1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি: ‘‘এখনই বলা সম্ভব নয়''

এ মন্তব্য করেছেন খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, এস্টোনিয়ার রাজধানী টালিন থেকে৷ পরে ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট পেট্রো পোরোশেঙ্কোর অফিস থেকে ‘‘স্থায়ী যুদ্ধবিরতির'' বদলে ‘‘যুদ্ধবিরতির ব্যবস্থার'' কথা বলা হয়েছে৷

রাশিয়া বলছে, তারা এই সংঘাতে কোনো পক্ষ নয়৷ বুধবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেট্রো পোরোশেঙ্কোর প্রেস অফিস থেকে ঘোষণা করা হয় যে, পোরোশেঙ্কো এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন পূর্ব ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি সম্পর্কে একমত হয়েছেন৷ পরে প্রেস অফিস থেকেই ঐ বিবৃতি সংশোধন করে বলা হয়, উভয় নেতা একটি ‘‘যুদ্ধবিরতি ব্যবস্থা'' সম্পর্কে একমত হয়েছেন৷

ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতির খবরে প্রথমেই যাঁদের কান খাড়া হয়েছে, তারা হলেন ফাটকা ব্যবসায়ীরা৷ বিশ্বের শেয়ার বাজারগুলিতে শেয়ারের দাম বেশ কিছুটা চড়ে গেছে৷ বিশেষ করে রাশিয়ায় শেয়ার বাজার চড়ে চার শতাংশের বেশি: ডলারের হিসেবে রুবলের বিনিময়মূল্য বাড়ে এক ধাক্কায় দেড় শতাংশ৷ ইউরোপে এফটিএসই, যুক্তরাষ্ট্রে ওয়াল স্ট্রিট, জাপানে নিকেই – সর্বত্রই হাওয়া গরম: যুদ্ধের ভীতি কেটেছে, এবার ব্যবসা-বাণিজ্য আবার চলবে পুরোদমে, কোনোরকম শাস্তিমূলক ব্যবস্থা ছাড়াই৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এস্টোনিয়ার টালিনে এসেছিলেন ইউরোপের পূর্ব প্রান্তে রাশিয়ার সীমান্তবর্তী দেশগুলির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র তথা ন্যাটোর সংহতি প্রকাশ করতে – এমনকি এস্টোনিয়ার আমারিয়া বিমানঘাঁটিতে আরো বেশি মার্কিন জঙ্গিবিমান স্থাপনের সম্ভাবনার কথাও বলেছেন তিনি৷

ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি সম্পর্কে তাঁর বক্তব্য হলো, রাশিয়াকে ‘‘ভান করা'' বন্ধ করতে হবে যে, তারা এই সংঘাতে সক্রিয়ভাবে সংশ্লিষ্ট নয়৷ সেই সঙ্গে রাশিয়াকে ইউক্রেনে সৈন্য ও অস্ত্রশস্ত্র পাঠানো বন্ধ করতে হবে৷

এক্ষেত্রে রাশিয়ার মনোভাব যা-ই হোক না কেন, ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেস্কভের বিবৃতি অনুযায়ী রুশ এবং ইউক্রেনীয় নেতারা পূর্ব ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতির জন্য আবশ্যক পদক্ষেপ সম্পর্কে একমত হয়েছেন বটে, কিন্তু মস্কো কোনো চুক্তিতে অংশ নিতে পারবে না, কেননা রাশিয়া এই সংঘাতে সংশ্লিষ্ট নয়৷ বাকি থাকছে পূর্ব ইউক্রেনের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা৷

তাদের নেতা, ডনবাস অঞ্চলের স্বঘোষিত দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের উপ-প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির আন্তিয়ুফেয়েভ বলেছেন, ‘‘আমাদের রাজ্যাঞ্চল'' থেকে ইউক্রেনীয় সৈন্যদের পশ্চাদপসারণ হলো শান্তির মুখ্য পূর্বশর্ত৷ আন্তিয়ুফেয়েভ রয়টার্স সংবাদ সংস্থাকে টেলিফোনে বলেন, রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধবিরতির কথাটা একটা ‘‘প্ররোচনা'' ছাড়া আর কিছু নয়, কেননা রাশিয়া এই সংঘাতে কোনো পক্ষ নয়৷

এসি/ডিজি (এপি, রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়