1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইউরোপ ভূমিলগ্ন, উড়ছেনা বিমান

খুব তাড়াতাড়ি রেহাই পাচ্ছেন না ইউরোপের বিভিন্ন বিমানবন্দরে আটকা পড়া যাত্রীরা৷ কারণ বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ছাইমেঘের প্রভাবে আগামী পাঁচদিন পর্যন্ত বিমান চলাচল বন্ধ রাখতে হতে পারে৷

default

ফ্রাঙ্কফুর্ট বিমানবন্দরে এক যাত্রী ঘুমিয়ে পড়েছেন

আইসল্যান্ডের আবহাওয়া দপ্তরের মতে, বাতাসের কারণে ছাইমেঘ ধীরে ধীরে রাশিয়ার দিকে ছুটে যাচ্ছে৷ কমপক্ষে আগামী দুই দিন তা একই দিকে ছুটবে৷ তবে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি পর্যন্তও একই ধারা বজায় থাকতে পারে বলে তাদের ধারণা৷

এদিকে আজও বন্ধ রয়েছে ইউরোপের সবচেয়ে বড় তিন বিমানবন্দর-- হিথরো, ফ্রাঙ্কফুর্ট ও প্যারিসের শার্লস দ্য গল৷

প্যারিসের তিনটি সহ উত্তরের সব বিমানবন্দর সোমবার স্থানীয় সময় সকাল আটটা পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে ফ্রান্স৷ ইটালিও একই সময় পর্যন্ত তার বিমানবন্দরগুলো বন্ধ রাখবে বলে জানিয়েছে৷ এদিকে ব্রিটেন ও জার্মানি গ্রীনিচ মান সময় রবিবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত অধিকাংশ ফ্লাইটের ক্ষেত্রে তাদের আকাশসীমা ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে৷

এছাড়া এতদিন চালু থাকা অনেক দেশের বিমানবন্দর নতুন করে বন্ধের ঘোষণাও আসছে৷ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বিমানবন্দরে আটকে পড়া যাত্রীদের৷ ফ্রাঙ্কফুর্ট বিমানবন্দরে এমনই এক যাত্রী জানালেন, ‘‘আমাকে মিয়ামি যেতে হবে৷ ওখান থেকে আমার একটি জাহাজে ওঠার কথা রয়েছে৷ কিন্তু কবে সেখানে যেতে পারবো বুঝতে পারছিনা৷ যেতে না পারলেও, আমাকে জাহাজের ভাড়ার প্রায় ৯০

Chaos auf Frankfurter Flughafen nach Vulkanausbruch in Island

ফ্রাঙ্কফুর্ট বিমানবন্দরের নোটিশ বোর্ডে ফ্লাইট বাতিলের ঘোষণা

ভাগ পরিশোধ করতে হবে, যা আমার জন্য খুব কঠিন৷''

এভাবে হাজার হাজার যাত্রীকে অনিশ্চয়তার মধ্যে কাটাতে হচ্ছে৷ কবে তাঁরা বিমানে চড়তে পারবেন তা কেউ বলতে পারছেনা৷ ইউরোপের ৩৮টি দেশের বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা ইউরোকন্ট্রোল বলছে, ছাইমেঘের কারণে প্রায় ১৬ হাজার ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছে শনিবার৷ এর আগে শুক্রবারও সমান সংখ্যক ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছিল৷ উল্লেখ্য, ইউরোপে প্রতিদিন প্রায় ২২ হাজার ফ্লাইট চলাচল করে৷

এদিকে শুধু সাধারণ যাত্রীরাই যে বিপাকে পড়েছেন তা নয়৷ বিভিন্ন দেশের শীর্ষ নেতা ও কূটনীতিকরাও আটকা পড়েছেন বিভিন্ন স্থানে৷ এই যেমন জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল৷ যুক্তরাষ্ট্র থেকে তাঁর বার্লিন ফেরার কথা ছিল শুক্রবার৷ কিন্তু এখনো তিনি ফিরতে পারেন নি৷ কবে পারবেন কেউ তা বলতে পারছেনা৷ আফগানিস্তানে আহত চার জার্মান সেনাও ফিরতে পারেননি দেশে৷ তাই তাঁদের চিকিত্সা নিতে হচ্ছে তুরস্কে৷

ওদিকে স্পেনে ইউরোপীয় অর্থমন্ত্রীদের এক বৈঠকে অংশ নেয়া ফ্রান্স ও জার্মানির অর্থমন্ত্রীরা আটকে যাবার ভয়ে সাংবাদিক সম্মেলন না করেই তাড়াতাড়ি দেশে ফিরে এসেছেন৷ এছাড়া ছাইমেঘের কারণে নিহত পোলিশ রাষ্ট্রপতির শেষকৃত্যে মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা সহ অন্যান্য শীর্ষনেতারা অংশ নিতে পারবেন কি না তা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে৷ ভারত, পাকিস্তান, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, মেক্সিকো ও নিউজিল্যান্ডের প্রতিনিধিরা এরই মধ্যে তাঁদের পোল্যান্ড সফর বাতিল করেছেন বলে পোলিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে৷ তবে চেক প্রজাতন্ত্র ও স্লোভাকিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানরা রেল ও সড়ক পথে পোল্যান্ড যাবেন বলে নিশ্চিত করেছেন৷

আন্তর্জাতিক বিমান যোগাযোগ সংস্থা বা আইএটিএ-এর হিসেব অনুযায়ী, বিমান চলাচল ব্যাহত হওয়ায় বিমান সংস্থাগুলোকে প্রতিদিন প্রায় ২৩০ মিলিয়ন ইউরো লোকসান গুনতে হচ্ছে৷ উল্লেখ্য, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিমান চলাচল বন্ধের এটাই সবচেয়ে বড় ঘটনা৷

প্রতিবেদন : জাহিদুল হক

সম্পাদনা : রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়