1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ইরানে ফেসবুক, টুইটার ব্যবহার করা ‘পাপ'?

ইরানের প্রভাবশালী ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ লুৎফুল্লাহ সাফি-গোলপায়েগানি বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগের নেটওয়ার্কে যোগ দেয়া ‘পাপ' এবং ‘আন-ইসলামিক'৷ তবে দেশের আইন অনুযায়ী এসব নেটওয়ার্কের সদস্য হওয়া অবৈধ নয়৷

ইরানের প্রভাবশালী ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ লুৎফুল্লাহ সাফি-গোলপায়েগানি বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগের নেটওয়ার্কে যোগ দেয়া ‘পাপ' এবং ‘আন-ইসলামিক'৷ তবে দেশের আইন অনুযায়ী এসব নেটওয়ার্কের সদস্য হওয়া অবৈধ নয়৷

তবে একটা বিষয়ে দ্বিধা রয়েছে৷ সেটা হচ্ছে, সামাজিক নেটওয়ার্কে যোগ দেয়াটা অবৈধ না হলেও ভিপিএন তথা ‘ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক'এ প্রবেশ করাটা অবৈধ৷ আর ফেসবুক, টুইটারে ঢুকতে হলে ইরানিদের এই ভিপিএন ব্যবস্থায় প্রবেশ করা ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই৷

Stichwort: Hassan Rouhani, Iran, Präsident Beschreibung: Hassan Rouhani, der 7. Präsident vom Iran. Quelle: Irna/Lizenz: Frei

নতুন বছর উপলক্ষ্যে ইহুদিদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন,এই রকম বার্তা এসেছে প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির নামে থাকা একটি টুইটার অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে

তাহলে বিষয়টা কি দাঁড়াচ্ছে? ইরানে যে বর্তমানে দুই কোটি ফেসবুক আর টুইটার ব্যবহারকারী রয়েছে তারা কি আইনবিরোধী কাজ করছে? এসব ব্যবহারকারীর মধ্যে রয়েছেন নতুন সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নেতারাও৷ পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ সম্প্রতি তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টের (https://twitter.com/JZarif) মাধ্যমে ইহুদি নতুন বছর উপলক্ষ্যে ইহুদিদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন৷ একই রকম বার্তা এসেছে প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির নামে থাকা একটি অ্যাকাউন্ট থেকে৷ যদিও সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে প্রেসিডেন্টের কোনো টুইটার অ্যাকাউন্ট নেই৷ কিন্তু পররাষ্ট্রমন্ত্রী তাঁর টুইটার ব্যবহারের কথা নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছে কয়েকটি সংবাদ মাধ্যম৷

এদিকে বার্তা সংস্থা ডিপিএ ইরানের বার্তা সংস্থা ‘ফারস' এর বরাত দিয়ে শনিবার জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফেসবুক ও টুইটার ব্যবহার নিয়ে তদন্ত হতে পারে৷ আইন বিষয়ক ইরানের ভাইস প্রেসিডেন্ট এলহাম আমিনজাদেহকে এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বলে গেছে৷

উল্লেখ্য, ইরানে প্রায় ৫০ লক্ষ ইন্টারনেট পেজ ব্লক করে দেয়া হয়েছে৷ সরকার মনে করে, সামাজিক নেটওয়ার্কগুলো হচ্ছে মুসলিম দেশগুলোতে নিয়োগ করা ‘মহা শয়তান' যুক্তরাষ্ট্রের ‘সবচেয়ে বিপজ্জনক ও ভয়ংকর গোয়েন্দা অস্ত্র'৷

জেডএইচ / এসবি (ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়