1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

ইউরো এলাকার প্রবৃদ্ধির পথে ভূমিকা রাখবে ইসিবি

আর্থিক ও অর্থনৈতিক সংকটের সময় ইউরো এলাকা ও অভিন্ন মুদ্রার সুরক্ষার ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক বা ইসিবি৷ আর ভবিষ্যতেও এই প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বলে জানিয়েছে৷

ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক – ইসিবি গত সপ্তাহান্তে অনেকগুলি বিষয়ে ভবিষ্যতের রূপরেখা তুলে ধরেছে৷ দীর্ঘমেয়াদি ভিত্তিতে বেশ কিছু পদক্ষেপেরও ইঙ্গিত দিয়েছেন ইসিবি কর্মকর্তারা৷ প্রথমত মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পদক্ষেপ নেওয়া হবে৷ আপাতত ইউরোপ ও জাপানে মূল্যস্ফীতির অস্বাভাবিক নিম্ন হার দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ এই পরিস্থিতিতে আইএমএফ-এর চাপ সত্ত্বেও অর্থনীতিকে সরাসরি চাঙ্গা করতে ইসিবি অবশ্য এখনই সরাসরি কোনো পদক্ষেপ নিতে চাইছে না৷ প্রয়োজনে অবশ্য এমন সম্ভাবনা উড়িয়েও দেওয়া হচ্ছে না৷

Porträt - Mario Draghi

ইসিবি প্রধান মারিও দ্রাগি

তাছাড়া সুদের হার আরও বেশ কিছুকাল কম রাখা হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসিবি প্রধান মারিও দ্রাগি৷ জার্মান অর্থমন্ত্রী ভল্ফগাং শয়েবলে আবার মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও মুদ্রার স্থিতিশীলতা সত্ত্বেও ইউরো এলাকার অবস্থা এখনো পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়ে ওঠেনি৷ তবে স্থায়ী ‘ডিফ্লেশন' বা মূল্যহ্রাসের কোনো আশঙ্কা তিনি দেখছেন না৷ এদিকে ফেব্রুয়ারি মাসে ইউরো এলাকার শিল্পক্ষেত্রে উৎপাদন বেড়ে গেছে বলে জানা গেছে৷ সপ্তাহান্তে ইসিবি-র এই সব মন্তব্যের ফলে ইউরো-র বিনিময় মূল্য কিছুটা পড়ে গেছে৷

আরও কিছু প্রবণতার কারণে ইউরোপের পুঁজিবাজারে চলতি সপ্তাহে মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যাচ্ছে৷ একদিকে অ্যামেরিকায় বিক্রির হার বেড়ে যাওয়ায় গোটা বিশ্বের বাজার চাঙ্গা হয়ে উঠেছিল৷ অন্যদিকে ইউক্রেনে উত্তেজনা বেড়ে চলায় সামরিক সংঘাতের আশঙ্কা বাড়ছে৷

10-Euro-Banknote 13.01.2014 in Wien

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও মুদ্রার স্থিতিশীলতা সত্ত্বেও ইউরো এলাকার অবস্থা এখনো পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়ে ওঠেনি

এমনটা ঘটলে বিশেষ করে গ্যাস ও পেট্রোলিয়ামের সরবরাহে ব্যাঘাত ঘটতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে৷ পুঁজিবাজারের আরও আশঙ্কা, রাশিয়ার উপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা চাপানো হলে ইউরোপের অর্থনীতি সামগ্রিকভাবে ধাক্কা খাবে৷

এদিকে প্রায় চার বছর পর গ্রিস গত সপ্তাহে আবার বন্ড বাজারে প্রবেশ করে বেশ সাফল্য পেয়েছে৷ বৃহস্পতিবার সে দেশ বাজার থেকে ৩০০ কোটি ইউরো তুলতে সক্ষম হয়েছে৷ ইইউ ও আইএমএফ এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে৷ জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল বলেন, এর ফলে গ্রিসের প্রতি বাজারের আস্থা স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে৷

একের পর এক পদক্ষেপের মাধ্যমে সংস্কারের পথে এগিয়ে চলেছে ইটালি৷ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলির দক্ষতা বাড়াতে পরিচালকমণ্ডলীতে ব্যাপক রদবদল করছে প্রধানমন্ত্রী মাটেও রেনসির সরকার৷ সে দেশে মূল্যস্ফীতিও কমে চলেছে৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন