1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ইরাকের মসুলে বোরকা ছাড়া চলাফেরা নিষিদ্ধ

ইরাকের মসুলের মেয়েদের বোরকা ছাড়া চলাফেরা করতে নিষেধ করেছে ইসলামিক স্টেট৷ শহরটির দখল নেয়ার এক মাসের মাথায় জঙ্গি সংগঠনটি মসজিদে ঢুকে ইমামকে তাঁদের এ সিদ্ধান্তের কথা মাইকে পড়ে শোনাতে বাধ্য করছে৷

Leben im Krieg

ফাইল ফটো

কিছুদিন আগেও ইসলামি এই ‘জঙ্গি' সংগঠনের নাম ছিল ইসলামিক স্টেট অফ ইরাক অ্যান্ড লেভান্ত, সংক্ষেপে আইএসআইএল৷ সম্প্রতি ঘোষণা দিয়েই নাম পরিবর্তন করেছে তারা৷ এখন সংগঠনটির নাম ‘ইসলামিক স্টেট'৷ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী সংগঠনটি মসুলে এখন নারীদের আধুনিক পোশাক ছেড়ে বোরকা পরতে বাধ্য করার জন্য সরাসরি কাজ শুরু করেছে৷

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসলামিক স্টেট এক বিবৃতির মাধ্যমে মসুলের নারীদের জানিয়েছে, এখন থেকে সবাইকে মুখ, হাত, পা ঢাকা পোশাক, অর্থাৎ বোরকা পরতে হবে৷ না পরলে কঠোর শাস্তি পেতে হবে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়৷

ইসলামিক স্টেট বিবৃতিতে দাবি করেছে, বোরকা পরতে বাধ্য করার উদ্দেশ্য নারী স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ নয়, বরং ভ্রষ্টাচার এবং অশ্লীলতা রুখতেই এই ব্যবস্থা৷ মসুলের নারীদের উদ্দেশ্যে তাদের বক্তব্য প্রচারের জন্য মসজিদগুলোকেও ব্যবহার করছে ইসলামিক স্টেট৷ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এক ইমাম জানান, কয়েকদিন আগে মসজিদে হঠাৎ ঢুকে পড়ে কয়েকজন জঙ্গি৷ অস্ত্র উঁচিয়ে তারা তাঁকে, মাইকে বিবৃতিটি পড়ে শোনানোর নির্দেশ দেয়৷

নারীদের বোরকা পরার পাশাপাশি কোনো রকমের প্রসাধনী ব্যবহার না করারও নির্দেশ দিয়েছে ইসলামিক স্টেট৷ মসুলের নারীদের এখন থেকে কোথাও একা যাওয়া বারণ৷ সঙ্গে নিজের পরিবারের কোনো পুরুষ সদস্যকে থাকতেই হবে৷ ইসলামিক স্টেট জানিয়েছে, মেয়েদের নিরাপত্তার স্বার্থেই একা চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তারা৷

এসিবি/জেডএইচ (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন