1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ইটালিকে ড্র-তে বেঁধে রাখল নিউজিল্যান্ড, উল্লসিত কি

ফুটবল প্রেমীদের উল্লাসের জোয়ারে এবার সামিল হলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী৷ এই বছরের বিশ্বকাপের উল্লাসে শরিক হওয়া কোন দেশের শীর্ষনেতা হিসেবে সম্ভবত জন কি’ই প্রথম৷

default

গোল দেওয়ার পর নিউজিল্যান্ডের শ্যেন স্মেলজ-এর উল্লাস

কী বলছেন, কী করলেন ‘কি'

হট ফেভারিট ইটালির সাথে ১-১ গোলে ড্র করার আনন্দ জাতীয়ভাবে উদযাপনের ঘোষণা করেছে কিউইরা৷ আর এই আনন্দের জোয়ারে গা ভাসাবেন প্রধানমন্ত্রী কি নিজেই৷ নিউজিল্যান্ডের টেলিভিশনেই ধরা পড়েছে কি'র উচ্ছাস৷ কি বললেন, ‘‘এটা পুরো রোমাঞ্চকর৷ শেষের আধ ঘণ্টা আমার হৃদপিণ্ড শুধুই দৌড়চ্ছিল৷ এটা একটা অবিশ্বাস্য পরিস্থিতি৷'' জন কি কি আগেই টের পেয়েছিলেন তাঁদের জাতীয় দলের এই সাফল্যের ব্যাপারে? কারণ রবিবার নিজেই উড়ে গেছেন দক্ষিণ আফ্রিকা৷ হাজির ছিলেন নেলসপ্রুটের মাঠে৷

কিউইদের ক্যারিশমা

স্লোভাকিয়ার সাথে গত বুধবারের ১-১ গোলে ড্র-ই বুঝি নিউজিল্যান্ডের প্রত্যাশা বাড়িয়ে দিয়েছে অনেকগুণ৷ রবিবারের আগে নিউজিল্যান্ডের অভিজ্ঞতা মাত্র চারটি বিশ্বকাপ খেলার৷ অন্যদিকে ইটালি বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরেই তুলেছে চারবার৷ তবুও ১-১ গোলে ড্র, এটিকে শুধুই ‘ক্রেজি' বলেই মন্তব্য করল স্বয়ং নিউজিল্যান্ডের পত্রিকা ‘দ্য হেরাল্ড'৷ রবিবার খেলার সাত মিনিটেই প্রথম গোল আসে শ্যেন স্মেলজ এর পা থেকে ৷ অবশ্য ২৯ মিনিটের পেনাল্টি থেকে পাওয়া গোলই মান বাঁচিয়েছে ইটালির৷ গোলটি করেন ভিনসেন্জো লাকুইন্টা৷ এমনকি প্যারাগুয়ের সাথেও ইটালির ড্র হয়েছিল ১-১ গোলে৷ এখনও কোন জয় পায়নি, সমালোচকদের ভাষায় ‘ড্রামাকুইনরা'৷

Neuseeland - Italien WM Weltmeisterschaft Fußball Flash-Galerie

পেনাল্টি থেকে ইটালির গোল নিউজিল্যান্ডের জালে

নিশ্চয়ই হাল ছাড়ছে না ইটালি

তবুও শিরোপা ঘরছাড়া কোনভাবেই হতে দেবেন না এমন প্রবল বিশ্বাস নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছেন ইটালির কোচ মার্সেলো লিপ্পি৷ বৃহস্পতিবার স্লোভাকিয়ার বিরুদ্ধে অতি প্রয়োজনীয় জয়টি ছিনিয়ে আনবেন, ঘোষণা লিপ্পির৷ একই সুর মিডফিল্ডার ডানিয়েল ডি রোসির কণ্ঠেও৷ রবিবার ম্যান অব দ্য ম্যাচের খেতাব পেলেন রোসি৷ ‘‘কোয়ালিফাই করতে একটি জয় আমাদের চাই-ই৷ আমরা আর ড্র করতে চাই না,'' বলেন রোসি৷ তবে কিউইদের শারীরিক শক্তির কথা স্বীকার করতে কুণ্ঠাবোধ করেননি তিনি৷ যদিও ফুটবল প্রেমীরা তাতে কোনভাবেই সন্তুষ্ট হবেন না৷ কারণ ইটালির কাছ থেকে যেমন খেলা প্রত্যাশা তার কিছুমাত্রও মেলেনি এখন পর্যন্ত৷ আর বলতে কি, ইউরোপের দলগুলোর কাছে ফুটবলের যে মান সবার প্রত্যাশা তা কোন দলই উপহার দিতে পারছে না এবার৷ এমন বিবেচনায় বরং এগিয়ে রয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার লড়াকুরাই৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়