1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আসাদ থাকবেন, না যাবেন?

প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার পর তথাকথিত ইসলামিক স্টেট বা আইএস দমনের লক্ষ্যে রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমা জগতের সমন্বয়ের উদ্যোগ চলছে৷ কিন্তু সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে মতপার্থক্য এখনো দূর হয়নি৷

রাশিয়া ও ইরানের মতো দেশের মতে, আন্তর্জাতিক সমাজকে ঐক্যবদ্ধভাবে আইএস দমনের কাজে মনোযোগ দেওয়া উচিত৷ তারা সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকেও এই কাজে পাশে পেতে চায়৷ ফলে সিরিয়ায় রাজনৈতিক সমাধানসূত্রের ক্ষেত্রে আসাদের গুরুত্ব বেড়ে যাচ্ছে৷ অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়ায় আসাদকে শামিল করতে হবে৷

১৯টি দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ভিয়েনায় এক বৈঠকে আগামী ১লা জানুয়ারি থেকে সিরিয়ায় অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন এবং তারপর নির্বাচনের লক্ষ্যে আলোচনা শুরু করার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছেন৷

রাশিয়া জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের কাছে আইএস-এর বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ সংগ্রামের ডাক দিয়ে এক খসড়া প্রস্তাব পেশ করেছে৷ ফ্রান্সও নিজস্ব প্রস্তাব পেশ করেছে৷

বুধবার রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বলেছিলেন, সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট-এর বিরুদ্ধে বিশ্বশক্তিগুলির জোট গড়ার পূর্বশর্ত হিসেবে আসাদকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করে চলবে না৷

Karte Russische Präsenz und Luftangriffe in Syrien englisch NEU!

ইটালির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ বলেছেন, যতদিন সন্ত্রাসবাদীরা দেশ দখল করে রয়েছে, ততদিন কোনো রাজনৈতিক প্রক্রিয়া সম্ভব নয়৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ম্যানিলায় বলেছেন, বাশার আল-আসাদ ক্ষমতা না ছাড়লে সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ শেষ হবে না৷ ওবামা আরও বলেন, রাশিয়া ও ইরানের সামনে দু'টি পথ খোলা আছে৷ তাদের হয় আসাদের স্বার্থ রক্ষা করতে হবে, অথবা রাষ্ট্র হিসেবে সিরিয়াকে বাঁচাতে এক বৈধ সরকার খুঁজতে হবে৷

সংকলন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়