1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘আশরাফুলের অপরাধটা কি খুব বেশি ছিল?’

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ক্রিকেট থেকে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলকে৷ বলা বাহুল্য, এই নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলি বেশ সরব৷

ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় একটি স্ট্যাটাস দেয়া হয়েছিল, ‘‘বিপিএল-এর গত আসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকার অপরাধে ক্রিকেট থেকে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল৷ ফলে কোনো ধরণের ক্রিকেট প্রতিযোগিতাতেই তাঁকে দেখার সম্ভাবনা প্রায় শেষ হয়ে গেল৷ সাজার মেয়াদ শেষে আশরাফুলের বয়স হবে ৩৮৷ সবচেয়ে কম বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়া বাংলাদেশের এই ক্রিকেটার কি আর ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন?''

এর স্ট্যাটাসে অনেকেই তাঁদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন৷ মঞ্জুর সুজন লিখেছেন, ‘‘এটা কোনো বিচার হয় নাই! যখন সবাই বলছে একা ম্যাচ পাতানো সম্ভব না, তাহলে বাকিদের কেন বিচার হলো না? কেবল একজনের বিচার করলে হবে না, যারা যারা ম্যাচ পাতিয়েছে পুরো দলটির বিচার করতে হবে৷''

Mohammad Ashraful

‘‘এটা কোনো বিচার হয় নাই!''

আল মামুন বাপ্পি লিখেছেন, ‘‘কত খেলোয়াড় আন্তর্জাতিক ম্যাচে ফিক্সিং করেছে তাতে কিছু হয় না আর এটা তো সামান্য বিপিএল৷ বিসিবি-র কোনো কর্মকর্তার সাথে আশারাফুলের হয়ত শত্রুতা আছে, তাই এমন সাজা দিয়েছে, যা অন্যায়৷''

গোলাম মাওলা লিখেছেন, ‘‘আশরাফুলকে এত বড় শাস্তি না দিলে পারতো৷ পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের তো এত বড় শাস্তি দিতে দেখি নাই৷'' তাই তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন যাতে আশরাফুলের শাস্তি কমিয়ে তাকে খেলার সুযোগ দেয়া হয়৷

মোহাম্মদ নূর লিখেছেন, ‘‘একজন ক্রিকেটারকে আট বছর নিষিদ্ধ করা মানে হচ্ছে তাঁর ‘ক্রিকেট লাইফ' পুরাটাই শেষ৷ কথায় আছে সারা অঙ্গে ক্ষত, ওষুধ দিবে কত? বাংলাদেশে এমন কোনো সেক্টর নাই যেখানে ঘুস-দুর্নীতি নাই, বাংলার প্রত্যেক পরতে পরতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে দুর্নীতি৷ বাংলাদেশের ক্রিকেটে আশরাফুলের অসামান্য অবদানের কথা বিবেচনা করে তাঁকে বিশেষ বিবেচনায় ক্ষমা করে যায় না?''

তিনি বলেছেন, ‘‘আমরা দেখেছি বাংলাদেশে রাজনৈতিক বিবেচনায় অনেক ফাঁসির আসামিও রাষ্ট্রপতির বিশেষ ক্ষমায় মুক্তি পান, আশরাফুল পাবে না কেন?''

বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম-এ এই খবরটির মন্তব্যে নাদিম আহমেদ প্রশ্ন রেখেছেন

‘‘যে দেশে মানুষ হত্যার কোনো বিচার হয় না, সেখনে আশরাফুলের অপরাধটা কি খুব বেশি ছিল?''

মোহাম্মদ খান লিখেছেন, ‘‘আমরা কোন আশরাফুলের বিরুদ্ধে কথা বলছি? আমরা ভুলে গেছি সে আশরাফুলকে? যে আশরাফুল ছাড়া বাংলাদেশ টিমকে কল্পনাও করতে পারতাম না৷ সবাই মিলে বসে থাকতাম কবে আশরাফুলের ব্যাটিং দেখবো! আশরাফুলের কাছে কোটি কোটি টাকার অফার এসেছিল ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেট খেলার জন্য, আশরাফুল সে প্রস্তাব ফিরেয়ে দিয়েছিলেন৷ কেন? দেশকে ভালোবেসে৷ আর সেই আশরাফুল ১০ লক্ষ টাকায় দেশের সাথে বেইমানি করবেন? আশরাফুল যে ভুল করছেন তার চেয়ে বেশি চাপের শিকার হয়েছেন৷ বিশ্বের বড় বড় বেইমান প্লেয়াররা ভিডিও ফুটেজ থাকা সত্ত্বেও নিজের দোষ অস্বীকার করেন, কিন্তু আশরাফুল সাদা মনের মানুষ বলেই দেশের স্বার্থে সব অকপটে স্বীকার করেছেন৷ আর এই সরলতাই যদি আজ আশরাফুলের কাল হয়ে দাঁড়ায়, তাহলে ধিক ক্রিকেট বিশ্বকে৷''

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন