ইউরোপের অধিকাংশ বিমানবন্দর বন্ধ | বিশ্ব | DW | 18.04.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইউরোপের অধিকাংশ বিমানবন্দর বন্ধ

আইসল্যান্ডের ছাইমেঘের কারণে ইউরোপের ব্যাপক অংশে বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে৷ এখন পর্যন্ত যা খবর, তাতে রবি, সোম ছাড়িয়ে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি পর্যন্ত গড়াতে পারে ইউরোপের বিমান যাত্রীদের ভোগান্তি৷

default

আইসল্যান্ডের আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতের ফলে ইউরোপের আকাশ ছেয়ে গেছে ছাইমেঘে৷ আর তাই, ইউরোপের তিন চতুর্থাংশ বিমান চলাচল বন্ধ৷ ভোগান্তিতে কয়েক মিলিয়ন বিমানযাত্রী৷

ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ বিমানবন্দরগুলো একের পর এক বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে এই ছাইমেঘের কারণে৷ ইতিমধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়া অনেকগুলো বিমানবন্দরের বন্ধের সময়সীমা বাড়িয়ে দেয়েছে৷ প্যারিসের তিনটি বিমানবন্দর বন্ধ থাকবে সোমবার সকাল পর্যন্ত৷ অন্যদিকে, ইতালির উত্তরাঞ্চলের সব বিমানবন্দরও বন্ধ একইসময় পর্যন্ত৷ জার্মানির আকাশপথও বন্ধ থাকবে সোমবার সকাল পর্যন্ত৷ তবে রবিবার দুপুর পর্যন্ত বন্ধ থাকছে ব্রিটেন ও আয়ারল্যান্ডের আকাশপথ৷

Deutschland Flughafen Vulkanasche

এই অপেক্ষা শেষ হবে কবে?

এদিকে, এই ছাইমেঘ আসলেই কতটা ক্ষতিকর তা বাস্তবতার ভিত্তিতে পরীক্ষা করার আহ্বান জানিয়েছে জার্মান বিমান সংস্থা লুফৎহানসা৷ শনিবার, এই সংস্থার ১০টি বিমান কোন যাত্রী ছাড়াই কিছুটা কম উচ্চতায় উড়ে মিউনিখ থেকে ফ্রাংকফুর্টে পৌঁছায়৷ এরপর লুফৎহানসার মুখপাত্র ক্লাউস ভাল্থার বলেন, যে বিমানগুলো উড়েছে, তাদের কর্মীরা এই নিম্ন উচ্চতায় ছাইমেঘের কোন প্রভাব বুঝতে পারেনি৷ কাজেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আমাদের অনুরোধ, তারা গোটা ইউরোপে বিমান চলাচল বন্ধ করার আগে, শুধু কম্পিউটারের হিসেবনিকেশের উপর নির্ভর না করে বাস্তবিক ছাইমেঘের নমুনাও যেন পরীক্ষা করে দেখেন৷

আশার কথা হচ্ছে, রবিবার রাতে ইউরোপের আকাশে একাধিক পরীক্ষামূলক উড়ালের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জার্মান উড়াল নিরাপত্তা সংস্থা ডি.এফ.এস৷ এর মাধ্যমে দেখা হবে ছাইমেঘ যাত্রী বিমানগুলোর পক্ষে সত্যিই বিপজ্জনক কিনা৷

ছাইমেঘের প্রভাব পড়ছে পোল্যান্ডের নিহত প্রেসিডেন্ট লেখ কাচিন্সকির শোকসভার উপরেও৷

Island / Vulkan / Flugverkehr

আরো কয়েকদিন থাকবে ছাইমেঘ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতারা রবিবারের সমাধি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারছেন না, আর তার কারণ এই ছাইমেঘ৷ প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগে রাশিয়ায় এক বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান কাচিন্সকিসহ ৯৬ জন৷

ছাইমেঘের এই রেশ কতদিন থাকবে তা ঠিক করে বলতে পারছে না কেউ৷ আইসল্যান্ডের আবহাওয়া দপ্তর জানাচ্ছে, দেশটি থেকে রাশিয়া অভিমুখী ছাইমেঘের যাত্রা চলবে কমপক্ষে আরো দু'দিন৷ ভাগ্য খারাপ থাকলে তা চলতে পারে এই সপ্তাহের মাঝামাঝি পর্যন্তও৷ আর তাই, আপাতত বিমান সংস্থাগুলোর মাথায় হাত দিয়ে বসে থাকা ছাড়া বিশেষ কিছু করার নেই৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সংশ্লিষ্ট বিষয়