1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইন্দোনেশিয়ায় মাদক পাচারকারীদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

মাদক পাচারের অভিযোগে ৭ বিদেশিসহ ৮ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে ইন্দোনেশিয়া৷ এই দণ্ড কার্যকর করার পর ব্যাপক ক্ষোভ জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া৷

যে আট জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে তাদের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক চেন ও মেইয়ুরান সুকুমারান ছিলেন৷ প্রতিবাদে ইন্দোনেশিয়া থেকে নিজেদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করে নিয়েছে দেশটি৷ অস্ট্রেলীয় এই দুই নাগরিকের মৃত্যু কার্যকর করার প্রতিবাদে দেশটির প্রধানমন্ত্রী টোনি অ্যাবট বলেছেন, ‘এই মৃত্যু ছিল নৃশংস ও অপ্রয়োজনীয়৷'

মৃত্যুর আগে তাঁরা যা করলেন:

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, নুসাকামবানগান দ্বীপে ফায়ারিং স্কোয়াডের দিকে যখন তারা এগিয়ে যাচ্ছিল তখন ঈশ্বরের প্রশংসায় গান গাইছিলো৷ যারা তাদের সমর্থন করছিলেন তারাও গলা মিলিয়েছিলেন ঐ গানে৷ এরপর তাদের চোখ বেঁধে ফেলতে বলা হলে তারা প্রত্যেকেই তা নাকচ করেন৷ তারা ‘‘আমেজিং গ্রেস'' গানটি গাইতে থাকেন যতক্ষণ না গুলিবিদ্ধ হন৷ সূর্যোদয়ের ঠিক আগ মুহূর্তে গুলির শব্দে জেগে উঠেছিল দ্বীপটি৷

ইন্দোনেশিয়া সরকারের বার্তা পেয়ে আসামিদের স্বজনেরা অনেকে নুসাকামবানগান দ্বীপে উপস্থিত হয়েছিলেন৷ দণ্ডিত নয়জন বিদেশির মধ্যে দুজন অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক৷ এছাড়া ব্রাজিল, আফ্রিকা ও ফিলিপাইন্সের নাগরিক রয়েছেন৷ ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জকো উইডোডো-র কাছে করা তাঁদের প্রত্যেকের ক্ষমার আবেদন নাকচ হয়ে যায়৷

স্থগিত

একই দণ্ড পাওয়া ৯ নম্বর আসামি, যিনি ফিলিপাইন্সের এক নারী, তার মৃত্যুদণ্ডটি শেষ মুহূর্তে স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে৷ ফিলিপাইন্সের প্রেসিডেন্টের অনুরোধে মেরি জেন ভেলোসো নামের সেই নারীর দণ্ড স্থগিত করা হয়৷ মৃত্যুদণ্ড স্থগিত হওয়ার বিষয়টিকে মেরি জেনের মা একটি ‘অলৌকিক ঘটনা' হিসবে বর্ণনা করেছেন৷

দিনে ৩০ জনের মৃত্যু

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট উইডোডো যুক্তি দেখান যে ইন্দোনেশিয়া মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে৷ তিনি জানান, সম্প্রতি দেশটিতে মাদক ব্যবহার অতিমাত্রায় বেড়েছে৷ দেশের মানুষকে এই ভয়াবহ অবস্থা থেকে বের করে আনতেই এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে৷ এ সময় তিনি এও উল্লেখ করেন প্রতিদিন মাদক ব্যবহারের কারণে ৩০ জনেরও বেশি মানুষ মারা যাচ্ছে৷

সমালোচনা

ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যু কার্যকর করা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে৷ ব্রাজিলের এক নাগরিকের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার পর ব্রাজিলের সরকার একটি বিবৃতিতে বলেছেন,‘‘ ইন্দোনেশিয়ার সাথে সম্পর্কের ক্ষেত্রে এটা হবে একটা মারাত্মক ঘটনা৷'' ইন্দোনেশিয়ার বিদেশিদের মৃত্যুদণ্ড দেয়ায় এ পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ৷ সংশ্লিষ্ট দেশগুলো অনুরোধ-উপরোধ উপেক্ষা করে এ দণ্ড কার্যকরের পথে এগিয়ে যাওয়ায় ইন্দোনেশিয়ার কড়া সমালোচনা হচ্ছে৷

২০০৫ সালে ইন্দোনেশিয়া থেকে অস্ট্রেলিয়ায় হেরোইন পাচারের অভিযোগে ৯ জনের বিচার শুরু করেন ইন্দোনেশিয়ার আদালত৷ দীর্ঘ বিচার কার্যক্রমের বুধবার শেষ রাতে এদের মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকর করা হলো৷

এপিবি/এসবি (এপি, এএফপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়