1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

ইউরোপের প্রবৃদ্ধির পথে বাধা ঋণভার

প্রায় চার বছরের আর্থিক ও অর্থনৈতিক সংকট কাটিয়ে ইউরো এলাকার দেশগুলি সামান্য মাত্রায় হলেও সুদিনের আশা করছে৷ কিন্তু অনেক অপ্রিয় সংস্কার চালানো সত্ত্বেও বিপুল ঋণের ভারে তাদের প্রবৃদ্ধি অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে৷

ইটালি, গ্রিস, আয়ারল্যান্ড ও পর্তুগাল দীর্ঘ সময়ের মন্দা কাটিয়ে আবার প্রবৃদ্ধির পথে ফেরার তোড়জোড় করছে৷ ব্যাপক মাত্রায় সংস্কার ও সরকারি ব্যয় কমিয়ে প্রতিযোগিতার বাজারে তারা নিজেদের অবস্থান আরও জোরদার করছে৷ কিন্তু চার বছর আগের তুলনায় তাদের ঘাড়ের উপর ঋণের ভার এত বেশি, যে কাজটা খুবই কঠিন হবে৷ তাই কিছু পর্যবেক্ষক এই পরিস্থিতিকে জাপানের সঙ্গে তুলনা করছেন, যেখানে প্রায় এক দশক ধরে প্রবৃদ্ধির নীচু হার ও চরম বেকারত্ব দেখা গিয়েছিল৷ তবে স্পেনের অগ্রগতির আশা উজ্জ্বল বলে মনে করে ইউরোগ্রুপ৷ সামান্য হলেও সে দেশে প্রবৃদ্ধি বাড়ছে ও বেকারত্বের হার কমছে৷ শুধু গ্রিসের ক্ষেত্রে কিছুটা সন্দেহ রয়ে গেছে৷ আগামী মাসে সে দেশের সংস্কার, ঋণভার ইত্যাদি বিষয়ে অগ্রগতি নতুন করে মূল্যায়ন করা হবে৷

যে মাসত্রিষ্ট চুক্তির মাধ্যমে অভিন্ন মুদ্রা ইউরো চালু হয়েছিল, আগামী ১লা নভেম্বর তার দুই দশক পূর্ণ হচ্ছে৷ ফলে এই সময়কালের সাফল্য ও ব্যর্থতার মূল্যায়নও শুরু হয়েছে৷ রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও ব্যাংকিং ইউনিয়ন ছাড়াই শুধু অভিন্ন মুদ্রা যে গোটা ব্যবস্থাটিকে অসম্পূর্ণ রেখেছে, সে বিষয়ে তেমন সন্দেহ নেই৷ সদস্য দেশগুলি তাদের সার্বভৌমত্ব আরও কমিয়ে এই সব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির উপর নিয়ন্ত্রণ ছাড়তে এখনো পুরোপুরি প্রস্তুত নয়৷ কিন্তু অন্যদিকে আর্থিক ও অর্থনৈতিক সংকটের চাপে বাধ্য হয়ে এই দিশায় বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে হচ্ছে, যদিও সেই সংস্কারের গতি খুবই ধীর৷ জার্মানিতে নতুন সরকার গঠন হওয়ার পর নতুন বছরে ইউরোপীয় স্তরে বকেয়া সিদ্ধান্তগুলি ত্বরান্বিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে৷ বিশেষ করে ব্যাংকিং ইউনিয়নের ক্ষেত্রে অগ্রগতির সম্ভাবনা উজ্জ্বল বলে মনে করা হচ্ছে৷

শুধু ইউরোপের ভিতরের ঘটনা বা প্রবণতা নয়, বিশ্বের অন্যান্য প্রান্তের ঘটনাপ্রবাহও ইউরোপের উপর প্রভাব ফেলছে৷ মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ‘ফেড' দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে এতদিন যে ‘স্টিমুলাস' চালিয়ে যাচ্ছিল, তার মাত্রা কমে যেতে পারে – এমন একটা আশঙ্কা কাজ করছে৷ ফলে সোমবার ইউরোপের পুঁজিবাজার কিছুটা স্তিমিত ছিল৷ চলতি সপ্তাহেই মার্কিন অর্থনীতি সম্পর্কে কিছু তথ্য-পরিসংখ্যান পাওয়ার পর বাজার আবার কিছুটা স্থিতিশীল হবে বলে মনে করা হচ্ছে৷ মঙ্গলবার অবশ্য বাজার আবার কিছুটা চাঙ্গা হয়ে ওঠে৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়