1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইরাকের নির্বাচনে এগিয়ে মালিকি, অভিযোগ কারচুপির

বোমা হামলা, আল-কায়েদা কিংবা জঙ্গি আক্রমণ ছাপিয়ে ইরাকে এখন আলোচনার বিষয় নির্বাচনে কারচুপি৷ কোন কোন মহল দাবি করছে, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে আবারো জিতিয়ে দিতে কারচুপির আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে৷ প্রাথমিক ফলাফলও এগিয়ে মালিকি৷

default

ফাইল ফটো

এগিয়ে মালিকি

ইরাকে সাধারণ নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফল এখন পর্যন্ত যা পাওয়া গেছে তাতে খানিকটা এগিয়ে আছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নুরি আল-মালিকি৷ তবে এখনো তাঁর কাছাকাছি অবস্থানে আছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইয়াদ আলাউয়ি৷ ইরাকের ভবিষ্যত সরকার গঠনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা এই দুজনের জোটের মধ্যেই৷

শুক্রবার মূলত ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলের প্রদেশ মায়াসেন এবং মুথান্নার নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফল পাওয়া গেছে৷ মুথান্নায় এগিয়ে আছে মালিকির জোট স্টেট অফ ল৷ আর তাঁর ঠিক পেছনে ইরাকি ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স৷ মায়াসেন এর ফলাফল ঠিক উল্টো৷ এগিয়ে ইরাকি ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স, পেছনে মালিকি, আর তারও পেছনে আলাউয়ির ইরাকিয়া জোট৷

অবশ্য এখন পর্যন্ত যা ফলাফল পাওয়া গেছে তা ইরাকের মোট ভোটাভুটির এক তৃতীয়াংশও নয়৷ ফলে এখনই বলা মুশকিল শেষ পর্যন্ত ক্ষমতায় যাচ্ছে কোন জোট৷ তবে মালিকির বিরোধী পক্ষ ইতিমধ্যেই দাবি করছে নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে৷

আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া

আন্তর্জাতিক মহলের প্রতিক্রিয়া বেশ মিশ্র৷ ইউরোপীয় পার্লামেন্টের এক সদস্য দাবি করেছেন, নির্বাচনে মালিকির অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী ইয়াদ আলাউয়ির বিজয় ঠেকাতে কারচুপির আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে৷ অবশ্য, ইরাকে নিযুক্ত জাতিসংঘ মিশনের প্রতিনিধি সান্ড্রা মিচেল জানিয়েছেন, ভুল সবসময়ই হতে পারে, অভিযাগও থাকবে৷ যেকোন দেশেই রাজনৈতিক দলগুলো অভিযোগ করতে পছন্দ করে৷ এটাও কোন ব্যতিক্রম নয়৷ এই মুহূর্তে আমরা উদ্বেগের কিছু দেখছি না৷

সোচ্চার বিরোধী জোট

এখন পর্যন্ত দেশটির নির্বাচন কমিশনে কারচুপির হাজার খানেক অভিযোগ জমা পড়েছে৷ নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, দুর্নীতি এবং কারচুপির অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখবে তারা৷ একইসঙ্গে নির্বাচনের ভোট গণনায় স্বচ্ছতা আনতে বাগদাদের যেখানে তথ্য উপাত্ত কম্পিউটারে জমা করা হচ্ছে, সেখানে সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার দেওয়া হয়েছে৷ যদিও, ভোট গণনায় অংশগ্রহণকারী আর সাংবাদিকদের মধ্যে রয়েছে কাচের দেয়াল৷

তবে প্রায় সকল বিরোধী রাজনৈতিক জোটেরই অভিযোগ, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মালিকির জোটকে জিতিয়ে দিতে কারচুপির আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে৷ রাজনৈতিক জোট ইরাকিয়া অভিযোগ করেছে, ভোটাভুটির পর ভোটবাক্স থেকে ব্যালট পেপার বের করে তাতে নতুন সিল মারা ব্যালট ঢোকানো হয়েছে৷ বের করা ব্যালট আবর্জনার মধ্যে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ তাদের৷ ইরাকি ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স ইতিমধ্যে জানিয়েছে, ভোট গণনার মাঝামাঝি পর্যায়ে ফলাফলের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চলছে৷

এখন পর্যন্ত যে খবর, তাতে নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল পাওয়া যাবে ১৮ই মার্চের মধ্যে৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়