১ হর্স পাওয়ার! সবচেয়ে বেশি দাম মার্সিডিজ ইলেকট্রা এসএলএস এএমজি-র; মূল্য: চার লাখ বিশ হাজার ইউরো৷ কাজেই তা যে খুব বিক্রি হবে, এমন নয়৷ সে ক্ষেত্রে শহরে মানায় ‘স্মার্ট' ইলেকট্রিক গাড়িটিকে৷ তার দামও পঁচিশ হাজার ইউরো, অর্থাৎ পেট্রোলে চলা মডেলটির চেয়ে অনেক বেশি৷ ২০১৪ সাল শেষ হবার আগে জার্মান গাড়ি নির্মাতাদের তৈরি মোট ১৬টি নতুন মডেলের ইলেকট্রিক কার বাজারে আসবে৷

মার্সিডিজ বেনৎস কোম্পানির পরিচালকমণ্ডলীর সদস্য টোমাস ভেবার বলেন, ‘‘আমরা নির্মাতারা পুরোদমে কাজ করছি এবং ফ্রাংকফুর্ট প্রদর্শনী থেকে আবার একটি জোরালো সংকেত এসেছে বলে আমার ধারণা৷ গোড়ায় উচ্ছ্বাস, মাঝে সন্দেহ, পরে আবার আস্থা৷ এ ধরনের সব গাড়ি দিয়ে ভবিষ্যতে ‘ইলেক্ট্রোমোবিলিটি'র' সম্ভাবনা উজ্জ্বল হবে৷''

বিএমডাব্লিউ-রও একই মনোভাব৷ বাভারিয়ার এই অভিজাত মোটর নির্মাতা প্রচুর অর্থ ব্যয় করে ব্যাটারি-চালিত গাড়ির একটি সম্পূর্ণ নতুন সিরিজ বের করছে৷ আই-থ্রি মডেলটি দিয়ে শুরু৷ ড্রাইভারের কেবিনটি পুরোপুরি কার্বন দিয়ে তৈরি৷ তা হালকা হলেও, অন্যদিকে ব্যাটারির ওজন আছে৷ সিটি কার-টির দাম পড়বে পঁয়ত্রিশ হাজার ইউরো৷ গ্রাহকরা নাকি এ ধরনের গাড়িই চান, বলছে বিএমডাব্লিউ৷

বিএমডাব্লিউ কোম্পানির সিইও নরবার্ট রাইটহোফার বলেন, ‘‘আমরা তথাকথিত ‘মিনি-ই' মডেলটি নিয়ে নানা ধরনের পরীক্ষা করে দেখেছি: বড় বড় শহরগুলোতে আই-থ্রি দিনে চলে প্রায় ৬৪ কিলোমিটার৷ আমরা ভাবলাম, সেটা তো খুব ভালো কথা৷ আমাদের গাড়ির রেঞ্জ দেড়শো কিলোমিটারের বেশি হলেই ভালোভাবে কাজ চলে যাবে৷''

তবে সব জার্মান গাড়ি নির্মাতা একরকম ভাবছেন না৷ আউডি এখনও নিছক ইলেকট্রিক কারের দিকে যেতে রাজি নয়৷ তার বদলে আউডি হাইব্রিডের উপরে নির্ভর করছে৷ প্রয়োজনে ব্যাটারির বদলে পেট্রোলে চলে৷

আউডি-র সিইও রুপার্ট স্টাটলার বললেন: ‘‘এ-থ্রি ই-ট্রন মডেলটিতে আমরা দু'দিকেরই সেরা বৈশিষ্ট্যগুলো রেখেছি বলে আমাদের ধারণা: শহরে ইলেকট্রিক কার নিয়ে কার্বন-মুক্ত গাড়ি চালানো, ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত; অন্যদিকে কমবাসচন মোটর দিয়ে যতোদূর ইচ্ছে গাড়ি চালাও৷ গ্রাহকরা আমাদের বারবার সে ধরনেরই ফিডব্যাক দিয়েছেন৷ যিনি আউডি কেনেন, তিনি চান গাড়ির যেন দু'টি হার্ট থাকে৷''

প্রিয় পাঠক, আপনি কি ইলেকট্রিক গাড়ি চালাতে আগ্রহী?মতামত জানাতে ক্লিক করুন এখানে৷ আর টুইটারে মতামত জানাতে ব্যবহার করুন#Onneshon হ্যাশট্যাগ৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়