1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের উড়ালে যাত্রীর উপর চোটপাট

বিমান থেকে টেনে-হিঁচড়ে বার করা হলো এক যাত্রীকে, কেননা ডোমেস্টিক ফ্লাইটটিতে বড় বেশি যাত্রী বুক করা হয়েছিল৷ যে পুলিশ অফিসার যাত্রীটিকে হয়রানি করেন, তাঁকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে৷

ঘটনাটি ঘটে গত সোমবার শিকাগোর ও'হেয়ার বিমানবন্দরে, যখন ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের ৩৪১১ নম্বর উড়ালটি কেনটাকির লুইভিল অভিমুখে যাত্রা করার জন্য অপেক্ষা করছিল৷

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় এবং টাইম ম্যাগাজিন সহ বেশ কিছু পত্রিকা সেটিকে রিটুইট করে৷

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কীভাবে পুলিশ কর্মকর্তারা একজন পুরুষকে তাঁর জানালার ধারের আসন থেকে হাত রাখার হাতলের উপর দিয়ে টেনে বার করছেন, তারপর মাটিতে পড়ে থাকা অবস্থায় ভদ্রলোককে এইল দিয়ে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে৷

সংশ্লিষ্ট যাত্রীর চিৎকার ছাড়া অন্যান্য যাত্রীদের মন্তব্যও শোনা যাচ্ছে: ‘‘প্লিজ, মাই গড''; ‘‘আপনারা কি করছেন?''; ‘‘এটা খারাপ''; ‘‘দেখুন, আপনারা ওঁকে কি করেছেন''; ‘‘ওনার ঠোঁট কেটে গেছে''৷

রবিবার সন্ধ্যার উড়াল৷ দৃশ্যত ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের চারজন কর্মীর জন্য জায়গা করার জন্য যাত্রীদের বলা হয়, তাদের মধ্যে কে অথবা কারা স্বেচ্ছায় তাদের সিট ছেড়ে দিয়ে নেমে যেতে রাজি আছেন; তাহলে তাদের ৪০০ ডলার, পরে এমনকি ৮০০ ডলার ভাউচার হিসেবে দেওয়া হবে, সেই সঙ্গে থাকবে হোটেলে নিখর্চায় রাত্রিবাস৷

কেউ সেই অফারে রাজি না হলে, ঘোষণা করা হয় যে, যে কোনো চারজন যাত্রীকে বেছে নিয়ে নামিয়ে দেওয়া হবে৷ যে চারজনকে বেছে নেওয়া হয়, তাদের মধ্যে তিনজন স্বেচ্ছায় বিমান ছেড়ে নেমে যান – কিন্তু চতুর্থ ব্যক্তি নেমে যেতে অস্বীকার করেন৷ তিনি বলেন যে, তিনি একজন ডাক্তার এবং তাঁর রোগীদের দেখাশুনা করতে হবে৷

তখন পুলিশ ডাকা হলে, দু'জন পুলিশ অফিসার এসে নাছোড়বান্দা যাত্রীটির সঙ্গে কথাবার্তা বলার চেষ্টা করেন৷ তারপর এক তৃতীয় পুলিশ কর্মকর্তা এসে যাত্রীটিকে সিট ছাড়তে বলেন ও পরে তাঁকে সিট থেকে টেনে বার করেন৷ বিমানটি শেষমেষ ঘণ্টা তিনেক দেরিতে ছাড়ে – আরো কিছু যাত্রী তখন ধৈর্য হারিয়ে প্লেন থেকে নেমে গেছেন৷

ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছে৷

এসি/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়