1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আল-কায়েদার অনুসারী বাংলাদেশের আনসারুল্লাহ

আনসারুল্লাহর প্রধান মুফতি জসিম উদ্দিন আল-কায়েদা নেটওয়ার্কের সঙ্গে সম্পৃক্ত৷তিনি বাংলা টিমকে আল কায়েদার আদর্শে উদ্বুদ্ধ করেছেন, তাঁর অনুসারীদের নিয়ে সশস্ত্র জিহাদ এবং কথিত ‘নাস্তিক ব্লগার’দের হত্যার মিশনেও নেমেছিলেন৷

গণজাগরণ মঞ্চের শুরুর দিকে ১৫ই ফেব্রুয়ারি ঢাকার পল্লবীতে নিজ বাসার সামনে ব্লগার রাজীব হায়দার হত্যাকাণ্ডের পর জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহর নাম প্রথম জানা যায়৷ রাজীব হায়দারকে হত্যা করে আনসারুল্লাহ বাংলা টিম৷ তখন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থীকে গ্রেফতারের পর তারা হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে৷ তারা জানায় মুফতি জসিম উদ্দিন তাদের নেতা৷ এবং তারা আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য৷ আর তখনই জানা যায়, এর আগে ১৪ই জানুয়ারি উত্তরায় ব্লগার আফিস মহীউদ্দিনকে হত্যা প্রচেষ্টার সঙ্গেও তারা জড়িত৷ তারা ‘নাস্তিক ব্লগার'দের হত্যার মিশনে নেমেছে৷

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার মশিউর রহমান ডয়চে ভেলেকে বলেন, তখন থেকেই তারা মুফতি জসিম উদ্দিনকে খুঁজছিলেন৷ সোমবার দেশের দক্ষিণের জেলা বরগুনার দক্ষিণ খেঁজুরতলা এলাকা থেকে আনসারুল্লাহ'র প্রধান মুফতি জসিম উদ্দিনসহ ৩১ জনকে গ্রেফতার করে স্থানীয় পুলিশ৷ তারা সেখানকার একটি বাড়িতে গোপন বৈঠক করছিলেন৷ ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ মুফতি জসিম উদ্দিনকে ব্লগার রাজীব হায়দার হত্যা এবং আসিফ মহীউদ্দিন হত্যা প্রচেষ্টায় গ্রেফতার দেখিয়ে রিমান্ডের আবেদন জানিয়েছে আদালতে৷ উপ কমিশনার মশিউর রহমান জানান তাকে ঢাকায় নিয়ে আসা হবে৷

Blogger Asif Mohiuddin aus Bangladesch *** Blogger Asif Mohiuddin is under pressure from Government forces of Bangladesh, because of his writing on the reform of Education Sector. He is feeling in secured now. *** Zugeliefert durch Arafatul Islam am 4.10.2011. Copyright: Asif Mohiuddin

ব্লগার আফিস মহীউদ্দিনকেও হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছিল বলে জানা গেছে

বরগুনা জেলা পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ ডয়চে ভেলেকে জানান, মুফতি জসিম এবং তার সহযোগীদের কাছ থেকে জেহাদী বই ও সিডি উদ্ধার করা হয়েছে৷ আর জঙ্গি তত্‍পরতার বেশ কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে৷ তাতে দেখা যায়, এই আনসারুল্লাহর সদস্যরা সশস্ত্র জিহাদে বিশ্বাসী৷ মুফতি জসিমের বয়ানে ‘নাস্তিক ক্লগার'দের হত্যার কথাও বলা হয়েছে৷ তারা আরো গভীর তদন্ত করছেন৷

এদিকে ঢাকার বছিলা এলাকায় মুফতি জসিম উদ্দিনের মারকাজুল উলুম আল ইসলামিয়া মাদ্রাসা ও পাঠাগারে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ জিহাদী বই, সিডি, প্রচারপত্র ও কম্পিউটার জব্দ করা হয়েছে৷ অভিযান পরিচালনায় নেতৃত্বদানকারী অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার মশিউর রহমান ডয়চে ভেলেকে জানান, এই মাদ্রাসাটি আনসারুল্লাহ বাহিনীর প্রধান আস্তানা৷ আর এখান থেকে ১২ জনের একটি তালিকা উদ্ধার করা হয়েছে যাদের ‘নাস্তিক ব্লগার' হিসেবে হত্যার পরিকল্পনা করে তারা৷ তাদের মধ্যে আসিফ মহিউদ্দীন এবং নিহত ব্লগার রাজীব হায়দারের নাম আছে৷

মশিউর রহমান জানান, বছিলা এলাকা থেকে যেসব বই, সিডি এবং প্রচার পত্র উদ্ধার করা হয়েছে তাতে আনসারুল্লাহ যে আল-কায়েদা নেটওয়ার্কের অনুসারী তা স্পষ্ট৷ মুফতি জসিমের বক্তব্যের যে সব সিডি পেয়েছেন, তাতে তিনি একাধিকার ‘নাস্তিক ব্লগার'দের হত্যা এবং সশস্ত্র জিহাদের কথা বলেছেন৷ তাদের ওয়েব সাইটেও একই ধরনের কথা রয়েছে৷

তিনি আরও বলেন, আনসারুল্লাহর অনুসারী বাংলাদেশে কয়েক হাজার হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ তাদের বিস্তারিত কার্যক্রমের তথ্য এবং কর্মপদ্ধতি জানা গেছে৷ তারা হত্যাকাণ্ডে দেশীয় ধারাল অস্ত্র এবং যাতায়াতের জন্য সাইকেল ব্যবহার করে৷ জঙ্গি দলের প্রধান জসিম উদ্দিনের বাড়ি বরগুনা সদরে৷ তিনি ভারতের দেওবন্দ ও হায়দ্রাবাদের সাবেলুম সালাম মাদ্রাসায় পড়াশুনা করেছেন৷ তিনি বরগুনা এবং বরিশালের ২টি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেছেন৷ বরগুনা পুলিশ তাকে এখন ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে৷ এই রিমান্ড শেষ হলেও তাকে ঢাকায় আনা হবে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়