1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইরানের উপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা চায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়

ইরানের পরমাণু সমৃদ্ধকরণের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স সোমবার জানিয়েছে, ইরানের উপর আরো কঠোর নতুন নিষেধাজ্ঞা জারির বিষয়ে চাপ দেবে তারা৷

default

ইরানের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমেদিনেজাদ

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরান নিজেরাই ২০ ভাগ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার ঘোষণা দেয়ার পর একথা জানায় যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স৷

স্বভাবতই ইরানের এই ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের ঘোষণায় খানিকটা বিস্মিত পশ্চিমা বিশ্ব৷ কারণ তাদের ধারণা, ইরান পরমাণু অস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে৷

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নিকোলা সার্কোজি এবং মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রবার্ট গেটস তাই ইরানের উপর আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপে ঐক্যমত্যে পৌঁছেছেন৷ এই প্রসঙ্গে প্যারিসে বৈঠক শেষে গেটস বলেন, ইরানের শীর্ষ নেতাদের বোঝাতে হবে যে, দীর্ঘমেয়াদে ইরান পরমাণু অস্ত্রবিহীন অবস্থায় বেশী লাভবান হবে, পরমাণু অস্ত্রসহ অবস্থায় নয়৷ সুতরাং আমি মনে করি, আমাদের অবস্থান হওয়া উচিত এই দিকটির উপর ভিত্তি করে এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যেহেতু বলিষ্ঠভাবে বিষয়টির মিমাংসা চায়, তাই অর্থনৈতিক এবং কুটনৈতিক দিক দিয়ে আগাতে হবে আমাদেরকে৷

এদিকে, আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ প্রধান ইউকিয়া আমানো ইরানের এই পরমাণু সমৃদ্ধকরণের ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন৷ ভিয়েনাভিত্তিক আএইএ-র মুখপাত্র গিল টোডর এই প্রসঙ্গে জানান, আইএইএ মহাপরিচালক ইউকিয়া আমানো গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, এই ঘোষণার ফলে ইরানের পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য আণবিক জ্বালানীর সরবরাহ নিশ্চিত করতে আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টা ব্যহত হবে৷

অবশ্য, ২০ ভাগ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মতো প্রযুক্তি ইরানের কাছে আছে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান অনেক দেশ৷ ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যারনার্ড কুশনার ইতিমধ্যেই দাবি করেছেন, এই ক্ষমতা ইরানের নেই৷ কিন্তু, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ইন্সটিটিউট ফর সায়েন্স এন্ড ইন্টারন্যাশনাল সিকিউরিটি বা আইএসআইএস বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ইরান কিছু সমস্যার মুখোমুখি হলেও ১৯ দশমিক সাত পাঁচ ভাগ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মতো কারগরি ক্ষমতা ইরানের রয়েছে৷

প্রসঙ্গত, ইরানের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমেদিনেজাদ পশ্চিমাবিশ্বের পরিকল্পনা অনুযায়ী নিম্ন সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম বিদেশে পাঠিয়ে সমৃদ্ধকরণে রাজি হন দিনকয়েক আগে৷ কিন্তু সপ্তাহান্তে ইরান ঘোষণা করে, ২০ ভাগ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের কাজ নিজ দেশেই শুরু করবে তারা৷ এজন্য ১০টি ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ প্ল্যান্ট চালু করার পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছে তারা৷ পশ্চিমাবিশ্ব এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে কোনভাবেই রাজি নয়৷ কারন তাদের সন্দেহ এই কর্মসুচির আড়ালে পরমাণু অস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে দেশটি৷ অবশ্য ইরানের দাবি, তাদের পরমাণু কর্মসুচি বিদ্যুৎ উৎপাদনের মতো শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের জন্য৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়