1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

ইমামদের প্রশিক্ষণ দেবে বার্লিনের হুমবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়

একটি ইসলামিক থিওলজি ইনস্টিটিউট খোলার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে হুমবোল্ট ইউনিভার্সিটি৷ ইনস্টিটিউটের স্নাতকরা মসজিদের ইমাম বা স্কুলের ধর্মশিক্ষক হিসেবে কাজ করতে পারবেন৷

জার্মানিতে পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিমধ্যেই এ ধরনের ইসলামি ঈশ্বরতত্ত্ব পড়ানোর বিভাগ আছে৷ হুমবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট সাবিনে কুন্সট জানান, হুমবোল্ট তাদেরই মতো একটি ইসলামিক থিওলজি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করতে চলেছে, তার বেশি বা কম কিছু নয়৷

হুমবোল্টের এই নতুন কর্মসূচি মৌলবাদী প্রবণতা রোখার জন্য কিনা, এই প্রশ্নের উত্তরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র হান্স-ক্রিস্টফ কেলার বলেন যে, তিনি সংবাদ সংস্থাগুলির জল্পনা-কল্পনা সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে রাজি নন৷ ইমামদের ও স্কুলের ধর্মশিক্ষকদের প্রশিক্ষণই হবে এই ইনস্টিটিউটের কাজ, যোগ করেন কেলার ৷

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই পাঠক্রমে অংশগ্রহণের জন্য ইসলাম ধর্মের সঙ্গে কোনো সংযোগ থাকা বাধ্যতামূলক নয়৷'

শুরু হতে আরো কিছু সময় লাগবে

বার্লিনের মেয়র মিশায়েল ম্যুলার হুমবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের এই উদ্যোগকে একটা ‘‘অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়'' বলে অভিহিত করেন৷

হুমবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যযুগ সম্পর্কিত বিভাগের সাবেক অধ্যাপক মিশায়েল বর্গল্টেনতুন ইসলামিক থিওলজি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার দেখাশোনা করবেন৷ খ্রিষ্টীয়, ইহুদি ও ইসলামি দৃষ্টিকোণ থেকে ইউরোপের ইতিহাস ছিল এ যাবৎ তাঁর গবেষণার বিষয়৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

২০১৮/২০১৯ সালের শীতের সেমেস্টার থেকে পাঠক্রম চালু হবে বলে জানা গেছে৷ বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের প্রতিনিধিরা ইনস্টিটিউটের উপদেষ্টা পরিষদে থাকবেন – এবং এই উপদেষ্টা পরিষদই পাঠক্রমে যাঁরা অধ্যাপনা করতে চান, তাঁদের আবেদনপত্র বিবেচনা করবে৷ আশা করা হচ্ছে প্রার্থীরা কোন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের সদস্য, সেটাও পরীক্ষা করে দেখবে পরিষদ৷

তুর্কি-ইসলামি ধর্মবিষয়ক সংঘ বা ডিটিব এই ১৫ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা পরিষদে একটি আসন পাবে৷ তুরস্ক সরকারের ধর্ম সংক্রান্ত পরিদপ্তরের সঙ্গে যুক্ত ৯০০ মসজিদের ইউনিয়ন এই ডিটিব৷

জার্মানিতে কর্মরত ডিটিব-এর কিছু ইমাম যুক্তরাষ্ট্রবাসী ধর্মপ্রচারক ফেথুল্লাহ গুলেনের সমর্থকদের ওপর গোয়েন্দাগিরি করেছেন বলে সন্দেহ করা হয়৷ তবে এ যাবৎ ডিটিব প্রতিনিধিদের সঙ্গে ‘‘সংঘাতের'' কোনো কারণ ঘটেনি, জানান অধ্যাপক বর্গল্টে৷ মেয়র ম্যুলার অবশ্য সাবধান করে দেন এই বলে যে, ‘‘আমাদের দেখতে হবে, আমরা কাদের সঙ্গে কাজ করছি৷''

‘ফ্যাকাল্টি ফর থিওলজি'

প্রটেস্টান্ট ঈশ্বরতত্ত্ববিদরা আরো একটি প্রস্তাব দিয়েছেন: তাঁরা চান যে, খ্রিষ্টান, মুসলিম ও ইহুদিদের জন্য একটি যৌথ ‘‘ফ্যাকাল্টি ফর থিওলজি'' বা ঈশ্বরতত্ত্ব বিভাগ প্রতিষ্ঠা করা হোক৷ বার্লিনের মেয়র ম্যুলার ধারণাটির সপক্ষে, কিন্তু তিনি এবং হুমবোল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট সাবিনে কুন্সট উভয়েই জানেন যে, এর বাস্তবায়ন করতে সময় লাগবে৷ ‘‘ওয়ান স্টেপ অ্যাট এ টাইম'', বলেন কুন্সট৷

মেলানি কুরা দাবাল/এসি

বন্ধু, কেমন লাগলো প্রতিবেদনটি? লিখুন আপনার মন্তব্য, নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন