1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ইউনূস প্রসঙ্গে সম্মানজনক সমঝোতার আভাস

সোমালী জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া নাবিকরা অবশেষে দেশে ফিরেছেন৷ রয়েছে ইউনূস ইস্যুতে সমঝোতার ইঙ্গিত৷ আর ঢাকার ময়লাযুক্ত পানি নিয়ে বিড়ম্বনার খবর৷ এসবই আজকের গণমাধ্যমের মূল শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছে৷

default

প্রফেসর ইউনূস

ফিরেছেন মুক্ত নাবিকরা

‘যেন জীবন ফিরে পেলাম', শিরোনাম করেছে দৈনিক ইত্তেফাক৷ সোমালী জলদস্যুদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া এমভি জাহান মণির নাবিকরা সোমবার চট্টগ্রামে ফিরে আসেন৷ নাবিকরা জানিয়েছেন, জলদস্যুদের হাতে জিম্মি হওয়ার পর থেকে ১৪ মার্চ পর্যন্ত তাদের প্রতিটি মুহূর্ত ছিলো অসহনীয় কষ্টের ও যন্ত্রণার৷ প্রাণ বাঁচাতে তাদের সমুদ্রের পানিও পান করতে হয়েছে৷ ছিল খাদ্য সংকট৷ তবে জলদস্যুরা প্রথম দিকে নাবিকদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার না করলেও পরে খানিকটা সহানুভূতি দেখয়েছিল৷ একই বিষয়ে দৈনিক কালেক কণ্ঠের শিরোনাম, ‘দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান, ফিরলেন নাবিকরা'৷ চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে ফুলের মালা দিয়ে নাবিকদের বরণ করে নেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি এবং নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান৷ এসময় উৎসুক জনতার ভিড় সামাল দিতে পুলিশকে হিমশিম খেতে হয়েছে৷

সম্মানজনক সমাধান

দৈনিক সমকালের শিরোনাম, ‘ইউনূস ইস্যুর সম্মানজনক সমঝোতা হচ্ছে'৷ বিশ্বস্ত সূত্রের বরাতে পত্রিকাটি জানাচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমঝোতার পক্ষে মত দিয়েছেন৷ আলোচনা করে ইউনূস ইস্যুর সুরাহা করতে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতকে প্রধান করে একটি কমিটিও করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷ আগামী দু'সপ্তাহের মধ্যে একটি সমঝোতার আশার কথা জানিয়েছে সমকাল৷

পানি দিবস

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এর শিরোনাম, ‘এখানে পানি চাওয়ারও অধিকার নেই'৷ জাতিসংঘ সনদ অনুযায়ী বিশুদ্ধ পানি ও পয়নিষ্কাশন মানুষের মৌলিক অধিকার হলেও বাংলাদেশের সংবিধানে এ বিষয়ে নাগরিকদের কোনো নিশ্চয়তা দেওয়া হয়নি৷ সোমবার ঢাকায় এক সেমিনারে এই বিষয়টি তুলে ধরেন আলোচকরা৷ একই বিষয়ে দৈনিক প্রথম আলো জানাচ্ছে, ‘ঢাকা ওয়াসার পানিতে দুর্গন্ধ, বিশুদ্ধ পানি পেতে দশ বছর'! ঢাকার অনেক এলাকায় ওয়াসার পানিতে এখন দুর্গন্ধ-ময়লা৷ তাই বিকল্প উপায়ে ওয়াসার পাম্প হাউসগুলো থেকে খাবার পানি সংগ্রহ করে সাধারণ মানুষ৷ এই কাজ বেশ কঠিন হলেও অসহায় ঢাকাবাসীর সামনে আর কোন উপায় নেই৷

গ্রন্থনা: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: জান্নাতুল ফেরদৌস