1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

ইউরোপে বেকারদের মনে অসন্তোষ বাড়ছে

স্পেন ও ইটালির শীর্ষ নেতাদের মতে, ইউরো এলাকায় চরম বেকারত্ব কাটাতে না পারলে ইউরোপ-বিরোধী শক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে৷ ব্যয় সংকোচের পাশাপাশি তাঁরা প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর পথে চলার ডাক দিয়েছেন৷

গ্রিস, স্পেন, পর্তুগাল সহ ইউরো এলাকার বেশ কিছু দেশের অর্থনীতি বিপর্যস্ত৷ এই অবস্থায় ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক বর্তমান সংকটের শুরু থেকেই সক্রিয় ভূমিকা রাখার চেষ্টা করে আসছে৷ সোমবার ব্যাংকের প্রধান মারিও দ্রাগি বলেন, ইউরোপের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে যদি সুদের হার আরও কমাতে হয়, ইসিবি অবশ্যই তা করবে৷ কিছু দেশে বেকারত্বের মারাত্মক হার নিয়ে তিনি দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেন৷ স্পেন ও গ্রিসে বেকারত্বের হার এখন প্রায় ২৭ শতাংশ৷ তাছাড়া গোটা ইউরো এলাকায় চলতি বছর ১২ শতাংশের বেশি বেকারত্বের পূর্বাভাষের আলোকে অশান্তির আশঙ্কা বাড়ছে৷ চলতি সপ্তাহে পুঁজিবাজারে কিছুটা মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে৷ অথচ গত সপ্তাহান্তে সূচক বেশ উপরের দিকেই ছিল৷ ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অবস্থানের কারণে বাজারে কিছুটা স্বস্তি দেখা যাচ্ছে৷

Deutschland EU Euro EZB Mario Draghi Europäische Zentralbank

ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান মারিও দ্রাগি

জার্মানির নেতৃত্বে একদল যখন সংস্কার ও ব্যয়-সংকোচের উপর জোর দিচ্ছে, তখন ইউরো এলাকার কোণঠাসা দেশগুলি এবার নিজেদের মধ্যে জোট বাঁধার চেষ্টা করছে৷ স্পেন ও ইটালিতে বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে বেকারত্ব মারাত্মক হারে বেড়ে গেছে৷ এই অবস্থায় দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী সোমবার একযোগে ইউরো এলাকায় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ফিরিয়ে আনার উপর জোর দিয়েছেন৷ তাঁদের মতে, শুধু ঋণের বোঝা কমালেই চলবে না৷ কারণ বর্তমান সংকটের ফলে জনমানসে ইউরোপ-বিরোধী আবেগ বেড়ে চলেছে৷

এই দুই প্রধানমন্ত্রী চান জুন মাসে ইইউ শীর্ষ সম্মেলনে নেতাদের সঠিক দিশায় জোরালো পদক্ষেপ নিতে৷ তা না হলে আগামী বছর ইউরোপীয় পার্লামেন্টের নির্বাচনে ইউরোপ-বিরোধী শক্তির ক্ষমতা আরও বেড়ে যাবার আশঙ্কা রয়েছে৷ মোটকথা, এই দুই নেতা চাইছেন সংকটগ্রস্ত দেশগুলি নিজেদের দেশে প্রয়োজনীয় সংস্কার চালিয়ে যাক৷ কিন্তু পরিস্থিতি সামাল দিতে পাশাপাশি ইউরোপীয় পর্যায়েও সংস্কার চালাতে হবে৷ এদিকে চাপে পড়ে পর্তুগাল সোমবার সরকারি ব্যয় কমাতে আরও কিছু অপ্রিয় পদক্ষেপের ঘোষণা করেছে৷ তবে জার্মান অর্থমন্ত্রী এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, সংকটের সময় জার্মানি বা তার চ্যান্সেলরের ঘাড়ে দায় না চাপিয়ে সংকটের মূল কারণ খুঁজে তা দূর করাই জরুরি৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন