1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

ইউনেস্কো থেকে সরে আসছে যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল

‘ইসরায়েলবিরোধীদের প্রতি পক্ষপাত’-এর অভিযোগ তুলে জাতিসংঘের সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র৷  ইসরায়েলও এ সংস্থা থেকে বের হয়ে যাওয়ার কথা জানায়৷

বৃহস্পতিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ইসরায়েল বিরোধীদের প্রতি পক্ষপাতের কারণে যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘের বিশেষায়িত এ সংস্থার সদস্যপদ প্রত্যাহার করে নিচ্ছে৷ বিবৃতিতে দাবি করা হয়, ‘‘এ সিদ্ধান্ত হালকাভাবে নেয়া হয়, এ সিদ্ধান্তে ইউনেস্কোর জমে ওঠা বকেয়া, সংগঠনটির মৌলিক সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা এবং ইসরায়েলের প্রতি পক্ষপাতহীনতা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগের প্রতিফলন ঘটেছে৷'' 

যুক্তরাষ্ট্রের এ ঘোষণার পরে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু জানান, তাঁর দেশও ইউনেস্কো থেকে সরে আসার প্রস্তুতি নিতে শুরু করবে অচিরেই৷ এক বিবৃতিতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের এ সিদ্ধান্তকে ‘সাহসী ও নৈতিক' বলে উল্লেখ করেছেন৷ জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলি রাষ্ট্রদূত ড্যানি ড্যানন যুক্তরাষ্ট্রের এ সরে আসাকে একটি ‘টার্নিং পয়েন্ট' উল্লেখ করে বলেছেন, ইসরাইলের বিরুদ্ধে অবান্তর ও লজ্জাজনক পদক্ষেপ নেয়ার পরিণতি এখন ইউনেস্কো বুঝতে পারবে৷

২০১১ সালে ফিলিস্তিনকে জাতিসংঘের সদস্য করে নেয়ার পক্ষে মতামত দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্র ইউনেস্কো তহবিলে অনুদান বন্ধ করে দেয় এবং এখন পর্যন্ত ইউনেস্কো যুক্তরাষ্ট্রের কাছে প্রায় ৫৫০ মিলিয়ন ইউএস ডলার ঋণী৷ গত বছর পবিত্র স্থান জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের অংশ উল্লেখ করে এর দখলের সমালোচনা করায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের সমালোচনার মুখে পড়ে ইউনেস্কো৷ বিশেষ করে এর সঙ্গে ইহুদিদের সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি উল্লেখ না করায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল খুব নাখোশ হয়৷ এ বছর পশ্চিম তীরের প্রাচীন হেবরন নগরীকে বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে ঘোষণা করায় নেতানিয়াহু ইউনেস্কোর সমালোচনা করেন৷

ইউনেস্কোর প্রধান ইরিনা বোকোভা বলেন, সংস্থা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে যাওয়ার ঘটনা ‘গভীর দুঃখজনক'৷ যুক্তরাষ্ট্রের নিজেদের প্রত্যাহারের এ ঘোষণা জাতিসংঘ পরিবার এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে বড় ক্ষতির কারণ হবে৷

ইউনেস্কো থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে যাওয়ার এ সিদ্ধান্ত আগামী ৩১ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হবে৷

আরএন/এসিবি ( এএফপি, এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়