1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

যুক্তরাষ্ট্র

‘আড়ি পাতার কোনো প্রমাণ নেই'

নির্বাচনি প্রচারের সময় প্রেসিডেন্ট ওবামা প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপর নজরদারি চালিয়েছিলেন – এমন মারাত্মক অভিযোগ সংসদেও ধোপে টিকলো না৷ ট্রাম্প অবশ্য মরিয়া হয়ে এখনো নিজের দাবিতে অটল রয়েছেন৷

মার্কিন কংগ্রেসের সেনেট ইন্টেলিজেন্স কমিটিতে ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান ও বিরোধী ডেমোক্র্যাট – দুই দলেরই সদস্য রয়েছেন৷ তাঁরা ট্রাম্পের মারাত্মক অভিযোগ খতিয়ে দেখে বলেছেন, ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের সময়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের টেলিফোনে আড়ি পাতার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷

এমনকি ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ সহযোগী বলে পরিচিত স্পিকার পল রায়ান-ও সেই সুরে সুর মেলালেন৷ তিনিও বলেন, যে ট্রাম্পের উপর নজরদারির কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷

কমিটির সদস্য ও ডেমোক্র্যাটিক দলের এক সংসদ সদস্যের মতে,  ট্রাম্প ফক্স নিউজ-এর সঙ্গে এ বিষয়ে এক সাক্ষাৎকারে রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য ফাঁস করে দিয়েছেন৷

তবে কোণঠাসা হয়েও নিজের ভুল ধারণা মেনে নিতে প্রস্তুত নন ট্রাম্প৷ হোয়াইট হাউস মুখপাত্র শন স্পাইসার সাংবাদিকদের প্রশ্নবানে জর্জরিত হয়েও সেই অভিযোগ আঁকড়ে ধরে রাখলেন৷ প্রেসিডেন্টের অভিযোগের সপক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে না পেরে তিনি মরিয়া হয়ে সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে একপেশে সংবাদ পরিবেশনের অভিযোগ আনতে লাগলেন৷

প্রশ্ন উঠছে, ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প কোনো বিষয়ে সন্দেহ হলে সরাসরি গোয়েন্দা সংস্থাগুলির কাছে সত্য যাচাই করে নিতে পারেন৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও তিনি কোনো তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ না করে টুইটারের মাধ্যমে পূর্বসূরি বারাক ওবামার বিরুদ্ধে এমন মারাত্মক অভিযোগ করে বসেছেন৷ ফক্স নিউজের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, তিনি আসলে কোনো গোয়েন্দা সংস্থার শক্তির অপব্যবহার করতে চান নি৷ সেইসঙ্গে তিনি অদূর ভবিষ্যতে নিজের অভিযোগের সপক্ষে প্রমাণ পেশ করার ইঙ্গিতও দিয়েছেন৷

এসবি/ডিজি (রয়টার্স, এএফপি)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়