1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইরানের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ইতিবাচক সুর

প্রথমবারের মতো ইরানকে কোনো বিষয়ে স্বাগত জানালো যুক্তরাষ্ট্র৷ ইসলামিক স্টেট বা আইএস-এর বিরুদ্ধে ইরানের সামরিক অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে একে ইতিবাচক হিসেবে উল্লেখ করেছেন মার্কিন পরররষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি৷

বুধবার ব্রাসেলসের নেটো সদরদপ্তরে ‘কোয়ালিশন' বা যৌথ বাহিনীর কর্মকর্তাদের এক বৈঠকে জন কেরি বলেন, পেন্টাগন যে খবর দিয়েছে তাকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন তিনি৷ কেরি বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ যদি জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস-এর বিরুদ্ধে হামলা চালায়, তবে তা ইরাক ও সিরিয়ায় জিহাদিদের কর্মকাণ্ডকে অনেকটাই প্রতিরোধ করবে৷ তবে তাদের পুরোপুরি প্রতিরোধ করতে আরো অনেক বছর লাগবে বলে জানান তিনি৷ ইরানের এই হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের কোনো সহযোগিতা ছিল না বলে দাবি করেছেন কেরি৷ তবে যে কোনো ধরনের হুমকি মোকাবেলায় ইরানের শিয়াদের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের একটি বোঝাপড়া আছে বলে স্বীকার করেছেন৷ এরপরও ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারটিতে মোটেও নরম হয়নি যুক্তরাষ্ট্র৷ খুব শিগগিরই মার্কিন সেনেটে ইরানের পরমাণু কর্মসূচি বন্ধে দেশটির উপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে কিনা – এ বিষয়ে ভোটাভুটি হবে৷

এদিকে, লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলে জিহাদিরা প্রশিক্ষণ চালাচ্ছে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা জেনারেল ডেভিড রডরিগেজ৷ ব্রাসেলসে অংশ নিয়েছিলেন ৬০টি দেশের প্রতিনিধি৷

এক হাজার বিমান হামলা

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলেছেন, ইরাক এবং সিরিয়ায় এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে চালানো প্রায় ১ হাজার বিমান হামলায় ইসলামিক স্টেটের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়ে দলটি দুর্বল হয়ে পড়েছে৷ তবে আইএস-এর বিরুদ্ধে এখনো বছরের পর বছর লড়াই চালিয়ে যেতে হতে পারে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি৷

কেরি বলেন, ‘‘আমাদের প্রতিশ্রুতি পূরণের বিষয়টি হিসাব করতে গেলে বছরের পর বছর লেগে যেতে পারে৷ কিন্তু আমাদের চেষ্টায় এরই মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে৷'' তিনি বলেন, ইরাকে আইএস-এর শক্তি কমেছে এবং ইরাকি বাহিনী কিছু এলাকা পুনর্দখল করেছে৷

ইরানের হামলা

মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের এক মুখপাত্রের দাবি, ইরাকের পূর্বাঞ্চলে ইসলামিক স্টেটের জঙ্গিদের অবস্থানে সম্প্রতি বিমান হামলা চালিয়েছে ইরান৷ তিনি জানিয়েছিলেন, ‘‘আমাদের কাছে এমন ইঙ্গিত আছে যে, ইরান সুনিশ্চিতভাবে গত কয়েক দিনে এফ-৪ ফ্যানটমস বিমান দিয়ে হামলা চালিয়েছে৷''

যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি এফ-৪ ফ্যানটমস জঙ্গি বিমান দিয়ে ইরানের বিমানবাহিনী ইরাকের দিয়ালা প্রদেশে আইএস-এর অবস্থানে হামলা চালিয়েছে৷ গত আগস্ট থেকে ইরাকে আইএস-এর বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালিয়ে আসছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনী৷

এপিবি/ডিজি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়