1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ইউরোপে মুসলিম নারীদের বহুমুখী অবস্থান

ইউরোপে বসবাস করছেন যে সব মুসলিম নারী তারা ইসলামি রীতি অনুযায়ী চলাফেরা করেন এবং একই সঙ্গে সমাজ ও কর্মক্ষেত্রে সমঅধিকার চান, আর তাতেই তাদের জীবনে দেখা দিচ্ছে সমস্যা৷

default

একজন ইউরোপীয় যদি মুসলমান এবং নারী হন, তাহলে তাকে সাহস নিয়ে চলাফেরা করতে হবে

সম্প্রতি ব্রাসেলসে একটি সম্মেলনে যোগ দিয়েছিল এইরকম শীর্ষ স্থানীয় ইউরোপীয় মুসলিম চিন্তাবিদদের একটি সংগঠন জানিয়েছে, ইউরোপে মুসলিম নারীদের সমস্যা নিয়ে গবেষণা চালানো হচ্ছে৷ সংগঠনটি মাথা ঢেকে চলা এবং নেকাব ব্যবহার করার বিষয়টি নিয়ে বিতর্কের ডাক দিয়েছেন৷

ডাচ টেলিভিশনের উপস্থাপিকা এসমা আলারিয়াচিয়া বলেন, একজন ইউরোপীয়, তিনি যদি মুসলমান এবং নারী হন, তাহলে তাকে সাহস নিয়ে চলাফেরা করতে হবে৷ ব্রিটিশ কাউন্সিল এবং ইউরোপিয়ান পলিসি সেন্টারের ব্যবস্থাপনায় মুসলিম অঙ্গীভূতকরণের ওপরে ব্রাসেলস সম্মেলনে অংশ নিয়েছিলেন এসমা৷ তাঁর আরো দুইজন বোনের সঙ্গে এসমা নেদারল্যান্ডস টেলিভিশনের একজন জনপ্রিয় উপস্থাপিকা৷ তাঁরা তিন বোন ‘সিস্টার্স অফ হিজাব' নামে পরিচিত৷ এসমা বলেন, মুসলিম নারীরা (তাঁর এবং তাঁর বোনদের মত) যে ডাচ নারীবাদী হয়ে উঠতে পারেন তা বুঝতে মানুষের সময় লাগবে৷ তিনি বলেন, ‘‘আমার বোনদের এবং আমার পক্ষ থেকে আমি বলবো, আমার লক্ষ্য এবং আমাদের লক্ষ্য মানুষকে এটা দেখানো যে, মুসলমানরা খুব সাধারণ মানুষ৷ আমরা খাই, ঘুমাই, সিনেমা দেখতে যাই, দুপুরের খাবার খাই, থিয়েটার দেখতে যাই৷ এইরকমভাবে বললে শুনতে খুব হাস্যকর লাগে ঠিকই, কিন্তু এই কথা সত্যি যে, অন্যরা যা করেন, আমরাও তাই করি, এইকথা বললে সকলেই খুব আশ্চর্য হয়ে যান৷''

Bend it like Beckham

হিজাব পরেও সব কিছুতে অংশ নিচ্ছে ইউরোপের মুসলিম মেয়েরা

এসমা বলেন, টক শো-তে হিজাব পরা প্রথম মহিলা উপস্থাপিকা হবার পরে টক শো-এর জন্যেও তা ছিল এক চ্যালেঞ্জ৷ ‘‘কারণ এর আগে মাথা ঢেকে চলা বা হেডস্কার্ফ পড়া আমার মত মেয়েরা শুধু রাজনৈতিক এবং ইসলামি ইস্যুগুলোতে বক্তৃতা দেবার জন্যে আমন্ত্রিত হতো৷ যেন আমাদের কপালে একটি ছাপ আছে, ‘আপনি শুধু এই ব্যাপারে বিশেষজ্ঞ, শুধুমাত্র সেই জন্যেই আমরা আপনাকে আমন্ত্রণ জানাই৷' আগে ব্যাপারটা এইরকম থাকলেও, আমাদের জন্যে এখন পরিস্থিতি বদলেছে৷'' এসমা বলেন, হল্যান্ডে মানুষ এখন তাঁকে এবং তাঁর বোনদেরকে সেলিব্রিটি হিসেবেই চেনে৷

তবে তারপরেও এসমার সংগ্রাম এখনও শেষ হয়নি৷ চরম ডানপন্থী ডাচ রাজনীতিবিদ খেয়ার্ট ভিলডার্স কোনভাবেই তাঁর সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি৷ এসমা বলেছেন, তিনি এই যুদ্ধ চালিয়ে যাবেন৷

যুক্তরাজ্যে ‘ফাতিমা উইমেনস নেটওয়ার্ক' পরিচালনা করছেন পারভিন আলি৷ তিনি বলেন, মুসলিম ঐতিহ্যবাহী সমাজে কিছু মুসলিম নারীর জন্যে এই যুদ্ধ পরিস্থিতি আরো কঠিন করে তোলে৷ এমনকি এই ব্যাপারগুলো কর্মক্ষেত্রে উচ্চ-শিক্ষিত মহিলাদের মনোবল ভেঙে দেয়৷ তিনি বলেন, ইউরোপে পছন্দমত চলাফেরার স্বাধীনতা মুসলমান মেয়েদের আছে৷ কিন্তু এইক্ষেত্রে তাঁদের সম্প্রদায় থেকে সমর্থন পাওয়াটাই মূল চাবিকাঠি৷ পারভিন আলি বলেন, ‘‘সম্প্রদায়ের সঙ্গে তাল মিলিয়েই আপনাকে চলতে হবে৷ কেননা, যে সম্প্রদায় থেকে ঐ ব্যক্তি এসেছেন, অথবা যেখানে তাঁর ভিত্তি, তারা যদি আদতে ঐ সিদ্ধান্ত সমর্থন না করে, তাহলে ঐ পরিবারগুলোর জন্যেও তাদেরকে সমর্থন দেওয়া হয়ে যাবে ভীষণ ভীষণ কঠিন৷''

Ramadan in Deutschland

প্রাত্যহিক কাজেও পিছিয়ে নেই মুসলিম নারীরা

লিঙ্গ এবং বহুমুখিতা সম্পর্কিত বিষয়গুলো নিয়ে সরকারি বিভাগের সঙ্গে কাজ করছেন পারভিন৷ একই সঙ্গে ইসলামি ইস্যুগুলো নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে সহায়তা করছেন৷ ভুল নীতি এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের সঙ্গে আলোচনা করতে ব্যর্থ হবার জন্যে তিনি যুক্তরাজ্য সরকারকে দোষারোপ করেন৷

পারভিন পরামর্শ দেন যে, একটা ভুল, মানুষকে কর্মক্ষেত্রে ধর্মচর্চার সুযোগ দিয়েছে৷ তিনি বলেন, ‘‘কর্মক্ষেত্রে নিজের বিশ্বাস অনুযায়ী চলার সুযোগ আছে মানুষের৷ তাই সেখানে তাদের ওজু করার মত ধর্মীয় ব্যবস্থাও থাকা উচিত৷ একই সঙ্গে নামাজের জন্যে জায়গা থাকা এবং শুক্রবারে জুম্মার নামাজ পড়ার সময়ের সঙ্গে কর্মক্ষেত্রের সময়ের সামঞ্জস্য বিধান এবং তীর্থ যাত্রা বা হজের জন্যে অতিরিক্ত ছুটি যোগ করা৷'' পারভিন আলি বলেন, কাজের অনেক সুবিধাজনক শর্ত রয়েছে, যেখানে যা মুসলিম নারীদেরকে কাজে আসার জন্যে উৎসাহিত করতে পারে৷

সমন্বয় এবং নারী অধিকার নিয়ে বিতর্ক অব্যাহত রয়েছে৷ কিন্তু এটি এমনভাবে ইউরোপীয় মুসলিম নারীদের কাছ থেকে আসছে, যে এটি যেন এক হুঁশিয়ারি৷ এখানে একক কোন পরিচিতি নেই, তারা বলছেন, একজন নারী, একজন মুসলিম এবং একজন ইউরোপীয়র মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করতে হলে বহুমুখিতার স্বীকৃতি প্রয়োজন৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন