1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আল কায়েদার নজর বাংলাদেশের দিকে

বাংলাদেশে ‘ইসলাম বিরোধীদের’ বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আল কায়েদার আহ্বান হাল্কাভাবে নেয়ার সুযোগ নেই বলে জনিয়েছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা৷ তারা বলছেন, এখনই সতর্ক না হলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ তাদের টার্গেটে পরিণত হতে পারে৷

Internetvideo Al-Kaida Ayman al-Zawahiri 2013 ARCHIVBILD

আয়মান আল-জাওয়াহিরি (ফাইল ফটো)

আল কায়েদার বর্তমান নেতা আয়মান আল-জাওয়াহিরির নাম ও ছবিসহ প্রচারিত এক ভিডিও বার্তায় বলা হয়েছে, ‘‘বাংলাদেশের মুসলিম ভাইয়েরা, ইসলামের বিরুদ্ধে যারা ক্রুসেড ঘোষণা করেছে, তাদের প্রতিরোধ করার জন্য আমি আপনাদের আহ্বান জানাচ্ছি৷ উপমহাদেশ ও পশ্চিমের শীর্ষ ক্রিমিনালরা ইসলামের বিরুদ্ধে, ইসলামের নবীর বিরুদ্ধে এই ষড়যন্ত্র করছে, মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে, যাতে আপনাদেরকে তারা অবিশ্বাসীদের দাসে পরিণত করতে পারে৷''

Bin Laden und Ayman al-Zawahiri

মার্কিন অভিযানে নিহত ওসামা বিন লাদেনের সঙ্গে আয়মান আল-জাওয়াহিরি (ডানে)

বাংলাদেশকে ‘বিরাট এক জেলখানা' উল্লেখ করে এই বার্তায় বলা হয়, ‘‘এই দেশে মুসলমানদের সম্মান আজ ভূলুন্ঠিত৷ বাংলাদেশ আজ এমন এক ষড়যন্ত্রের শিকার, যাতে ভারতীয় এজেন্ট, পাকিস্তানের দুর্নীতিগ্রস্ত সেনা নেতৃত্ব এবং বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের ক্ষমতালোভী, বিশ্বাসঘাতক রাজনীতিবিদরাও জড়িত৷'' ঐ বার্তায় যুদ্ধাপরাধের বিচার নিয়েও নেতিবাচক মন্তব্য করেন তিনি৷

বাংলাদেশের নিরাপত্তা বিশ্লেষক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহেদুল আনাম খান (অব.) ডয়চে ভেলেকে জানান, আল কায়েদা নেতার এই ভিডিও বার্তাকে হাল্কাভাবে নেয়ার সুযোগ নেই৷ তারা সরাসরি বাংলাদেশে হামলার হুমকি না দিলেও ‘ইসলাম বিরোধীদের' প্রতিরোধের আহ্বান ইঙ্গিতপূর্ণ৷ তিনি বলেন, ‘‘এটা নিশ্চিত যে আল কায়েদা এখন বাংলাদেশের দিকে নজর রাখছে৷ কারণ তারা নিজেদের ‘ইসলামের রক্ষক' মনে করে৷

‘‘আল কায়েদা সরাসরি বাংলাদেশে সক্রিয় এমন কোনো তথ্য এখনো পাওয়া না গেলেও তাদের অনুসারী আছে বলে ধারণা করা যায়৷''

তিনি বলেন, ‘‘আল কায়েদা এতদিন বাংলাদেশ সম্পর্কে তেমন আগ্রহ দেখায়নি৷ কারণ বাংলাদেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদ বিরোধী কার্যক্রমে তেমন সক্রিয় নয়৷ কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে কয়েকটি ইসলামি সংগঠনের সহিংস তত্‍পরতা এবং তাদের বিরুদ্ধে সরকারের শক্ত অবস্থান আল কায়েদাকে বাংলাদেশের প্রতি আগ্রহী করে তুলছে৷''

শাহেদুল আনাম খান বলেন, ‘‘সরকারকে এখনই সতর্ক হতে হবে৷ নয়তো বাংলাদেশ আল কায়েদার টার্গেটে পরিণত হতে পারে৷ আয়মান আল-জাওয়াহিরির বার্তা বাংলাদেশের জঙ্গি সংগঠনগুলোকে উদ্বুদ্ধ করবে৷ আর বাংলাদেশে জঙ্গি সংগঠনগুলোর একাংশ সরাসরি না হলেও আল কায়েদার ভাবাদর্শে উদ্বুদ্ধ৷ তাই সরকারকে শুধু আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি নয়, সামাজিক সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে৷''

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ নিয়ে এর আগেও আল কায়েদা অডিও বার্তা প্রকাশ করেছে৷ আর যুদ্ধাপরাধের দায়ে জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর করার পর তেহরিকই তালিবান পাকিস্তান নামের একটি জঙ্গি সংগঠন পাকিস্তানে বাংলাদেশ দূতাবাস বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছিল৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন