1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইন্দোনেশিয়া, অস্ট্রেলিয়া সফর বাতিল করলেন ওবামা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আগামী সপ্তাহে তাঁর নির্ধারিত ইন্দোনেশিয়া ও অস্ট্রেলিয়া সফর বাতিল করেছেন৷

default

বারাক ওবামা

যুক্তরাষ্ট্রের বহুল আলোচিত স্বাস্থ্য খাত সংস্কার বিলের উপর রবিবার অনুষ্ঠিতব্য ভোটের কারণেই ওবামা সফর বাতিল করেছেন বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র রবার্ট গিবস্৷

তবে আগামী জুনে এই সফর অনুষ্ঠিত হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি৷ গিবস্ বলেন, সফর বাতিলের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে ওবামা ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট সুসিলো বামবাং ও অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী কেভিন রুডকে টেলিফোন করলে তাঁরা দুজনেই নির্বাচনের গুরুত্ব অনুধাবন করে মার্কিন প্রেসিডেন্টের পরিকল্পনাকে সমর্থন জানিয়েছেন৷

সাম্প্রতিক সময়ে চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের অবনতির কারণে এশিয়া প্রশান্ত-মহাসাগরীয় অঞ্চলের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নই ছিল ওবামার সফরের মূল লক্ষ্য৷ তবে সফরসূচি

Robert Gibbs Pressesprecher im Weissen Haus in Washington

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র রবার্ট গিবস্

তৈরি হবার পর থেকেই ওবামা নিজ দলের নেতাদের কাছ থেকে সমালোচনার শিকার হন৷ কারণ স্বাস্থ্য খাত সংস্কার বিলটি এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু, যা নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য কংগ্রেস নির্বাচনে প্রভাব ফেলতে পারে৷ তাই এমন একটি বিষয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠানের সময় ওবামার দেশের বাইরে থাকার পরিকল্পনাটা পছন্দ করছিলেন না অনেক ডেমোক্রেটই৷

এদিকে, রক্ষণশীল ঘরানার পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক বিশ্লেষকরা ওবামার সফর বাতিলের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বলেছে, এটা যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থের জন্য ক্ষতিকারক হবে৷ হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের এশিয়া বিষয়ক বিশেষজ্ঞ ওয়াল্টার লোহম্যান বলেছেন, এই সিদ্ধান্তের কারণে এশিয়াতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাব ক্ষুন্ন হবে৷

তবে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র গিবস্ মনে করেন সফর বাতিলের কারণে বহির্বিশ্বের কাছে ওবামার অঙ্গীকারের কোনো নেতিবাচক বার্তা পৌঁছাবেনা৷ তিনি বলেন, ওবামা এখনো বিশ্বাস করেন যে, এই সফরটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, তবে এই মুহূর্তে স্বাস্থ্য খাত সংস্কার বিলের উপর অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনটিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ৷

উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর ওবামা গত বছর নভেম্বরে প্রথম এশিয়া সফর করেছিলেন৷ সে সময় তিনি নিজেকে অ্যামেরিকার প্রথম প্রশান্ত মহাসাগরীয় প্রেসিডেন্ট বলে পরিচয় দিয়েছিলেন৷ এর ফলে ঐ অঞ্চলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের একটা উন্নতি হয়েছিল বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন৷ এবারকার সফর ঐ সম্পর্ককেই আরও এগিয়ে নিয়ে যেত বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ এছাড়া এবার সফরের জন্য ইন্দোনেশিয়া ও অস্ট্রেলিয়াকে বেছে নেয়ার কারণ ছিল মধ্যম ক্ষমতার দেশ দুটি ক্রমশই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে৷ এছাড়া অর্থনৈতিক ক্ষেত্রেও দেশদুটি সাম্প্রতিক সময়ে বেশ উন্নতি করায় সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের রপ্তানি বৃদ্ধিরও একটি সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে৷ উল্লেখ্য, ওবামা আগামী পাঁচ বছরে যুক্তরাষ্ট্রের রপ্তানি দ্বিগুন করার অঙ্গীকার করেছেন৷

প্রতিবেদক: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়