1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আল-কায়দা’র ভারপ্রাপ্ত প্রধান আল-আদেল: রিপোর্ট

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন দাবি করেছে, আল-কায়দা এক সাবেক মিশরীয় বিশেষ বাহিনীর কর্মকর্তাকে জঙ্গি গোষ্ঠীটির ভারপ্রাপ্ত প্রধান হিসেবে বাছাই করেছে৷ এদিকে, ওসামা নিহতের পর চীন সফরে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী৷

This poster released 10 October, 2001 shows the photo of Saif Al-Adel, one of the FBI's 22 most wanted terrorists. The individuals placed on this list released during a news conference by US President George W. Bush earlier 10 October, are wanted for their role in crimes committed since 1985, crimes which resulted in the death of innocent people around the world. dpa

সাইফ আল-আদেল

সাইফ আল-আদেল

সাইফ আল-আদেল হচ্ছেন আল-কায়দার নতুন ‘তত্ত্বাবধায়ক' প্রধান৷ সাবেক এক লিবীয় জঙ্গির বরাতে এই সংবাদ প্রকাশ করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন৷ এছাড়া পাকিস্তানের সংবাদপত্র ‘দ্য নিউজ' একই ধরনের সংবাদ প্রচার করেছে, তবে তারা সুত্র উল্লেখ করেনি৷ একাধিক বার্তা সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, সাইফ আল-আদেল মিশরের নাগরিক৷ একসময় সেদেশের বিশেষ বাহিনীর কর্মকর্তা ছিল সাইফ৷ সে আল-কায়দার অন্যতম কৌশল নির্ধারক৷ তবে, জঙ্গি গোষ্ঠী আল-কায়দা এই বিষয়ে কোন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেনি৷

পাকিস্তান-মার্কিন সম্পর্কে টানাপোড়েন

গত ২ মে পাকিস্তানের অ্যাবটাবাদে মার্কিন বিশেষ বাহিনী এক অভিযান চালিয়ে আল-কায়দা নেতা বিন লাদেনকে হত্যা করে৷ এরপর পাকিস্তান এবং মার্কিন সম্পর্কে টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়৷ দু'দেশের সম্পর্ক সঠিক পথে ফিরিয়ে আনতে পাকিস্তান সফর করেছেন মার্কিন সিনেটর জন কেরি৷ তিনি বলেছেন, পাকিস্তানের মাটিতে বিন লাদেনের বসবাস এবং হত্যার বিষয়ে চারটি আলাদা তদন্ত শুরু করেছে পাকিস্তান৷ লাদেনের এই অবস্থানের বিষয়ে সেদেশের গোয়েন্দা সংস্থার কেউ অবগত ছিল কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

Verschiedenen Onlineseiten englischsprachiger Zeitungen verbreiten die Nachricht über den Tod des Terroristenführers Osama bin Laden, aufgenommen am Montag (02.05.2011) in Kaufbeuren (Schwaben). Weltweit äusserten sich Politiker erleichtert über den Tod des Al-Kaida-Chefs. Foto: Karl-Josef Hildenbrand dpa/lby +++(c) dpa - Bildfunk+++

লাদেনকে হত্যার পর পাকিস্তান-মার্কিন সম্পর্কে টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়েছে

পাকিস্তান সীমান্তে সংঘর্ষ

পাক-মার্কিন সম্পর্কের নড়বড়ে অবস্থা আসলে ফুটে উঠেছে পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তের উত্তর ওয়াজিরিস্তান এলাকায়৷ সেখানে আকাশসীমা লঙ্ঘনের অভিযোগে ন্যাটোর হেলিকপ্টার লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে পাকিস্তানের সেনারা৷ ন্যাটো তার জবাব দেয়, আহত হয় দুই পাকিস্তানি সেনা৷ কিছু গণমাধ্যম আবার বলছে, প্রথমে গুলি ছুঁড়েছিল ন্যাটোর হেলিকপ্টার৷ সে যাহোক, ইসলামাবাদ ন্যাটোর এই হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে৷

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী'র চীন সফর

লাদেন হত্যার পর এই প্রথম চীন সফরে গেলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি৷ চীনের প্রশংসায় পঞ্চমুখ গিলানি জানিয়েছেন, যেকোন জটিল পরিস্থিতিতে চীন সবসময় পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়েছে৷ যেকারণে চীনকে আমরা পরীক্ষিত, সার্বক্ষনিক এবং সত্যিকারের বন্ধু হিসেবে জানি৷ চীনের সঙ্গে এই নিবিড় সম্পর্ক গর্বিত পাকিস্তান, জানিয়েছেন গিলানি৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন